রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ১ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সাংবাদিক হামিদুল ইসলামের চিকিৎসায় আর্থিক সহায্য প্রয়োজন

দৈনিক বাংলার খবর  প্রতিদিন এর সিরাজগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি ও দৈনিক  বাংলার দূত এর উল্লাপাড়া প্রতিনিধি সলপ গ্রামের সাবেক ইউপি সদস্য সাংবাদিক হামিদুল ইসলাম গত এক মাস আগে স্টোক করে পঞ্চাশ হাজার টাকা কিস্তি তুলে চিকিৎসা করে কিছুটা সুস্থ্য হন। এরপর তিনি সংবাদ সংগ্রহের কাজ শেষে গত ১৯-2-24 তারিখ দুপুরে বেলকুচি থেকে বাড়ি ফেরার সময় মোটরসাইকেল চালানো অবস্থায় আবারও স্টোক করে মোটরসাইকেল দূর্ঘটনা ঘটে। এতে তিনি মাথায় আঘাত পান ও  তার ডান পা টা ভেংগে যায়। এ অবস্থায় তাকে নাটোর কবিরাজ বাড়ি নিয়ে গেলে কবিরাজ মাথায় আঘাতের চিকিৎসার জন্য পরামর্শ দেন। তারপর পা ভাঙ্গার চিকিৎসা করাতে বলেন। এদিকে টাকার অভাবে ৬ দিন বাড়িতে শয্যাশায়ী থাকার পর তার অবস্থার আরও অবনতি হলে ধারদেনা করে কিছু টাকা সংগ্রহ করে তাকে বগুড়া মেডিকেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তার চিকিৎসার জন্য অনেক টাকার প্রয়োজন। কিন্তু তার হতদরিদ্র পরিবারের পক্ষে এতো টাকা জগার করা সম্ভব না হওয়ায় তারা সহৃদয়বানদের কাছে আর্থিক সাহায্য কামনা করেছেন।’
এ বিষয়ে তার ছেলে ফয়সাল আহমেদ বলেন, দ্রুত টাকার জোগার না হলে তাকে বাচানো যাবেনা। একজন নির্ভীক কলম সৈনিক ও তার হতদরিদ্র পারিবারকে বাচাতে সবাইকে এগিয়ে আসার অনুরোধ করেন। তাকে আর্থিক সহায্য পাঠানোর ঠিকানা-
মো: হামিদুল ইসলাম বিকাশ নং (পারসোনাল) 01713727160
সলপ, উল্লাপাড়া,সিরাজগঞ্জ।

সাংবাদিক হামিদুল ইসলামের চিকিৎসায় আর্থিক সহায্য প্রয়োজন

প্রকাশের সময় : ০৬:১০:৩৯ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
দৈনিক বাংলার খবর  প্রতিদিন এর সিরাজগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি ও দৈনিক  বাংলার দূত এর উল্লাপাড়া প্রতিনিধি সলপ গ্রামের সাবেক ইউপি সদস্য সাংবাদিক হামিদুল ইসলাম গত এক মাস আগে স্টোক করে পঞ্চাশ হাজার টাকা কিস্তি তুলে চিকিৎসা করে কিছুটা সুস্থ্য হন। এরপর তিনি সংবাদ সংগ্রহের কাজ শেষে গত ১৯-2-24 তারিখ দুপুরে বেলকুচি থেকে বাড়ি ফেরার সময় মোটরসাইকেল চালানো অবস্থায় আবারও স্টোক করে মোটরসাইকেল দূর্ঘটনা ঘটে। এতে তিনি মাথায় আঘাত পান ও  তার ডান পা টা ভেংগে যায়। এ অবস্থায় তাকে নাটোর কবিরাজ বাড়ি নিয়ে গেলে কবিরাজ মাথায় আঘাতের চিকিৎসার জন্য পরামর্শ দেন। তারপর পা ভাঙ্গার চিকিৎসা করাতে বলেন। এদিকে টাকার অভাবে ৬ দিন বাড়িতে শয্যাশায়ী থাকার পর তার অবস্থার আরও অবনতি হলে ধারদেনা করে কিছু টাকা সংগ্রহ করে তাকে বগুড়া মেডিকেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তার চিকিৎসার জন্য অনেক টাকার প্রয়োজন। কিন্তু তার হতদরিদ্র পরিবারের পক্ষে এতো টাকা জগার করা সম্ভব না হওয়ায় তারা সহৃদয়বানদের কাছে আর্থিক সাহায্য কামনা করেছেন।’
এ বিষয়ে তার ছেলে ফয়সাল আহমেদ বলেন, দ্রুত টাকার জোগার না হলে তাকে বাচানো যাবেনা। একজন নির্ভীক কলম সৈনিক ও তার হতদরিদ্র পারিবারকে বাচাতে সবাইকে এগিয়ে আসার অনুরোধ করেন। তাকে আর্থিক সহায্য পাঠানোর ঠিকানা-
মো: হামিদুল ইসলাম বিকাশ নং (পারসোনাল) 01713727160
সলপ, উল্লাপাড়া,সিরাজগঞ্জ।