মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ইসরায়েলি সামরিক স্থাপনায় রকেট হামলা চালিয়েছে হিজবুল্লাহ

ইসরায়েলি সামরিক স্থাপনায় রকেট হামলা চালিয়েছে লেবাননভিত্তিক সশস্ত্রগোষ্ঠী হিজবুল্লাহ। তাদের দাবি, গতকাল শুক্রবার ইসরায়েলি স্থাপনা লক্ষ্য করে অন্তত ১২টি রকেট নিক্ষেপ করেছে। কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরার এক প্রতিবেদন থেকে এই তথ্য জানা যায়।

গত বছরের ৭ অক্টোবর গাজায় ইসরায়েলি অভিযান শুরুর পর থেকে একাধিকবার লেবানন সীমান্তে সহিংসতার ঘটনা ঘটেছে। দুই দেশই সীমান্ত থেকে বেসামরিক নাগরিকদের সরিয়ে নিয়েছে। লেবাননের উত্তরাঞ্চলীয় সীমান্তের নিয়ন্ত্রণ ইরান সমর্থিত সশস্ত্র গোষ্ঠী হিজবুল্লাহ কাছে। তারা বেশ কয়েকবার হামলার হুঁশিয়ারি দিয়েছে। ইসরায়েলের সাথে সংঘাতে এখন পর্যন্ত শতাধিক যোদ্ধা নিহত হয়েছেন। একই সময়ে লেবাননের কয়েকজন বেসামরিক নাগরিকও ইসরায়েলি হামলায় প্রাণ হারিয়েছেন।

এক বিবৃতিতে হিজবুল্লাহ জানায়, তাদের দক্ষিণাঞ্চলে হামলার জবাবে তারা এই রকেট ছোড়ে। এগুলো কাতুয়াশা রকেটি ছিল।

ইসরায়েলি সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে জানানো হয়, লেবানন থেকে অন্তত ৪০টি হামলা চালানো হয়েছে। তাদের বেশ কয়েকটি প্রতিহত করা হয়েছে। তবে কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।

ইসরায়েলি সামরিক স্থাপনায় রকেট হামলা চালিয়েছে হিজবুল্লাহ

প্রকাশের সময় : ০২:৩৪:৪৯ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪

ইসরায়েলি সামরিক স্থাপনায় রকেট হামলা চালিয়েছে লেবাননভিত্তিক সশস্ত্রগোষ্ঠী হিজবুল্লাহ। তাদের দাবি, গতকাল শুক্রবার ইসরায়েলি স্থাপনা লক্ষ্য করে অন্তত ১২টি রকেট নিক্ষেপ করেছে। কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরার এক প্রতিবেদন থেকে এই তথ্য জানা যায়।

গত বছরের ৭ অক্টোবর গাজায় ইসরায়েলি অভিযান শুরুর পর থেকে একাধিকবার লেবানন সীমান্তে সহিংসতার ঘটনা ঘটেছে। দুই দেশই সীমান্ত থেকে বেসামরিক নাগরিকদের সরিয়ে নিয়েছে। লেবাননের উত্তরাঞ্চলীয় সীমান্তের নিয়ন্ত্রণ ইরান সমর্থিত সশস্ত্র গোষ্ঠী হিজবুল্লাহ কাছে। তারা বেশ কয়েকবার হামলার হুঁশিয়ারি দিয়েছে। ইসরায়েলের সাথে সংঘাতে এখন পর্যন্ত শতাধিক যোদ্ধা নিহত হয়েছেন। একই সময়ে লেবাননের কয়েকজন বেসামরিক নাগরিকও ইসরায়েলি হামলায় প্রাণ হারিয়েছেন।

এক বিবৃতিতে হিজবুল্লাহ জানায়, তাদের দক্ষিণাঞ্চলে হামলার জবাবে তারা এই রকেট ছোড়ে। এগুলো কাতুয়াশা রকেটি ছিল।

ইসরায়েলি সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে জানানো হয়, লেবানন থেকে অন্তত ৪০টি হামলা চালানো হয়েছে। তাদের বেশ কয়েকটি প্রতিহত করা হয়েছে। তবে কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি।