মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ফিলিস্তিনকে স্বাধীন রাষ্ট্রের স্বীকৃতি দিতে পারে অস্ট্রেলিয়া

ফিলিস্তিনকে স্বাধীন রাষ্ট্রের স্বীকৃতি দেওয়া হতে পারে বলে ইঙ্গিত দিয়েছে অস্ট্রেলিয়া। দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী পেনি ওং বলেন, শান্তি ফেরানোর বিষয়ে দ্রুততা আনতে ফিলিস্তিনকে রাষ্ট্র হিসাবে স্বীকৃতি দেওয়া হতে পারে। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির এক প্রতিবেদন থেকে এই তথ্য জানা যায়।

তবে স্বাধীন ফিলিস্তিন রাষ্ট্রে সরকার চালানোয় হামাসের যে কোনও ভূমিকা থাকতে পারবে না বলে স্পষ্ট করে দিয়েছেন অস্ট্রেলীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী। সরকারের এই সিদ্ধান্তের সঙ্গে একমত নয় দেশটির বিরোধী দল এবং জায়নিস্ট ফেডারেশন অব অস্ট্রেলিয়া। তাদের দাবি, ফিলিস্তিনের বিষয়ে নেওয়া অস্ট্রেলিয়ার এ ধরনের সিদ্ধান্ত হবে অপরিপক্ক পদক্ষেপ।

অস্ট্রেলিয়া অবশ্য অনেকদিন ধরেই বলে আসছে, ইসরায়েলের সঙ্গে মধ্যস্থতার মাধ্যমে দ্বি-রাষ্ট্র সমাধানের অংশ হিসেবেই একমাত্র ফিলিস্তিনি রাষ্ট্রের স্বীকৃতি আসতে পারে।

গাজায় যুদ্ধ নিয়ে ক্রমবর্ধমান উদ্বেগ প্রকাশ করেছে অস্ট্রেলিয়া সরকার। ইসরায়েলি বিমান হামলায় একজন অস্ট্রেলিয়ান ত্রাণকর্মী এবং আরও ছয়জন নিহত হওয়ার ঘটনাতেও উদ্বেগ প্রকাশ করে তারা।

গতকাল মঙ্গলবার রাতে তার ভাষণে পেনি ওং জানিয়েছেন ‘সহিংসতার অন্তহীন চক্র’ ভাঙতে একমাত্র আশার আলো হতে পারে দ্বি-রাষ্ট্র ভিত্তিক সমাধান যেখানে ইসরায়েল ও ফিলিস্তিনিরা পৃথক দেশে পাশাপাশি বসবাস করবে।

ফিলিস্তিনকে স্বাধীন রাষ্ট্রের স্বীকৃতি দিতে পারে অস্ট্রেলিয়া

প্রকাশের সময় : ০৩:৩৮:২০ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪

ফিলিস্তিনকে স্বাধীন রাষ্ট্রের স্বীকৃতি দেওয়া হতে পারে বলে ইঙ্গিত দিয়েছে অস্ট্রেলিয়া। দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী পেনি ওং বলেন, শান্তি ফেরানোর বিষয়ে দ্রুততা আনতে ফিলিস্তিনকে রাষ্ট্র হিসাবে স্বীকৃতি দেওয়া হতে পারে। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির এক প্রতিবেদন থেকে এই তথ্য জানা যায়।

তবে স্বাধীন ফিলিস্তিন রাষ্ট্রে সরকার চালানোয় হামাসের যে কোনও ভূমিকা থাকতে পারবে না বলে স্পষ্ট করে দিয়েছেন অস্ট্রেলীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী। সরকারের এই সিদ্ধান্তের সঙ্গে একমত নয় দেশটির বিরোধী দল এবং জায়নিস্ট ফেডারেশন অব অস্ট্রেলিয়া। তাদের দাবি, ফিলিস্তিনের বিষয়ে নেওয়া অস্ট্রেলিয়ার এ ধরনের সিদ্ধান্ত হবে অপরিপক্ক পদক্ষেপ।

অস্ট্রেলিয়া অবশ্য অনেকদিন ধরেই বলে আসছে, ইসরায়েলের সঙ্গে মধ্যস্থতার মাধ্যমে দ্বি-রাষ্ট্র সমাধানের অংশ হিসেবেই একমাত্র ফিলিস্তিনি রাষ্ট্রের স্বীকৃতি আসতে পারে।

গাজায় যুদ্ধ নিয়ে ক্রমবর্ধমান উদ্বেগ প্রকাশ করেছে অস্ট্রেলিয়া সরকার। ইসরায়েলি বিমান হামলায় একজন অস্ট্রেলিয়ান ত্রাণকর্মী এবং আরও ছয়জন নিহত হওয়ার ঘটনাতেও উদ্বেগ প্রকাশ করে তারা।

গতকাল মঙ্গলবার রাতে তার ভাষণে পেনি ওং জানিয়েছেন ‘সহিংসতার অন্তহীন চক্র’ ভাঙতে একমাত্র আশার আলো হতে পারে দ্বি-রাষ্ট্র ভিত্তিক সমাধান যেখানে ইসরায়েল ও ফিলিস্তিনিরা পৃথক দেশে পাশাপাশি বসবাস করবে।