মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ১০ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

দুই দেশে ফেসবুকে নিউজ ট্যাব বন্ধ করছে মেটা

জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের প্যারেন্ট প্রতিষ্ঠান মেটা জানিয়েছে, যুক্তরাষ্ট্র ও অস্ট্রেলিয়ার ব্যবহারকারীদের জন্য ফেসবুকে যে আলাদা ‘নিউজ ট্যাব’ আছে সেটি ভবিষ্যতে আর থাকবে না৷ সংবাদ পড়তে পাঠক ফেসবুকে যাচ্ছে না বলে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে তারা।

এতে বলা হয়, নিউজ ট্যাবে সংবাদ পরিবেশনের জন্য ওই দুই দেশের গণমাধ্যমের সঙ্গে যে চুক্তি আছে সেটি নবায়ন করা হবে না৷

অস্ট্রেলিয়া ও যুক্তরাষ্ট্রে ফেসবুকের নিউজ ট্যাবে গিয়ে খবর পড়ার হার ৮০ শতাংশের বেশি কমে গেছে বলে মেটা জানিয়েছে৷ ‘মানুষ ফেসবুকে সংবাদ ও রাজনৈতিক কনটেন্ট পেতে আসে না,’ ব্লগ পোস্টে লিখেছে মেটা৷

তবে দুই দেশেই ব্যবহারকারীরা ফেসবুক ফিডে খবর দেখতে পাবেন বলে জানানো হয়েছে৷

এর আগে মেটা গতবছর ফ্রান্স, জার্মানি ও যুক্তরাজ্যের গণমাধ্যমের সঙ্গে চুক্তি নবায়ন না করার ঘোষণা দিয়েছিল৷ মেটা বলছে, নিউজ ট্যাব বন্ধ করার কারণে যে অর্থ ও সম্পদ বেঁচে যাবে সেটা এমন কোনো কাজে ব্যবহার করা হবে যা মানুষ ফেসবুকে দেখতে চায়, যার মধ্যে ‘শর্ট ভিডিও রয়েছে’৷

এ বিষয়ে অস্ট্রেলিয়ার কমিউনিকেশন্স মন্ত্রী মিশেল রোল্যান্ড ও অ্যাসিস্টেন্ট ট্রেজারার স্টেফান জোন্স এক যৌথ বিবৃতিতে বলেন, মেটার সিদ্ধান্তের কারণে অস্ট্রেলিয়ার গণমাধ্যম উল্লেখযোগ্য আয় হারাবে৷ অস্ট্রেলিয়ার সংবাদ প্রকাশকেরা তাদের কনটেন্টের জন্য ন্যায্য ক্ষতিপূরণ পাওয়ার যোগ্য,’ বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়৷

সে কারণে সরকারের পরবর্তী করণীয় কী হবে, তা ঠিক করতে আলোচনা চলছে৷

দুই দেশে ফেসবুকে নিউজ ট্যাব বন্ধ করছে মেটা

প্রকাশের সময় : ০৩:৫২:১০ অপরাহ্ন, শনিবার, ২ মার্চ ২০২৪

জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের প্যারেন্ট প্রতিষ্ঠান মেটা জানিয়েছে, যুক্তরাষ্ট্র ও অস্ট্রেলিয়ার ব্যবহারকারীদের জন্য ফেসবুকে যে আলাদা ‘নিউজ ট্যাব’ আছে সেটি ভবিষ্যতে আর থাকবে না৷ সংবাদ পড়তে পাঠক ফেসবুকে যাচ্ছে না বলে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে তারা।

এতে বলা হয়, নিউজ ট্যাবে সংবাদ পরিবেশনের জন্য ওই দুই দেশের গণমাধ্যমের সঙ্গে যে চুক্তি আছে সেটি নবায়ন করা হবে না৷

অস্ট্রেলিয়া ও যুক্তরাষ্ট্রে ফেসবুকের নিউজ ট্যাবে গিয়ে খবর পড়ার হার ৮০ শতাংশের বেশি কমে গেছে বলে মেটা জানিয়েছে৷ ‘মানুষ ফেসবুকে সংবাদ ও রাজনৈতিক কনটেন্ট পেতে আসে না,’ ব্লগ পোস্টে লিখেছে মেটা৷

তবে দুই দেশেই ব্যবহারকারীরা ফেসবুক ফিডে খবর দেখতে পাবেন বলে জানানো হয়েছে৷

এর আগে মেটা গতবছর ফ্রান্স, জার্মানি ও যুক্তরাজ্যের গণমাধ্যমের সঙ্গে চুক্তি নবায়ন না করার ঘোষণা দিয়েছিল৷ মেটা বলছে, নিউজ ট্যাব বন্ধ করার কারণে যে অর্থ ও সম্পদ বেঁচে যাবে সেটা এমন কোনো কাজে ব্যবহার করা হবে যা মানুষ ফেসবুকে দেখতে চায়, যার মধ্যে ‘শর্ট ভিডিও রয়েছে’৷

এ বিষয়ে অস্ট্রেলিয়ার কমিউনিকেশন্স মন্ত্রী মিশেল রোল্যান্ড ও অ্যাসিস্টেন্ট ট্রেজারার স্টেফান জোন্স এক যৌথ বিবৃতিতে বলেন, মেটার সিদ্ধান্তের কারণে অস্ট্রেলিয়ার গণমাধ্যম উল্লেখযোগ্য আয় হারাবে৷ অস্ট্রেলিয়ার সংবাদ প্রকাশকেরা তাদের কনটেন্টের জন্য ন্যায্য ক্ষতিপূরণ পাওয়ার যোগ্য,’ বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়৷

সে কারণে সরকারের পরবর্তী করণীয় কী হবে, তা ঠিক করতে আলোচনা চলছে৷