রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ১ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

রাতারাতি মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণ হবে না এটা নিয়ে কাজ চলছে-অর্থমন্ত্রী

অর্থমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী বলেছেন, রাতারাতি মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণ হবে না। এটা নিয়ে কাজ চলছে, অপেক্ষা করতে হবে, আমাদের ম্যানেজ করতে হবে।

রোববার (২৫ ফেব্রুয়ারি) সকালে শেরেবাংলা নগরের পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ে অর্থমন্ত্রীর দপ্তরে বিশ্বব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (অপারেশনস) অ্যানা বেজার্ড আবুল হাসান মাহমুদ আলীর সঙ্গে বৈঠক করেন। বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এ কথা জানান মন্ত্রী।

বৈঠকে অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের (ইআরডি) সচিব মো. শাহরিয়ার কাদের ছিদ্দিকী, বিশ্বব্যাংকের দক্ষিণ এশিয়া অঞ্চলের বিশ্বব্যাংকের ভাইস প্রেসিডেন্ট মার্টিন রাইজারসহ সংস্থাটির ঢাকা অফিসের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

শনিবার সন্ধ্যায় ঢাকায় আসেন বিশ্বব্যাংকের এমডি। সফরে বিশ্বব্যাংক এমডি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, অর্থমন্ত্রী, ঊর্ধ্বতন সরকারি কর্মকর্তা, সুশীল সমাজ ও বেসরকারি খাতের নেতাদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন।

অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘মেগা প্রজেক্ট করবো কি করবো না। করলে কি হবে, শুধু ক্রিটিসিজম করলে তো কোনো লাভ হবে না। এগুলো শেখ হাসিনা বানিয়েছেন ঠিক কথা। কিন্তু বানিয়েছেন তো একটা দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে, একটা চিন্তা নিয়ে। বর্তমান ও উজ্জ্বল ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে এবং জনগণ এটা গ্রহণ করেছে। জনগণ অ্যাপ্রিসিয়েট করেছে এতো চমৎকার একটা প্রজেক্ট, বাংলাদেশে এটা করা সম্ভব! এয়ারপোর্ট থেকে যে এক্সপ্রেসওয়ে এটাও কিন্তু ওনারা অ্যাপ্রিসিয়েট করেছেন।’

ডলার সংকট এবং সেটার কারণে মূল্যস্ফীতি হচ্ছে। এতে প্রজেক্টের একটা দায় আছে বলে অনেকে বলেন। মূল্যস্ফীতি আপনাদের জন্য বড় চ্যালেঞ্জ। এটা কমার পরিবর্তে বাড়ছে। এটি কিভাবে এড্রেস করবেন? সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘এটা তো হচ্ছে, কাজ চলছে। ওয়েট (অপেক্ষা) তো করতে হবে, রাতারাতি তো হবে না। আল্টিমেটলি (সর্বোপরি) এই ক্রাইসিসটা (সংকট) ম্যানেজ করতে হবে।’

বিদ্যুৎ ও গ্যাসের দাম বাড়ানোর বিষয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘এটা ম্যানেজমেন্টের একটা কৌশল, ম্যানেজমেন্ট কীভাবে করছে, কতদূর ভিকটিম হবে সেটার মধ্যেও আবার এডজাস্টমেন্ট করতে হবে। সেগুলো তো ডে টু ডে প্রশ্ন আসবে।’

মন্ত্রী বলেন, ‘বাংলাদেশ যে সমস্যাগুলো ফেস করছে এগুলো নতুন কোনো সমস্যা নয়। বাংলাদেশ এই সমস্যাগুলো যেভাবে মোকাবিলা করছে, সেটার প্রশংসা করেছেন তারা।’

তিনি বলেন, ‘আওয়ামী লীগ সরকার যতগুলো মেগাপ্রজেক্ট করেছে সবই শেখ হাসিনার সরকারের। কিছুদিন আগে মেট্রোরেল উদ্বোধন করলেন। এতে ওই অঞ্চলে (উত্তরা, মিরপুর) যারা থাকেন, এসব এলাকার মানুষের যে কি উচ্ছ্বাস, আনন্দ-উল্লাস। বিশেষ করে নারীরা মেট্রোরেলে উঠে স্ট্যান্ডটা ধরে দাঁড়িয়ে যাচ্ছেন, কিন্তু তাদের চোখে মুখে প্রশান্তি এবং আনন্দ। কাজেই মেগাপ্রজেক্ট সম্পর্কে অনেক কথা বলেছে বিএনপি। কিন্তু মানুষ উপকৃত হয়েছে।

অপরদিকে বিশ্বব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (অপারেশনস) অ্যানা বেজার্ড জানিয়েছেন, মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণ বাংলাদেশের জন্য বড় চ্যালেঞ্জ। তিনি সরকারের উদ্যোগে সহায়তা অব্যাহত রাখার আশ্বাস দিয়েছেন।

রাতারাতি মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণ হবে না এটা নিয়ে কাজ চলছে-অর্থমন্ত্রী

প্রকাশের সময় : ০১:৩৫:০১ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

অর্থমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী বলেছেন, রাতারাতি মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণ হবে না। এটা নিয়ে কাজ চলছে, অপেক্ষা করতে হবে, আমাদের ম্যানেজ করতে হবে।

রোববার (২৫ ফেব্রুয়ারি) সকালে শেরেবাংলা নগরের পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ে অর্থমন্ত্রীর দপ্তরে বিশ্বব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (অপারেশনস) অ্যানা বেজার্ড আবুল হাসান মাহমুদ আলীর সঙ্গে বৈঠক করেন। বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এ কথা জানান মন্ত্রী।

বৈঠকে অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের (ইআরডি) সচিব মো. শাহরিয়ার কাদের ছিদ্দিকী, বিশ্বব্যাংকের দক্ষিণ এশিয়া অঞ্চলের বিশ্বব্যাংকের ভাইস প্রেসিডেন্ট মার্টিন রাইজারসহ সংস্থাটির ঢাকা অফিসের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

শনিবার সন্ধ্যায় ঢাকায় আসেন বিশ্বব্যাংকের এমডি। সফরে বিশ্বব্যাংক এমডি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, অর্থমন্ত্রী, ঊর্ধ্বতন সরকারি কর্মকর্তা, সুশীল সমাজ ও বেসরকারি খাতের নেতাদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন।

অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘মেগা প্রজেক্ট করবো কি করবো না। করলে কি হবে, শুধু ক্রিটিসিজম করলে তো কোনো লাভ হবে না। এগুলো শেখ হাসিনা বানিয়েছেন ঠিক কথা। কিন্তু বানিয়েছেন তো একটা দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে, একটা চিন্তা নিয়ে। বর্তমান ও উজ্জ্বল ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে এবং জনগণ এটা গ্রহণ করেছে। জনগণ অ্যাপ্রিসিয়েট করেছে এতো চমৎকার একটা প্রজেক্ট, বাংলাদেশে এটা করা সম্ভব! এয়ারপোর্ট থেকে যে এক্সপ্রেসওয়ে এটাও কিন্তু ওনারা অ্যাপ্রিসিয়েট করেছেন।’

ডলার সংকট এবং সেটার কারণে মূল্যস্ফীতি হচ্ছে। এতে প্রজেক্টের একটা দায় আছে বলে অনেকে বলেন। মূল্যস্ফীতি আপনাদের জন্য বড় চ্যালেঞ্জ। এটা কমার পরিবর্তে বাড়ছে। এটি কিভাবে এড্রেস করবেন? সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘এটা তো হচ্ছে, কাজ চলছে। ওয়েট (অপেক্ষা) তো করতে হবে, রাতারাতি তো হবে না। আল্টিমেটলি (সর্বোপরি) এই ক্রাইসিসটা (সংকট) ম্যানেজ করতে হবে।’

বিদ্যুৎ ও গ্যাসের দাম বাড়ানোর বিষয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘এটা ম্যানেজমেন্টের একটা কৌশল, ম্যানেজমেন্ট কীভাবে করছে, কতদূর ভিকটিম হবে সেটার মধ্যেও আবার এডজাস্টমেন্ট করতে হবে। সেগুলো তো ডে টু ডে প্রশ্ন আসবে।’

মন্ত্রী বলেন, ‘বাংলাদেশ যে সমস্যাগুলো ফেস করছে এগুলো নতুন কোনো সমস্যা নয়। বাংলাদেশ এই সমস্যাগুলো যেভাবে মোকাবিলা করছে, সেটার প্রশংসা করেছেন তারা।’

তিনি বলেন, ‘আওয়ামী লীগ সরকার যতগুলো মেগাপ্রজেক্ট করেছে সবই শেখ হাসিনার সরকারের। কিছুদিন আগে মেট্রোরেল উদ্বোধন করলেন। এতে ওই অঞ্চলে (উত্তরা, মিরপুর) যারা থাকেন, এসব এলাকার মানুষের যে কি উচ্ছ্বাস, আনন্দ-উল্লাস। বিশেষ করে নারীরা মেট্রোরেলে উঠে স্ট্যান্ডটা ধরে দাঁড়িয়ে যাচ্ছেন, কিন্তু তাদের চোখে মুখে প্রশান্তি এবং আনন্দ। কাজেই মেগাপ্রজেক্ট সম্পর্কে অনেক কথা বলেছে বিএনপি। কিন্তু মানুষ উপকৃত হয়েছে।

অপরদিকে বিশ্বব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (অপারেশনস) অ্যানা বেজার্ড জানিয়েছেন, মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণ বাংলাদেশের জন্য বড় চ্যালেঞ্জ। তিনি সরকারের উদ্যোগে সহায়তা অব্যাহত রাখার আশ্বাস দিয়েছেন।