মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ১০ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

যশোরে আন্তঃজেলা চোরচক্রের ৩ সদস্য গ্রেপ্তার, ৭ ইজিবাইক উদ্ধার

চোরচক্রের ৩ সদস্য গ্রেপ্তার, ৭ ইজিবাইক উদ্ধার

যশোর প্রতিনিধি

যশোর শহর ও শহরতলীর বিভিন্ন এলাকা থেকে চুরি হয়ে যাওয়া ৭টি  ইজিবাইক ও একটি প্রাইভেটকার উদ্ধারসহ আন্তঃজেলা চোরচক্রের ৩ সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে যশোর ডিবি পুলিশের একটি চৌকস টিম।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন, নড়াইল জেলার নড়াগাতি থানার কলাবাড়িয়া গ্রামের বুলু মিয়ার পুত্র সেলিম শেখ ওরফে হৃদয় (৩৮).গোপালগঞ্জ জেলা সদরের ঘোষেরচর উত্তর পাড়া গ্রামের হিরু মিয়ার ছেলে খোকন ঠাকুর (৪৫) ও আরুয়া কংসুক গ্রামের মৃত আব্দুর রহমান সরদারের ছেলে মেজবাহ উদ্দিন (৩৭)।

যশোর ডিবি পুলিশের অফিসার ইনচার্জ রুপম কুমার সরকার আজ শনিবার (২৩ মার্চ) দুপুরে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে সাংবাদিকদের জানান, চলতি বছরের গত ১৫ মার্চ দুপুরে শহরের হালদার রোড এলাকা থেকে ইজিবাইক চালক কামাল হোসেনের ইজিবাইক ভাড়া করে দুই জন অজ্ঞাত ব্যক্তি। ইজিবাইক ভাড়া নিয়ে পরে তারা চালকের কাছ থেকে কৌশলে ইজিবাইক নিয়ে পালিয়ে যায়।

এঘটনায় চালক কামাল হোসেন যশোর কোতোয়ালি থানায় একটি অভিযোগ দেন। পরে অভিযোগটি  যশোর ডিবি পুলিশের কাছে তদন্তের জন্য পাঠান  ঊর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তা। ডিবি পুলিশ চুরির ঘটনাটি তদন্ত করতে যেয়ে যশোর শহরের উপ-শহর এ ব্লক এলাকা থেকে প্রাইভেটকারসহ চোর চক্রের ২ সদস্যকে গ্রেপ্তার করেন এবং তাদের স্বীকারোক্তিতে গোপালগঞ্জ সদরের আড়ুয়া কংশুক এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে একটি গ্যারেজ থেকে বিভিন্ন সময় চুরি যাওয়া ৭টি ইজিবাইক উদ্ধার ও গ্যারেজ মালিককে গ্রেপ্তার করেন।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ ও আসামীদের বিরুদ্ধে তদন্ত করতে যেয়ে দেখা যায় আসামীরা তাদের পলাতক সহযোগীদের নিয়ে দেশের বিভিন্ন জেলায় ইজিবাইক চুরি ছিনতাই করে থাকে। গ্রেপ্তার আসামী সেলিমের বিরুদ্ধে দেশের বিভিন্ন থানায় ৮টি চুরি মামলা, খোকনের বিরুদ্ধে ১টি মাদক মামলা এছাড়াও পলাতক সানু মেম্বারের  বিরুদ্ধে দেশের বিভিন্ন থানায় ৬টি চুরি ছিনতাই মামলা রয়েছে।

যশোরে আন্তঃজেলা চোরচক্রের ৩ সদস্য গ্রেপ্তার, ৭ ইজিবাইক উদ্ধার

প্রকাশের সময় : ০৪:১০:৩৭ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৩ মার্চ ২০২৪

যশোর প্রতিনিধি

যশোর শহর ও শহরতলীর বিভিন্ন এলাকা থেকে চুরি হয়ে যাওয়া ৭টি  ইজিবাইক ও একটি প্রাইভেটকার উদ্ধারসহ আন্তঃজেলা চোরচক্রের ৩ সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে যশোর ডিবি পুলিশের একটি চৌকস টিম।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন, নড়াইল জেলার নড়াগাতি থানার কলাবাড়িয়া গ্রামের বুলু মিয়ার পুত্র সেলিম শেখ ওরফে হৃদয় (৩৮).গোপালগঞ্জ জেলা সদরের ঘোষেরচর উত্তর পাড়া গ্রামের হিরু মিয়ার ছেলে খোকন ঠাকুর (৪৫) ও আরুয়া কংসুক গ্রামের মৃত আব্দুর রহমান সরদারের ছেলে মেজবাহ উদ্দিন (৩৭)।

যশোর ডিবি পুলিশের অফিসার ইনচার্জ রুপম কুমার সরকার আজ শনিবার (২৩ মার্চ) দুপুরে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে সাংবাদিকদের জানান, চলতি বছরের গত ১৫ মার্চ দুপুরে শহরের হালদার রোড এলাকা থেকে ইজিবাইক চালক কামাল হোসেনের ইজিবাইক ভাড়া করে দুই জন অজ্ঞাত ব্যক্তি। ইজিবাইক ভাড়া নিয়ে পরে তারা চালকের কাছ থেকে কৌশলে ইজিবাইক নিয়ে পালিয়ে যায়।

এঘটনায় চালক কামাল হোসেন যশোর কোতোয়ালি থানায় একটি অভিযোগ দেন। পরে অভিযোগটি  যশোর ডিবি পুলিশের কাছে তদন্তের জন্য পাঠান  ঊর্ধ্বতন পুলিশ কর্মকর্তা। ডিবি পুলিশ চুরির ঘটনাটি তদন্ত করতে যেয়ে যশোর শহরের উপ-শহর এ ব্লক এলাকা থেকে প্রাইভেটকারসহ চোর চক্রের ২ সদস্যকে গ্রেপ্তার করেন এবং তাদের স্বীকারোক্তিতে গোপালগঞ্জ সদরের আড়ুয়া কংশুক এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে একটি গ্যারেজ থেকে বিভিন্ন সময় চুরি যাওয়া ৭টি ইজিবাইক উদ্ধার ও গ্যারেজ মালিককে গ্রেপ্তার করেন।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদ ও আসামীদের বিরুদ্ধে তদন্ত করতে যেয়ে দেখা যায় আসামীরা তাদের পলাতক সহযোগীদের নিয়ে দেশের বিভিন্ন জেলায় ইজিবাইক চুরি ছিনতাই করে থাকে। গ্রেপ্তার আসামী সেলিমের বিরুদ্ধে দেশের বিভিন্ন থানায় ৮টি চুরি মামলা, খোকনের বিরুদ্ধে ১টি মাদক মামলা এছাড়াও পলাতক সানু মেম্বারের  বিরুদ্ধে দেশের বিভিন্ন থানায় ৬টি চুরি ছিনতাই মামলা রয়েছে।