মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় সাবেক ও বর্তমান মেম্বার গ্রুপের সংঘর্ষ, আহত ১৫

সংঘর্ষ

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগরে জমিতে সেচের পানি দেওয়াকে কেন্দ্র করে সাবেক ও বর্তমান মেম্বার গ্রুপের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষে ১৫জন আহত হয়েছে।

শনিবার (১৩ এপ্রিল) দুপুর থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত উপজেলার চাতলপাড় ইউনিয়নের ঘুজিয়াখাইল গ্রামে এই সংঘর্ষ চলে। এই ঘটনায় ৪জনকে আটক করা হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য খায়রুল পাঠানের গোষ্ঠির মাসুদ পাঠান কৃষি জমিতে সেচের পানি পাম্প পরিচালনা করে ব্যবসা করেন। জমিতে পানি দেওয়ার পর সে টাকা উত্তোলন করেন। কিন্তু সম্প্রতি সাবেক ইউপি সদস্য মারফত আলীর গোষ্ঠির এক ব্যক্তির জমিতে পানি দিলেও সে মাসুদকে টাকা দেয়নি। এনিয়ে শনিবার দুইপক্ষ বাকবিতণ্ডা থেকে দেশীয় অস্ত্রসস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। পরে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এই সংঘর্ষে অন্তত ১৫জন আহত হয়েছেন। এরমধ্যে ৭জনকে নাসিরনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। বাকিরা জেলা সদর হাসপাতাল ও স্থানীয় ভাবে চিকিৎসা নিয়েছেন।

নাসিরনগর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সোহাগ রানা জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে পুলিশ। এই ঘটনায় ৪জনকে আটক করা হয়েছে এবং ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়েন করা আছে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় সাবেক ও বর্তমান মেম্বার গ্রুপের সংঘর্ষ, আহত ১৫

প্রকাশের সময় : ০৮:৫৭:২২ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগরে জমিতে সেচের পানি দেওয়াকে কেন্দ্র করে সাবেক ও বর্তমান মেম্বার গ্রুপের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষে ১৫জন আহত হয়েছে।

শনিবার (১৩ এপ্রিল) দুপুর থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত উপজেলার চাতলপাড় ইউনিয়নের ঘুজিয়াখাইল গ্রামে এই সংঘর্ষ চলে। এই ঘটনায় ৪জনকে আটক করা হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য খায়রুল পাঠানের গোষ্ঠির মাসুদ পাঠান কৃষি জমিতে সেচের পানি পাম্প পরিচালনা করে ব্যবসা করেন। জমিতে পানি দেওয়ার পর সে টাকা উত্তোলন করেন। কিন্তু সম্প্রতি সাবেক ইউপি সদস্য মারফত আলীর গোষ্ঠির এক ব্যক্তির জমিতে পানি দিলেও সে মাসুদকে টাকা দেয়নি। এনিয়ে শনিবার দুইপক্ষ বাকবিতণ্ডা থেকে দেশীয় অস্ত্রসস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। পরে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এই সংঘর্ষে অন্তত ১৫জন আহত হয়েছেন। এরমধ্যে ৭জনকে নাসিরনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। বাকিরা জেলা সদর হাসপাতাল ও স্থানীয় ভাবে চিকিৎসা নিয়েছেন।

নাসিরনগর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সোহাগ রানা জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে পুলিশ। এই ঘটনায় ৪জনকে আটক করা হয়েছে এবং ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়েন করা আছে।