মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ১০ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ছোটদের নিয়ে বেড়াতে যাওয়ার আগে এই ৫ বিষয় ভুলবেন না

ছবি: সংগৃহীত

আর মাত্র কয়েক দিন পরই ঈদের ছুটি। এই ছুটিতে কচিকাঁচাদের নিয়ে বেড়ানোর পরিকল্পনা হয়তো অনেকে করেছেন। তবে ছোটদের বেড়াতে নিয়ে যাওয়া আবার বড় চ্যালেঞ্জ। এক নয়, একাধিক বিষয় মাথায় রাখতে হয়। কিছু এদিক-ওদিক হয়ে গেলেই মুশকিল।

এক্ষেত্রে প্রথমেই যেটা করতে হবে তা হলো ঠিকঠাক একটা লোকেশন পছন্দ করতে হবে। যেখানেই যাবেন আগে তার রুট ম্যাপ করে নিতে হবে ভালো করে। আপনার বাড়ির খুদে সদস্যদের সঙ্গে এ বিষয়ে আলোচনা করবেন। এতে দুটো কাজ হবে। এক, তারা খুবই উৎসাহিত হয়ে নিজেদের মতামত দেবে। দুই, তারাও প্ল্যানিং করতে শিখবে।

বেড়ানোর জায়গা কতটা নিরাপদ সেটাও জেনে রাখা প্রয়োজন। যে জায়গায় যাচ্ছেন, সেখানকার সামাজিক পরিবেশ সম্পর্কে জেনে রাখবেন। আবার স্থানীয় পুলিশ ও ডাক্তারের খোঁজ রেখে দেবেন। প্রয়োজনে যে হোটেল, রিসোর্ট বা হোম স্টেতে থাকবেন সেখানকার সঙ্গে এ বিষয়ে কথা বলে রাখবেন। প্রয়োজনীয় ওষুধ, ফার্স্ট এইড কিটও নিয়ে নেবেন সঙ্গে।

গন্তব্যে পৌঁছানোর জন্য এমন রুট পছন্দ করবেন যাতে আপনার ও বাচ্চাদের জার্নি কমফোর্টেবল হয়। একটু পড়াশোনা করে নেবেন, আশেপাশে কী কী আকর্ষণীয় জায়গা রয়েছে, যা আপনার শিশুর ভালো লাগতে পারে। থাকার জন্য এমন জায়গা বাছবেন যেখানে তারা একটু খেলাধুলো করতে পারে।

শিশুদের সঙ্গে নিয়ে যাওয়ার ক্ষেত্রে খাবার খুব গুরুত্বপূর্ণ। যে কয়েকটা দিন বাইরে থাকবেন সেকটা দিনের জন্য পর্যাপ্ত খাবার নিয়ে নেবেন। কোথায় কী পাওয়া যায় তা তো আগে থেকে বলা যায় না! আর হ্যাঁ, সবসময় বোতলের পানিই বাচ্চাকে দেবেন ও আপনি খাবেন। খাবারের পাশাপাশি কিছু খেলনাও রেখে দেবেন সঙ্গে।

বেশি হাঁটলে বা দৌড়ালে বাচ্চারা ক্লান্ত হয়ে পড়ে। সেদিকেও খেয়াল রাখতে হবে। হাতের কাছে পানি সবসময় রাখবেন। আর ওয়েট টিস্যু সঙ্গে রেখে দেবেন। চোখ-মুখ মুছিয়ে দিতে বা খাবার খাওয়ার আগে হাত পরিষ্কার করে নিতে খুব কাজে দেবে। প্রচুর ছবি তুলবেন। হাসবেন, খেলবেন আর ছোটদের সঙ্গে ছোটবেলাকে আবার উদযাপন করবেন। -ঢাকা পোস্ট

ছোটদের নিয়ে বেড়াতে যাওয়ার আগে এই ৫ বিষয় ভুলবেন না

প্রকাশের সময় : ০৩:১৫:০২ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২ এপ্রিল ২০২৪

আর মাত্র কয়েক দিন পরই ঈদের ছুটি। এই ছুটিতে কচিকাঁচাদের নিয়ে বেড়ানোর পরিকল্পনা হয়তো অনেকে করেছেন। তবে ছোটদের বেড়াতে নিয়ে যাওয়া আবার বড় চ্যালেঞ্জ। এক নয়, একাধিক বিষয় মাথায় রাখতে হয়। কিছু এদিক-ওদিক হয়ে গেলেই মুশকিল।

এক্ষেত্রে প্রথমেই যেটা করতে হবে তা হলো ঠিকঠাক একটা লোকেশন পছন্দ করতে হবে। যেখানেই যাবেন আগে তার রুট ম্যাপ করে নিতে হবে ভালো করে। আপনার বাড়ির খুদে সদস্যদের সঙ্গে এ বিষয়ে আলোচনা করবেন। এতে দুটো কাজ হবে। এক, তারা খুবই উৎসাহিত হয়ে নিজেদের মতামত দেবে। দুই, তারাও প্ল্যানিং করতে শিখবে।

বেড়ানোর জায়গা কতটা নিরাপদ সেটাও জেনে রাখা প্রয়োজন। যে জায়গায় যাচ্ছেন, সেখানকার সামাজিক পরিবেশ সম্পর্কে জেনে রাখবেন। আবার স্থানীয় পুলিশ ও ডাক্তারের খোঁজ রেখে দেবেন। প্রয়োজনে যে হোটেল, রিসোর্ট বা হোম স্টেতে থাকবেন সেখানকার সঙ্গে এ বিষয়ে কথা বলে রাখবেন। প্রয়োজনীয় ওষুধ, ফার্স্ট এইড কিটও নিয়ে নেবেন সঙ্গে।

গন্তব্যে পৌঁছানোর জন্য এমন রুট পছন্দ করবেন যাতে আপনার ও বাচ্চাদের জার্নি কমফোর্টেবল হয়। একটু পড়াশোনা করে নেবেন, আশেপাশে কী কী আকর্ষণীয় জায়গা রয়েছে, যা আপনার শিশুর ভালো লাগতে পারে। থাকার জন্য এমন জায়গা বাছবেন যেখানে তারা একটু খেলাধুলো করতে পারে।

শিশুদের সঙ্গে নিয়ে যাওয়ার ক্ষেত্রে খাবার খুব গুরুত্বপূর্ণ। যে কয়েকটা দিন বাইরে থাকবেন সেকটা দিনের জন্য পর্যাপ্ত খাবার নিয়ে নেবেন। কোথায় কী পাওয়া যায় তা তো আগে থেকে বলা যায় না! আর হ্যাঁ, সবসময় বোতলের পানিই বাচ্চাকে দেবেন ও আপনি খাবেন। খাবারের পাশাপাশি কিছু খেলনাও রেখে দেবেন সঙ্গে।

বেশি হাঁটলে বা দৌড়ালে বাচ্চারা ক্লান্ত হয়ে পড়ে। সেদিকেও খেয়াল রাখতে হবে। হাতের কাছে পানি সবসময় রাখবেন। আর ওয়েট টিস্যু সঙ্গে রেখে দেবেন। চোখ-মুখ মুছিয়ে দিতে বা খাবার খাওয়ার আগে হাত পরিষ্কার করে নিতে খুব কাজে দেবে। প্রচুর ছবি তুলবেন। হাসবেন, খেলবেন আর ছোটদের সঙ্গে ছোটবেলাকে আবার উদযাপন করবেন। -ঢাকা পোস্ট