রবিবার, ০৩ মার্চ ২০২৪, ২০ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

অস্ত্র নিয়ে অনুপ্রবেশ ২২ মিয়ানমারের নাগরিক রিমান্ডে

মিয়ানমারে চলমান সংঘাতের জেরে অস্ত্রসহ বাংলাদেশে অনুপ্রবেশকারী মিয়ানমারের ২৩ নাগরিককের মধ্যে ২২ জনের তিন দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। একজন অসুস্থ থাকায় তাকে রিমান্ডে নেওয়ার অনুমতি দেননি বিচারক।

সোমবার (১২ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে কক্সবাজারের জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম শ্রীজ্ঞান তঞ্চঙ্গ্যা শুনানি শেষে তাদের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা উখিয়ার থানার পরিদর্শক (তদন্ত) নাছির উদ্দিন মজুমদার এ তথ্য জানান।

নাছির উদ্দিন মজুমদার জানান, মিয়ানমারের এই নাগরিকদের জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আদালতের কাছে ১০ দিনের রিমান্ড চেয়ে আবেদন করা হয়। আদালত শুনানি শেষে তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। একজন অসুস্থ থাকায় তার রিমান্ড আবেদন মঞ্জুর করেননি বিচারক।

তিনি আরও জানান, অস্ত্র নিয়ে অনুপ্রবেশের ঘটনায় গত শুক্রবার গ্রেপ্তার ২৩ মিয়ানমারের নাগরিকের বিরুদ্ধে মামলা করে বিজিবি।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, গত মঙ্গলবার ভোর ও রাতে হমতেরবিল ও আনজুমানপাড়া সীমান্ত দিয়ে অস্ত্রধারী মিয়ানমারের নাগরিকরা বাংলাদেশে অনুপ্রবেশ করে। তাদের স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, স্থানীয় বাসিন্দারা আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে।

অস্ত্র নিয়ে অনুপ্রবেশ ২২ মিয়ানমারের নাগরিক রিমান্ডে

প্রকাশের সময় : ০৬:০৬:১৯ অপরাহ্ন, সোমবার, ১২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

মিয়ানমারে চলমান সংঘাতের জেরে অস্ত্রসহ বাংলাদেশে অনুপ্রবেশকারী মিয়ানমারের ২৩ নাগরিককের মধ্যে ২২ জনের তিন দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। একজন অসুস্থ থাকায় তাকে রিমান্ডে নেওয়ার অনুমতি দেননি বিচারক।

সোমবার (১২ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে কক্সবাজারের জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম শ্রীজ্ঞান তঞ্চঙ্গ্যা শুনানি শেষে তাদের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা উখিয়ার থানার পরিদর্শক (তদন্ত) নাছির উদ্দিন মজুমদার এ তথ্য জানান।

নাছির উদ্দিন মজুমদার জানান, মিয়ানমারের এই নাগরিকদের জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আদালতের কাছে ১০ দিনের রিমান্ড চেয়ে আবেদন করা হয়। আদালত শুনানি শেষে তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। একজন অসুস্থ থাকায় তার রিমান্ড আবেদন মঞ্জুর করেননি বিচারক।

তিনি আরও জানান, অস্ত্র নিয়ে অনুপ্রবেশের ঘটনায় গত শুক্রবার গ্রেপ্তার ২৩ মিয়ানমারের নাগরিকের বিরুদ্ধে মামলা করে বিজিবি।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, গত মঙ্গলবার ভোর ও রাতে হমতেরবিল ও আনজুমানপাড়া সীমান্ত দিয়ে অস্ত্রধারী মিয়ানমারের নাগরিকরা বাংলাদেশে অনুপ্রবেশ করে। তাদের স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, স্থানীয় বাসিন্দারা আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে।