মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ১০ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

আল জাজিরা বন্ধ করতে নেতানিয়াহুর চাপ

বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু। ছবি: সংগৃহীত

ইসরায়ালে আল জাজিরা বন্ধ করতে চাপ দিচ্ছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু। তিনি সোমবার (১ এপ্রিল) বলেছেন, তার জোট সরকার ইসরায়েলের পার্লামেন্ট নেসেটে নিরাপত্তা ঝুঁকি হিসেবে বিবেচিত বিদেশি সংবাদ মাধ্যমগুলো বন্ধ করার আইন পাস করবে।

ইসরায়েলের ক্ষমতাসীন লিকুদ পার্টি এক বিবৃতিতে জানায়, আইন কার্যকর হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই দেশটিতে আলজাজিরার কার্যক্রম ও সম্প্রচার বন্ধ করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন নেতানিয়াহু।

এর আগে ফেব্রুয়ারিতেও আলজাজিরা বন্ধ করতে চাপ দিয়েছিলেন নেতানিয়াহু। বিলটি পাস হলে ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী ও যোগাযোগ মন্ত্রী যেকোনো বিদেশি সংবাদমাধ্যম সম্প্রচার ও বাজেয়াপ্ত করার ক্ষমতা রাখবে। রাষ্ট্রের নিরাপত্তা ও ঝুঁকি বিবেচনায় তারা এই ক্ষমতা প্রয়োগ করতে পারবে বলে জানায় দলীয় প্রতিনিধি।

নেসেটে নেতানিয়াহুর এই প্রস্তাব চূড়ান্তভাবে পাস করতে সরকারি দলকে কঠোর নির্দেশনা দিয়েছেন নেতানিয়াহু।

শুরু থেকেই গাজার বিরুদ্ধে ইসরায়েলি হামলার খবর ব্যাপকভাবে প্রচার করে আসছে আলজাজিরা। এই পরিস্থিতিতে নেতানিয়াহুর বিদেশি সংবাদ মাধ্যম নিয়ন্ত্রণ করতে আইন প্রয়োগের সিদ্ধান্ত নিয়ে শুরু হয়েছে প্রতিবাদ ও সমালোচোনা।

এর আগে হামাসের সঙ্গে যুদ্ধ শুরুর পরপরই বিদেশি সংবাদ মাধ্যম বন্ধে নীতিমালা গ্রহণ করেছিল নেতানিয়াহু সরকার। এবার আলজাজিরা বন্ধে একই নীতিমালার পুনরাবৃত্তি করতে চলেছেন নেতানিয়াহু।

আজ প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠক করবেন কাতারের আমির

আল জাজিরা বন্ধ করতে নেতানিয়াহুর চাপ

প্রকাশের সময় : ১১:০০:১৮ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২ এপ্রিল ২০২৪

ইসরায়ালে আল জাজিরা বন্ধ করতে চাপ দিচ্ছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু। তিনি সোমবার (১ এপ্রিল) বলেছেন, তার জোট সরকার ইসরায়েলের পার্লামেন্ট নেসেটে নিরাপত্তা ঝুঁকি হিসেবে বিবেচিত বিদেশি সংবাদ মাধ্যমগুলো বন্ধ করার আইন পাস করবে।

ইসরায়েলের ক্ষমতাসীন লিকুদ পার্টি এক বিবৃতিতে জানায়, আইন কার্যকর হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই দেশটিতে আলজাজিরার কার্যক্রম ও সম্প্রচার বন্ধ করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন নেতানিয়াহু।

এর আগে ফেব্রুয়ারিতেও আলজাজিরা বন্ধ করতে চাপ দিয়েছিলেন নেতানিয়াহু। বিলটি পাস হলে ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী ও যোগাযোগ মন্ত্রী যেকোনো বিদেশি সংবাদমাধ্যম সম্প্রচার ও বাজেয়াপ্ত করার ক্ষমতা রাখবে। রাষ্ট্রের নিরাপত্তা ও ঝুঁকি বিবেচনায় তারা এই ক্ষমতা প্রয়োগ করতে পারবে বলে জানায় দলীয় প্রতিনিধি।

নেসেটে নেতানিয়াহুর এই প্রস্তাব চূড়ান্তভাবে পাস করতে সরকারি দলকে কঠোর নির্দেশনা দিয়েছেন নেতানিয়াহু।

শুরু থেকেই গাজার বিরুদ্ধে ইসরায়েলি হামলার খবর ব্যাপকভাবে প্রচার করে আসছে আলজাজিরা। এই পরিস্থিতিতে নেতানিয়াহুর বিদেশি সংবাদ মাধ্যম নিয়ন্ত্রণ করতে আইন প্রয়োগের সিদ্ধান্ত নিয়ে শুরু হয়েছে প্রতিবাদ ও সমালোচোনা।

এর আগে হামাসের সঙ্গে যুদ্ধ শুরুর পরপরই বিদেশি সংবাদ মাধ্যম বন্ধে নীতিমালা গ্রহণ করেছিল নেতানিয়াহু সরকার। এবার আলজাজিরা বন্ধে একই নীতিমালার পুনরাবৃত্তি করতে চলেছেন নেতানিয়াহু।