মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ১০ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

রোজায় শরীরে পানিশূন্যতায় কি করবেন

সারাদিন রোজা রাখার পর শরীরে পানিশূন্যতা হওয়ার ঝুঁকি থাকে। যেহেতু গরম শুরু হয়েছে এ কারণে শরীরে পানির ঘাটতি পূরণে বিশেষভাবে নজর দিতে হবে। এজন্য ইফতারের পর থেকে সেহেরি পর্যন্ত পর্যাপ্ত পানি পান প্রয়োজন। শরীরে পানি অভাব হলে শরীর ক্রমশ খারাপ হতে থাকে। পর্যাপ্ত পানি পানে পেট পরিষ্কার থাকবে এবং শরীর থেকে টক্সিন বের হয়ে যাবে।

রোজায় পানিশূন্যতা রোধে আরও যা করবেন-

চা ও কফি বেশি না খাওয়াই ভালো:  এই সময়ে সেহেরি বা ইফতারে বেশি পরিমাণে চা বা কফি না খাওয়াই ভালো। এতে শরীরের পানির ঘাটতি দেখা দেবে। সারাদিন গ্যাস, অ্যাসিডিটির সমস্যা হবে। তাই আগেই সাবধান হোন। এতে কিন্তু মাথাব্যথা থেকেও মুক্তি মিলবে।

ডাবের পানি পানি করুন: ইফতার বা সেহেরিতে ডাবের পানি খেতে পারেন। এতে শরীরে পানির ঘাটতি পূরণ হবে। সেই সঙ্গে রোগ প্রতিরোধের ক্ষমতা বাড়বে। সারাদিন নিজেকে ক্লান্ত লাগবে না। মাথাব্যথার সমস্যা থেকে মুক্তি পাবেন।

ফলের রস ও ফল খান :সেহরি ও ইফতারের সময় ফলের রস খাবেন। এতে আপনার শরীর হাইড্রেট থাকবে। চাইলে গোটা ফলও খেতে পারেন। এটি খাওয়া স্বাস্থ্যের জন্য খুব ভালো। শরীর সুস্থ রাখতে সাহায্য করে এগুলি।

পরপর ৮০ বার কাঁপল তাইওয়ান

রোজায় শরীরে পানিশূন্যতায় কি করবেন

প্রকাশের সময় : ০৯:৫১:৩৭ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৩ মার্চ ২০২৪

সারাদিন রোজা রাখার পর শরীরে পানিশূন্যতা হওয়ার ঝুঁকি থাকে। যেহেতু গরম শুরু হয়েছে এ কারণে শরীরে পানির ঘাটতি পূরণে বিশেষভাবে নজর দিতে হবে। এজন্য ইফতারের পর থেকে সেহেরি পর্যন্ত পর্যাপ্ত পানি পান প্রয়োজন। শরীরে পানি অভাব হলে শরীর ক্রমশ খারাপ হতে থাকে। পর্যাপ্ত পানি পানে পেট পরিষ্কার থাকবে এবং শরীর থেকে টক্সিন বের হয়ে যাবে।

রোজায় পানিশূন্যতা রোধে আরও যা করবেন-

চা ও কফি বেশি না খাওয়াই ভালো:  এই সময়ে সেহেরি বা ইফতারে বেশি পরিমাণে চা বা কফি না খাওয়াই ভালো। এতে শরীরের পানির ঘাটতি দেখা দেবে। সারাদিন গ্যাস, অ্যাসিডিটির সমস্যা হবে। তাই আগেই সাবধান হোন। এতে কিন্তু মাথাব্যথা থেকেও মুক্তি মিলবে।

ডাবের পানি পানি করুন: ইফতার বা সেহেরিতে ডাবের পানি খেতে পারেন। এতে শরীরে পানির ঘাটতি পূরণ হবে। সেই সঙ্গে রোগ প্রতিরোধের ক্ষমতা বাড়বে। সারাদিন নিজেকে ক্লান্ত লাগবে না। মাথাব্যথার সমস্যা থেকে মুক্তি পাবেন।

ফলের রস ও ফল খান :সেহরি ও ইফতারের সময় ফলের রস খাবেন। এতে আপনার শরীর হাইড্রেট থাকবে। চাইলে গোটা ফলও খেতে পারেন। এটি খাওয়া স্বাস্থ্যের জন্য খুব ভালো। শরীর সুস্থ রাখতে সাহায্য করে এগুলি।