বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪, ৫ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সিরাজগঞ্জ কাজিপুরে সাংবাদিক আব্দুল জলিল সড়ক দূর্ঘটনায় আহত

সিরাজগঞ্জের কাজিপুর উপজেলার চালিতাডাঙ্গা ইউনিয়নের হাটশিরা বাজার সড়কে মঙ্গলবার দুপুরে অটোভ্যান ও মোটরসাইকেল সংঘর্ষে দৈনিক কালেরকন্ঠের কাজিপুর উপজেলা প্রতিনিধি ও সোনামুখির আমিনা মনসুন ডিগ্রি কলেজের সহকারী অধ্যাপক আব্দুল জলিল গুরুতর আহত হয়েছেন। তার এক হাত ও এক পা ভেঙ্গে গেছে। তাকে দ্রুত উদ্ধার করে বগুড়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বর্তমানে তিনি সেখানে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তার অবস্থা গুরুতর বলে জানা গেছে।
এ বিষয়ে তার সহকর্মী সাংবাদিক শাহজাহান আলী ও এনামুল হক মনি জানান, এদিন দুপুরে সাংবাদিক আব্দুল জলিল মোটরসাইকেল যোগে কাজিপুর উপজেলা পরিষদ থেকে নিজ বাড়িতে যাওয়ার সময় তিনি হাটশিরা বাজার এলাকায় পৌছালে বিপরিদ দিক থেকে দ্রুত গতিতে ছুটে আসা একটি অটোভ্যানের সাথে সংঘর্ষ হয়। এতে তিনি মোটরসাইকেল নিয়ে পাকা সড়কে পড়ে যান। ফলে তার একটি হাত ও একটি পায়ের হাড় ভেঙ্গে যায়। তাকে দ্রুত উদ্ধার করে বগুড়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সেখানে তার চিকিৎসা চলছে।’
এ বিষয়ে কাজিপুর থানার ওসি শহিদুল ইসলাম বলেন, এ বিষয়ে এখনও কোনো অভিযোগ পাইনি। পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

সিরাজগঞ্জ কাজিপুরে সাংবাদিক আব্দুল জলিল সড়ক দূর্ঘটনায় আহত

প্রকাশের সময় : ০৭:১৭:২৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
সিরাজগঞ্জের কাজিপুর উপজেলার চালিতাডাঙ্গা ইউনিয়নের হাটশিরা বাজার সড়কে মঙ্গলবার দুপুরে অটোভ্যান ও মোটরসাইকেল সংঘর্ষে দৈনিক কালেরকন্ঠের কাজিপুর উপজেলা প্রতিনিধি ও সোনামুখির আমিনা মনসুন ডিগ্রি কলেজের সহকারী অধ্যাপক আব্দুল জলিল গুরুতর আহত হয়েছেন। তার এক হাত ও এক পা ভেঙ্গে গেছে। তাকে দ্রুত উদ্ধার করে বগুড়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বর্তমানে তিনি সেখানে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তার অবস্থা গুরুতর বলে জানা গেছে।
এ বিষয়ে তার সহকর্মী সাংবাদিক শাহজাহান আলী ও এনামুল হক মনি জানান, এদিন দুপুরে সাংবাদিক আব্দুল জলিল মোটরসাইকেল যোগে কাজিপুর উপজেলা পরিষদ থেকে নিজ বাড়িতে যাওয়ার সময় তিনি হাটশিরা বাজার এলাকায় পৌছালে বিপরিদ দিক থেকে দ্রুত গতিতে ছুটে আসা একটি অটোভ্যানের সাথে সংঘর্ষ হয়। এতে তিনি মোটরসাইকেল নিয়ে পাকা সড়কে পড়ে যান। ফলে তার একটি হাত ও একটি পায়ের হাড় ভেঙ্গে যায়। তাকে দ্রুত উদ্ধার করে বগুড়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সেখানে তার চিকিৎসা চলছে।’
এ বিষয়ে কাজিপুর থানার ওসি শহিদুল ইসলাম বলেন, এ বিষয়ে এখনও কোনো অভিযোগ পাইনি। পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’