বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪, ৫ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

যশোরে মাত্র এক ঘণ্টার আন্দোলনে সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসল যশোর পৌরসভা কর্তৃপক্ষ

মাত্র এক ঘণ্টার অবস্থান কর্মসূচিতে পৌর নাগরিকদের আন্দোলনের মুখে অযৌক্তিক সাবমার্সিবল বিল আদায় থেকে সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করে নিলেন যশোর পৌরসভা কর্তৃপক্ষ। এক কর্মসূচিতেই নির্ধারিত ৩শ’ টাকার বিল নেয়া হবে না বলে জানিয়েছেন মেয়র। এছাড়া অন্যান্য দাবি নিয়ে আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে বলে আশ্বাস দিয়েছেন তিনি।

যশোর পৌরসভা কর্তৃপক্ষ সম্প্রতি পানি কর, পানির বিলের সাথে নতুন করে সাবমার্সিবলের জন্য প্রতি মাসে ৩শ’ টাকার অযৌক্তিক বিল ধার্য করে। এবং তা আদায়ে নাগরিকদের বাড়ি বাড়ি বিলের কপিও পৌঁছে দেয়। এ নিয়ে পৌরবাসীদের মধ্যে ক্ষোভ দেখা দেয়। সর্বশেষ গত ২৭ ফেব্রুয়ারি নাগরিকরা মতবিনিময় সভার মাধ্যমে সাবমার্সিবলের বিল বাতিলের পাশাপাশি অস্বাভাবিক হারে পৌর কর বৃদ্ধি বাতিলসহ চার দফা দাবিতে আন্দোলন কর্মসূচি ঘোষণা করে। কর্মসূচি অনুযায়ী আজ পৌরসভায় অবস্থানও স্মারকলিপি প্রদানের দিন ছিলো। সকাল ১১ টা থেকে পৌর নাগরিক কমিটির আহ্বায়ক শওকত আলী খান ও সদস্য সচিব জিল্লুর রহমান ভিটুর নেতৃত্বে কয়েক শ’ নাগরিক পৌরসভায় অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ শুরু করে। একপর্যায়ে সেখানে উপস্থিত হন পৌর মেয়র হায়দার গনি খান পলাশ। এসময় তিনি জনগণের দাবির কারণে সাবমার্সিবলের ৩শ’ টাকার বিল নেয়া হবে না বলে ঘোষণা দেন। এছাড়া অন্যান্য দাবি নিয়ে আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে বলে আশ্বাস দিয়েছেন তিনি।

পৌর নাগরিক কমিটির নেতা ইকবাল কবির জাহিদ বলেন, চারটি দাবির মধ্যে একটি দাবির সমাধান হয়েছে। অন্যান্য দাবি বাস্তবায়ন না হওয়া পর্যন্ত এ আন্দোলন কর্মসূচি অব্যাহত থাকবে।

যশোরে মাত্র এক ঘণ্টার আন্দোলনে সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসল যশোর পৌরসভা কর্তৃপক্ষ

প্রকাশের সময় : ০৩:২৬:০০ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

মাত্র এক ঘণ্টার অবস্থান কর্মসূচিতে পৌর নাগরিকদের আন্দোলনের মুখে অযৌক্তিক সাবমার্সিবল বিল আদায় থেকে সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করে নিলেন যশোর পৌরসভা কর্তৃপক্ষ। এক কর্মসূচিতেই নির্ধারিত ৩শ’ টাকার বিল নেয়া হবে না বলে জানিয়েছেন মেয়র। এছাড়া অন্যান্য দাবি নিয়ে আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে বলে আশ্বাস দিয়েছেন তিনি।

যশোর পৌরসভা কর্তৃপক্ষ সম্প্রতি পানি কর, পানির বিলের সাথে নতুন করে সাবমার্সিবলের জন্য প্রতি মাসে ৩শ’ টাকার অযৌক্তিক বিল ধার্য করে। এবং তা আদায়ে নাগরিকদের বাড়ি বাড়ি বিলের কপিও পৌঁছে দেয়। এ নিয়ে পৌরবাসীদের মধ্যে ক্ষোভ দেখা দেয়। সর্বশেষ গত ২৭ ফেব্রুয়ারি নাগরিকরা মতবিনিময় সভার মাধ্যমে সাবমার্সিবলের বিল বাতিলের পাশাপাশি অস্বাভাবিক হারে পৌর কর বৃদ্ধি বাতিলসহ চার দফা দাবিতে আন্দোলন কর্মসূচি ঘোষণা করে। কর্মসূচি অনুযায়ী আজ পৌরসভায় অবস্থানও স্মারকলিপি প্রদানের দিন ছিলো। সকাল ১১ টা থেকে পৌর নাগরিক কমিটির আহ্বায়ক শওকত আলী খান ও সদস্য সচিব জিল্লুর রহমান ভিটুর নেতৃত্বে কয়েক শ’ নাগরিক পৌরসভায় অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ শুরু করে। একপর্যায়ে সেখানে উপস্থিত হন পৌর মেয়র হায়দার গনি খান পলাশ। এসময় তিনি জনগণের দাবির কারণে সাবমার্সিবলের ৩শ’ টাকার বিল নেয়া হবে না বলে ঘোষণা দেন। এছাড়া অন্যান্য দাবি নিয়ে আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে বলে আশ্বাস দিয়েছেন তিনি।

পৌর নাগরিক কমিটির নেতা ইকবাল কবির জাহিদ বলেন, চারটি দাবির মধ্যে একটি দাবির সমাধান হয়েছে। অন্যান্য দাবি বাস্তবায়ন না হওয়া পর্যন্ত এ আন্দোলন কর্মসূচি অব্যাহত থাকবে।