মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ঢাকায় আজ আসছেন ব্রাজিলের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাউরো ভিয়েরা

বাণিজ্য, বিনিয়োগ সম্পর্ক জোরদার এবং দুই দেশের মধ্যে বিদ্যমান সম্পর্ক আরও দৃঢ় করার বার্তা নিয়ে ঢাকায় আসছেন ব্রাজিলের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাউরো ভিয়েরা। দুই দিনের সফরে তিনি আজ ঢাকা পৌঁছাবেন। এই সফরে কারিগরি সহায়তা, ক্রীড়া, কৃষি ও প্রতিরক্ষা বিষয়ে তিনটি সমঝোতা স্মারক সইয়ের সম্ভাবনা রয়েছে। সফরকালে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বৈঠক ছাড়াও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাতের কথা রয়েছে ব্রাজিলের মন্ত্রীর।

সূত্র জানায়, ব্রাজিলে তৈরি পোশাক, ওষুধ, পাট, সিরামিক পণ্য রপ্তানি করে বাংলাদেশ। ব্রাজিল থেকে আমদানি হয় তুলা, চিনি, সয়া, সয়াবিন তেল। দুই দেশের মধ্যে বার্ষিক বাণিজ্যের পরিমাণ এখন ২ দশমিক ৩ বিলিয়ন ডলার। তবে ব্রাজিলে পণ্য রপ্তানির তুলনায় ৭ গুণ বেশি আমদানি করে বাংলাদেশ। সে কারণে বাণিজ্যে ভারসাম্য আনতে চায় ঢাকা। এ ছাড়া প্রধান রপ্তানিপণ্য পোশাক ব্রাজিলে রপ্তানি করতে শিল্পপণ্যের জন্য ৩৫ শতাংশ শুল্ক দিতে হয়। দীর্ঘদিন ধরে এই শুল্ক প্রত্যাহারের অনুরোধ জানিয়ে আসছে ঢাকা। প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে দুই দেশের সঙ্গে মুক্তবাণিজ্য চুক্তিরও। তবে সে আলোচনায় কোনো গতি পায়নি।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, ব্রাজিলের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সফরের সময়ে শুল্ক প্রত্যাহার ও মুক্তবাণিজ্য চুক্তি নিয়ে বড় আকারে আলোচনা হবে। বাংলাদেশের তরফে দুটি সম্ভাব্য প্রস্তাব দেওয়া হতে পারে। যে পরিমাণ তুলা আমদানি করা হয় তা দিয়ে তৈরি কাপড় শুল্কমুক্ত সুবিধা পাবে, অথবা তুলা আমদানির সমপরিমাণ পণ্যের ওপর শুল্কমুক্ত সুবিধা।

উল্লেখ্য, দক্ষিণ আমেরিকার বড় অর্থনীতি চিলিতে ২০১৪ থেকে বাংলাদেশ শুল্কমুক্ত সুবিধা পায় এবং গত কয়েক বছরে ওই দেশে রপ্তানির পরিমাণ প্রায় ২০ কোটি ডলার। ব্রাজিলের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে ২৪ সদস্যের বাণিজ্য প্রতিনিধি দল আসছে। ব্যবসায়ী প্রতিনিধি দলের সঙ্গে বিনিয়োগ নিয়েও আলোচনা হবে।

বাংলাদেশে ক্রমবর্ধমান জ্বালানি চাহিদা এবং বৈশ্বিক বাজারে জ্বালানিপণ্যের মূল্য ওঠানামার কারণে সাশ্রয়ী বায়ো-ফুয়েলের প্রতি নজর দিচ্ছে বাংলাদেশ। ব্রাজিল অন্যতম বায়ো-ফুয়েল ইথানল উৎপাদক। ব্রাজিলের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সফরে বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে আলোচনা হবে বলে জানিয়েছে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্র।

এ ছাড়া বাংলাদেশে গরুর মাংসের দাম বেশি এবং সে কারণে এ দেশের একটি বড় জনগোষ্ঠী এই আমিষ গ্রহণ থেকে বঞ্চিত। ব্রাজিল এ বিষয়ে সহযোগিতা করতে চায় এবং ৪ থেকে ৫ ডলারের মধ্যে হালাল গরুর মাংস সরবরাহ করার প্রস্তাব করেছে। ব্রাজিলের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে থাকা প্রতিনিধি দলে কয়েকজন মাংস রপ্তানিকারকও রয়েছেন। সফরকালে বিষয়টি আলোচনায় গুরুত্ব পাবে। এ ছাড়া বিশ^ ফুটবলের পরাশক্তি ব্রাজিলের কাছ থেকে প্রশিক্ষণ ও সহায়তার প্রত্যাশা করছে ঢাকা। ব্রাজিলের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সফরে ফুটবলসংক্রান্ত একটি সমঝোতা সইয়ের প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে।

ব্রাজিলের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সফরকে অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ বলে বর্ণনা করেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। তিনি বলেন, ব্রাজিল বড় দেশ। তাদের ক্রয়ক্ষমতাও বেশি। তাদের সঙ্গে বাণিজ্যিক সম্পর্ক বাড়ানোর সুযোগ আছে।

এদিকে সফরসূচি অনুযায়ী আজ সকালে ঢাকা পৌঁছাবেন ব্রাজিলের পররাষ্ট্রমন্ত্রী। তাকে বিমানবন্দরে অভ্যর্থনা জানাবেন পররাষ্ট্র সচিব। এরপর ৩২ নম্বরে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা জানানোর কথা রয়েছে। বিকালে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বৈঠক করবেন তিনি। মঙ্গলবার সকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করার কথা মাউরো ভিয়েরার। এরপর গাজীপুরে বেক্সিমকো ও স্কয়ারের ফ্যাক্টরি পরিদর্শন শেষে ফরেন সার্ভিস একাডেমিতে স্মারক বক্তৃৃতা দেবেন তিনি। রাতে ব্রাজিলের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর ঢাকা ত্যাগ করার কথা রয়েছে।

ঢাকায় আজ আসছেন ব্রাজিলের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাউরো ভিয়েরা

প্রকাশের সময় : ০৫:২৪:১১ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ৭ এপ্রিল ২০২৪

বাণিজ্য, বিনিয়োগ সম্পর্ক জোরদার এবং দুই দেশের মধ্যে বিদ্যমান সম্পর্ক আরও দৃঢ় করার বার্তা নিয়ে ঢাকায় আসছেন ব্রাজিলের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাউরো ভিয়েরা। দুই দিনের সফরে তিনি আজ ঢাকা পৌঁছাবেন। এই সফরে কারিগরি সহায়তা, ক্রীড়া, কৃষি ও প্রতিরক্ষা বিষয়ে তিনটি সমঝোতা স্মারক সইয়ের সম্ভাবনা রয়েছে। সফরকালে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বৈঠক ছাড়াও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাতের কথা রয়েছে ব্রাজিলের মন্ত্রীর।

সূত্র জানায়, ব্রাজিলে তৈরি পোশাক, ওষুধ, পাট, সিরামিক পণ্য রপ্তানি করে বাংলাদেশ। ব্রাজিল থেকে আমদানি হয় তুলা, চিনি, সয়া, সয়াবিন তেল। দুই দেশের মধ্যে বার্ষিক বাণিজ্যের পরিমাণ এখন ২ দশমিক ৩ বিলিয়ন ডলার। তবে ব্রাজিলে পণ্য রপ্তানির তুলনায় ৭ গুণ বেশি আমদানি করে বাংলাদেশ। সে কারণে বাণিজ্যে ভারসাম্য আনতে চায় ঢাকা। এ ছাড়া প্রধান রপ্তানিপণ্য পোশাক ব্রাজিলে রপ্তানি করতে শিল্পপণ্যের জন্য ৩৫ শতাংশ শুল্ক দিতে হয়। দীর্ঘদিন ধরে এই শুল্ক প্রত্যাহারের অনুরোধ জানিয়ে আসছে ঢাকা। প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে দুই দেশের সঙ্গে মুক্তবাণিজ্য চুক্তিরও। তবে সে আলোচনায় কোনো গতি পায়নি।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, ব্রাজিলের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সফরের সময়ে শুল্ক প্রত্যাহার ও মুক্তবাণিজ্য চুক্তি নিয়ে বড় আকারে আলোচনা হবে। বাংলাদেশের তরফে দুটি সম্ভাব্য প্রস্তাব দেওয়া হতে পারে। যে পরিমাণ তুলা আমদানি করা হয় তা দিয়ে তৈরি কাপড় শুল্কমুক্ত সুবিধা পাবে, অথবা তুলা আমদানির সমপরিমাণ পণ্যের ওপর শুল্কমুক্ত সুবিধা।

উল্লেখ্য, দক্ষিণ আমেরিকার বড় অর্থনীতি চিলিতে ২০১৪ থেকে বাংলাদেশ শুল্কমুক্ত সুবিধা পায় এবং গত কয়েক বছরে ওই দেশে রপ্তানির পরিমাণ প্রায় ২০ কোটি ডলার। ব্রাজিলের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে ২৪ সদস্যের বাণিজ্য প্রতিনিধি দল আসছে। ব্যবসায়ী প্রতিনিধি দলের সঙ্গে বিনিয়োগ নিয়েও আলোচনা হবে।

বাংলাদেশে ক্রমবর্ধমান জ্বালানি চাহিদা এবং বৈশ্বিক বাজারে জ্বালানিপণ্যের মূল্য ওঠানামার কারণে সাশ্রয়ী বায়ো-ফুয়েলের প্রতি নজর দিচ্ছে বাংলাদেশ। ব্রাজিল অন্যতম বায়ো-ফুয়েল ইথানল উৎপাদক। ব্রাজিলের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সফরে বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে আলোচনা হবে বলে জানিয়েছে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্র।

এ ছাড়া বাংলাদেশে গরুর মাংসের দাম বেশি এবং সে কারণে এ দেশের একটি বড় জনগোষ্ঠী এই আমিষ গ্রহণ থেকে বঞ্চিত। ব্রাজিল এ বিষয়ে সহযোগিতা করতে চায় এবং ৪ থেকে ৫ ডলারের মধ্যে হালাল গরুর মাংস সরবরাহ করার প্রস্তাব করেছে। ব্রাজিলের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে থাকা প্রতিনিধি দলে কয়েকজন মাংস রপ্তানিকারকও রয়েছেন। সফরকালে বিষয়টি আলোচনায় গুরুত্ব পাবে। এ ছাড়া বিশ^ ফুটবলের পরাশক্তি ব্রাজিলের কাছ থেকে প্রশিক্ষণ ও সহায়তার প্রত্যাশা করছে ঢাকা। ব্রাজিলের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সফরে ফুটবলসংক্রান্ত একটি সমঝোতা সইয়ের প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে।

ব্রাজিলের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সফরকে অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ বলে বর্ণনা করেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। তিনি বলেন, ব্রাজিল বড় দেশ। তাদের ক্রয়ক্ষমতাও বেশি। তাদের সঙ্গে বাণিজ্যিক সম্পর্ক বাড়ানোর সুযোগ আছে।

এদিকে সফরসূচি অনুযায়ী আজ সকালে ঢাকা পৌঁছাবেন ব্রাজিলের পররাষ্ট্রমন্ত্রী। তাকে বিমানবন্দরে অভ্যর্থনা জানাবেন পররাষ্ট্র সচিব। এরপর ৩২ নম্বরে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা জানানোর কথা রয়েছে। বিকালে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বৈঠক করবেন তিনি। মঙ্গলবার সকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করার কথা মাউরো ভিয়েরার। এরপর গাজীপুরে বেক্সিমকো ও স্কয়ারের ফ্যাক্টরি পরিদর্শন শেষে ফরেন সার্ভিস একাডেমিতে স্মারক বক্তৃৃতা দেবেন তিনি। রাতে ব্রাজিলের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর ঢাকা ত্যাগ করার কথা রয়েছে।