বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪, ৫ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সিরাজগঞ্জে খাজা এনায়েতপুরী (রহ.) এর ১০৯ তম ওরস শরীফ 

সিরাজগঞ্জ জেলার চৌহালী উপজেলার এনায়েতপুরে ১৮৮৬ সালের জন্মগ্রহণ করেন উপমহাদেশের প্রখ্যাত ধর্মীয় নেতা, ওলিয়ে- কামেল ও শাহ সুফি সাধক হযরত খাজা মোহাম্মদ ইউনুস আলী। হযরত খাজা শাহ ইউনুস আলী বেশি পরিচিত খাজা এনায়েতপুরী (রহঃ) নামে। তিনি ছিলেন একজন বিখ্যাত সুফি সাধক। তার পিতার নাম শাহ সূফী মাওলানা আব্দুল করিম। তিনি এলাকায় খাজা পীর বলে বেশি পরিচিত ছিলেন। নিজ যোগ্যতায় তিনি পীর সাহেবের ২৪ লাখ মুরিদানের মধ্যে শীর্ষস্থান অধিকার করে প্রাপ্তহন তরিকতের সর্বোচ্চ খিলাফত। এই তরিকা নকশেবন্দী মোজাদ্দেদী তরিকা নামে পরিচিত। খাজা এনায়েতপুরী (রহঃ) ভোগবিলাসী জীবন যাপনের চরম বিরোধী ছিলেন। খাজা এনায়েতপুরী ইসলাম প্রচারে এক অবিসংবাদিত নেতা ছিলেন।’
অবিভক্তি ভারত-বাংলার অন্যতম ধর্মপ্রচারক তৎকালীন কলকাতার মেহেদী বাগ দরবার শরীফের পীর আওলাদে রাসুল খাজা সৈয়দ ওয়াজেদ আলীর সংস্পর্শে আছেন খাজা শাহ মোহাম্মদ ইউনুস আলী। তার কর্মকান্ড এবং মানুষের প্রতি অগাধ ভালোবাসা আর নির্লভ গুণের কারণে খুব অল্প সময়ে খাজা শাহ ইউনুস আলী এনায়েতপুরীর ওস্তাদ সৈয়দ  ওয়াজেদ আলীর তরিকা লাভ করেন।
এরপর নিজ গ্রাম সিরাজগঞ্জের এনায়েতপুরে খানকা স্থাপন করে, আমাদের প্রিয় নবী হযরত মুহাম্মদ(সঃ) সত্য তরিকা প্রচার শুরু করেন।
তারপর ১৯১৫ সাল থেকে  শুরু হয় মহাপবিত্র  ওরস শরীফ। এতে সারাদেশ থেকেই তার ভক্ত মুরিদান এখানে সমবেত হতে থাকেন। যা ধীরে ধীরে অগণিত ভক্তদের আগমনে মহাসমাবেশে রূপ নেয়। এরই এক পর্যায়ে তার সংস্পর্শে এসে আদর্শিক আলোর পথ প্রচারে ১২শ অধিক বর্তমানে খানকা রয়েছে ।
মহান এই মুর্শিদ খাজা বাবা শাহ্ এনায়েতপুরী (রহঃ) বাংলা ১৩৫৮ সনের ১৮ ফাল্গুন রোজঃ রোববার, ইংরেজি ১৯৫২ সালের ২ রা মার্চ ইন্তেকাল করলে তার প্রতিষ্ঠিত এনায়েতপুর পাক দরবার শরীফের গদ্দিনশীন পীর হিসেবে দায়িত্বপ্রাপ্ত হন বড় ছেলে মাদার জাত ওলি আলহাজ্ব হযরত খাজা হাশেম উদ্দিন (রহঃ) তার ইন্তেকালের পরে খাজা শাহ মোহাম্মদ  ইউনুছ আলী (রহঃ) এনায়েতপুরী এর আরেক ছেলে বর্তমান সাজ্জাদান্নিসিন গদ্দিনশীন হুজুর পাক হযরত খাজা শাহ কামাল উদ্দিন নুহু মিয়া দায়িত্ব গ্রহণ করে ইসলামের শান্তির মর্মবাণী প্রচারে বাবার মতই তরিকার প্রচার চালিয়ে যাচ্ছেন।
প্রতিবছরের ন্যয় এবারও খাজা এনায়েতপুরী (রহঃ) এর ১০৯তম বাৎসরিক ওরস শরীফ আগামী ২৯শে ফেব্রুয়ারি ২০২৪ হতে ২ রা মার্চ বাংলা ১৮ই ফাল্গুন ১৪৩০ রোজ: শনিবার আখেরী মোনাজাতের মাধ্যমে সমাপ্তি ঘোষণা করবেন, বর্তমান সাজ্জাদান্নিসিন গদ্দিনশীন হুজুর পাক হযরত খাজা শাহ কামাল উদ্দিন নুহু মিয়া।’

সিরাজগঞ্জে খাজা এনায়েতপুরী (রহ.) এর ১০৯ তম ওরস শরীফ 

প্রকাশের সময় : ০৯:৫২:৪৯ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
সিরাজগঞ্জ জেলার চৌহালী উপজেলার এনায়েতপুরে ১৮৮৬ সালের জন্মগ্রহণ করেন উপমহাদেশের প্রখ্যাত ধর্মীয় নেতা, ওলিয়ে- কামেল ও শাহ সুফি সাধক হযরত খাজা মোহাম্মদ ইউনুস আলী। হযরত খাজা শাহ ইউনুস আলী বেশি পরিচিত খাজা এনায়েতপুরী (রহঃ) নামে। তিনি ছিলেন একজন বিখ্যাত সুফি সাধক। তার পিতার নাম শাহ সূফী মাওলানা আব্দুল করিম। তিনি এলাকায় খাজা পীর বলে বেশি পরিচিত ছিলেন। নিজ যোগ্যতায় তিনি পীর সাহেবের ২৪ লাখ মুরিদানের মধ্যে শীর্ষস্থান অধিকার করে প্রাপ্তহন তরিকতের সর্বোচ্চ খিলাফত। এই তরিকা নকশেবন্দী মোজাদ্দেদী তরিকা নামে পরিচিত। খাজা এনায়েতপুরী (রহঃ) ভোগবিলাসী জীবন যাপনের চরম বিরোধী ছিলেন। খাজা এনায়েতপুরী ইসলাম প্রচারে এক অবিসংবাদিত নেতা ছিলেন।’
অবিভক্তি ভারত-বাংলার অন্যতম ধর্মপ্রচারক তৎকালীন কলকাতার মেহেদী বাগ দরবার শরীফের পীর আওলাদে রাসুল খাজা সৈয়দ ওয়াজেদ আলীর সংস্পর্শে আছেন খাজা শাহ মোহাম্মদ ইউনুস আলী। তার কর্মকান্ড এবং মানুষের প্রতি অগাধ ভালোবাসা আর নির্লভ গুণের কারণে খুব অল্প সময়ে খাজা শাহ ইউনুস আলী এনায়েতপুরীর ওস্তাদ সৈয়দ  ওয়াজেদ আলীর তরিকা লাভ করেন।
এরপর নিজ গ্রাম সিরাজগঞ্জের এনায়েতপুরে খানকা স্থাপন করে, আমাদের প্রিয় নবী হযরত মুহাম্মদ(সঃ) সত্য তরিকা প্রচার শুরু করেন।
তারপর ১৯১৫ সাল থেকে  শুরু হয় মহাপবিত্র  ওরস শরীফ। এতে সারাদেশ থেকেই তার ভক্ত মুরিদান এখানে সমবেত হতে থাকেন। যা ধীরে ধীরে অগণিত ভক্তদের আগমনে মহাসমাবেশে রূপ নেয়। এরই এক পর্যায়ে তার সংস্পর্শে এসে আদর্শিক আলোর পথ প্রচারে ১২শ অধিক বর্তমানে খানকা রয়েছে ।
মহান এই মুর্শিদ খাজা বাবা শাহ্ এনায়েতপুরী (রহঃ) বাংলা ১৩৫৮ সনের ১৮ ফাল্গুন রোজঃ রোববার, ইংরেজি ১৯৫২ সালের ২ রা মার্চ ইন্তেকাল করলে তার প্রতিষ্ঠিত এনায়েতপুর পাক দরবার শরীফের গদ্দিনশীন পীর হিসেবে দায়িত্বপ্রাপ্ত হন বড় ছেলে মাদার জাত ওলি আলহাজ্ব হযরত খাজা হাশেম উদ্দিন (রহঃ) তার ইন্তেকালের পরে খাজা শাহ মোহাম্মদ  ইউনুছ আলী (রহঃ) এনায়েতপুরী এর আরেক ছেলে বর্তমান সাজ্জাদান্নিসিন গদ্দিনশীন হুজুর পাক হযরত খাজা শাহ কামাল উদ্দিন নুহু মিয়া দায়িত্ব গ্রহণ করে ইসলামের শান্তির মর্মবাণী প্রচারে বাবার মতই তরিকার প্রচার চালিয়ে যাচ্ছেন।
প্রতিবছরের ন্যয় এবারও খাজা এনায়েতপুরী (রহঃ) এর ১০৯তম বাৎসরিক ওরস শরীফ আগামী ২৯শে ফেব্রুয়ারি ২০২৪ হতে ২ রা মার্চ বাংলা ১৮ই ফাল্গুন ১৪৩০ রোজ: শনিবার আখেরী মোনাজাতের মাধ্যমে সমাপ্তি ঘোষণা করবেন, বর্তমান সাজ্জাদান্নিসিন গদ্দিনশীন হুজুর পাক হযরত খাজা শাহ কামাল উদ্দিন নুহু মিয়া।’