মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

যশোর ডিবি পুলিশের হাতে আন্তঃজেলা ডাকাত দলের ৪ সদস্য আটক

যশোর ডিবি পুলিশ অভিযান চালিয়ে আন্তঃ জেলা ডাকাত দলের ৪ সদস্যকে গ্রেফতার করেছে।  গ্রেফতারকৃতরা হলো খুলনা জেলার রুপসা উপজেলার তালিমপুর গ্রামের বর্তমানে নৈহাটি দারােগাভিটা গ্রামের অহিদ শেখের ছেলে আব্দুল হালিম (৩৫) বাগেরহাট জেলার ফকিরহাট উপজেলার জাড়িয়া মাইটকুমড়া গ্রামের জাহাঙ্গীর শেখের ছেলে শিমুল শেখ ওরফে হৃদয় (২২) খুলনা জেলার তেরখাদা উপজেলার নাসির হালদারের ছেলে মিলন হালদার ওরফে হৃদয় (২৬) ও খুলনা জেলার রুপসা উপজেলার চররুপসা গ্রামের বর্তমানে জয়পুর ইলাহিপুর গ্রামের শওকত আলী শেখ ওরফে শহর আলী শেখের ছেলে আবুল কালাম শেখ (৪০)। এদের কাছ থেকে উদ্ধার করা হয়েছে ২ টি গাভি গরু, ১ টি পিকআপ গাড়ি, ২ জোড়া স্বর্নের কানের দুল, ১ টি এলইডি টিভি ও ১ টি পানির পাম্প।

ডিবি পুলিশের ওসি রুপন কুমার সরকার জানান, তথ্য প্রযুক্তি মাধ্যমে আসামিদের সনাক্ত করে এস আই শামিম হোসেনের নেতৃত্বে বাগেরহাট ও খুলনা এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে ৪ জনকে আটক করা হয়। অভিযানে আরো অংশ নেয় এস আই শফি আহমেদ রিয়েল, এ এস আই রঞ্জন কুমার বসু, কনসটেবল আব্দুল বাতেন, নাজমুল খান, মিটুল, সামছুজ্জোহা, ইসমাইলসহ চৌকস টিম।

ঘটনার বিবরনে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এস আই শামিম হোসেন জানান, ২৭ এপ্রিল গভীর রাতে মনিরামপুর উপজেলার বাগডোব গ্রামে আতিয়ার রহমানের বাড়ি অজ্হাত ৩ ডাকাত ঘরে ঢুকে পিছন থেকে আতিয়ারকে জাপটে ধরে। আতিয়ার চিৎকার ডাকাতরা তার মুখ চেপে ধরে ও মারপিট করে। ধস্তাধস্তির শব্দ শুনে আতিয়ারের স্ত্রী ঘুম থেকে জেগে যায়। এ সময় ডাকাতরা আতিয়ার ও তার স্ত্রীকে স্যালোয়ারের কাপড় দিয়ে বেধে ফেলে। ডাকাতরা আতিয়ারের বসতঘরের আলমারী থেকে বিভিন্ন স্বর্ণালংকার, ০২টি বিদেশী টর্চলাইট, ০১টি বাটন মোবাইল, ০১টি ভিভো মোবাইল, নগদ টাকা, ০১টি এলইডি টিভি বসতঘরে থাকা ব্যবহার্য মালামাল নিয়ে যায়। ডাকাতরা চলে যাওয়ার সময় আতিয়ারের গোয়াল ঘর থেকে ০১টি কালো-সাদা রংয়ের জার্সি গাভী ও ০১টি লাল সিন্দি গাভী, ০১টি বৈদ্যুতিক পানির মোটর লুন্ঠন করে নিয়ে যায়। এই ঘটনায় আতিয়ার রহমান (৬৩) মনিরামপুর থানায় মামলা করেন। মামলা নম্বর-৩। তারিখ ০২.৫.২০২৪ ইং। ধারা-৩৯২ পেনাল কোড রুজু হয়। লুন্ঠিত মালামাল উদ্ধারের জন্য মামলাটির তদন্তভার অর্পন করা হয়। এরই ধারাবাহিকতায় ডিবি অভিযান চালিয়ে আসামিদের আটকসহ মালামাল উদ্ধার করে।

যশোরের শার্শায় চেয়ারম্যান  প্রার্থীর বাড়িতে বোমা বিস্ফোরণ ঘটিয়েছে দূর্বত্তরা

যশোরের শার্শা উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী অধ্যক্ষ ইব্রাহিম খলিলের বাসার সামনে গভীর রাতে দুইটি বোমা বিস্ফোরণ ঘটিয়েছে দূর্বত্তরা।শনিবার (৪ মে) দিবাগত রাত ৩টা ৪৫ মিনিটের সময় শার্শার রাজনগর মোড়ে তার নিজস্ব বাসভবনের সামনে এই বোমা বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার পরপরই পালিয়ে যায় দূর্বত্তরা। তবে এ ঘটনায় কোন ক্ষয়ক্ষতি বা হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি। এদিকে গভীর রাতে হঠাৎ বোমা বিস্ফোরণের বিকট শব্দে অধ্যক্ষ ইব্রাহিম খলিলের পরিবার সহ আশেপাশের মানুষের মাঝে চরম আতঙ্ক বিরাজ করছে।

অধ্যক্ষ ইব্রাহিম খলিল জানান, রাতে হঠাৎ বিকট শব্দে পরিবারের সবার ঘুম ভেঙে যায়। ঘড়ির কাঁটায় তখন ৩টা ৪৫ মিনিট। তড়িঘড়ি উঠে পর্যবেক্ষণ করে দেখি বাসার সামনে দূর্বত্তরা বোমা বিস্ফোরণ ঘটিয়েছে। এসময় পরিবারের লোকজনের মাঝে আতঙ্ক বিরাজ করতে থাকে। তাৎক্ষণিকভাবে প্রশাসনকে জানালে পুলিশ এসে তদন্ত কার্যক্রম শুরু করে।

এ ঘটনার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই কামরুল ইসলাম বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে এসে তদন্ত কার্যক্রম শুরু করেছি। বোমা বিস্ফোরণের আলামত সংগ্রহ করা হয়েছে। এ বিষয়ে আইনানুগ কার্যক্রম চলমান রয়েছে। কে বা কারা বোমা বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটিয়েছে ক্ষতিয়ে দেখা হচ্ছে।

শার্শা থানার অফিসার ইনচার্জ শেখ মোঃ মনিরুজ্জামান বলেন, ঘটনাটি শুনেছি। তদন্ত কার্যক্রম চলছে। তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

জিএসটির ‘বি’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষার ফল প্রকাশ, পাসের হার ৩৬ দশমিক ৩৩ শতাংশ

দেশের ২৪টি সাধারণ এবং বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির জন্য অনুষ্ঠিত গুচ্ছভুক্ত জিএসটির ‘বি’ ইউনিটের ফলাফল প্রকাশ করা হয়েছে। এ পরীক্ষায় পাসের হার ৩৬ দশমিক ৩৩ শতাংশ। শিক্ষার্থীরা আজ রাত ১১ টা ৫৯ মিনিটের আগেই জিএসটির ওয়েবসাইটে ঢুকে তাঁদের ফলাফল জানতে পারবেন।

আজ রোববার দুপুরে জিএসটি সমন্বিত ভর্তি কমিটির আহ্বায়ক ও যবিপ্রবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোঃ আনোয়ার হোসেনের কাছে টেকনিক্যাল কমিটির পক্ষ থেকে ‘বি’ ইউনিটের ফলাফল তুলে দেওয়া হয়। বিকেলে জিএসটি সমন্বিত ভর্তি কমিটির সভায় উপস্থাপনের পর তা প্রকাশের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। ঘোষিত ফলাফলে জানানো হয়, ২০২৩-২৪ সেশনে প্রথম বর্ষে ভর্তির জন্য এ বছর ‘বি’ ইউনিটে ৯৪ হাজার ৬৩১ জন পরীক্ষার্থী আবেদন করে। এরমধ্যে ৮৫ হাজার ৫৪৮ জন পরীক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেন। তারমধ্যে ৩১ হাজার ৮১ জন শিক্ষার্থী ৩০ নম্বরের উপরে পেয়ে ভর্তির ন্যূনতম যোগ্যতা অর্জন করেছেন। যার হিসাবে পাসের হার ৩৬ দশমিক ৩৩ শতাংশ। এছাড়া বিভিন্ন কারণে ০.০৩ শতাংশ তথা ২৩ জন শিক্ষার্থীর উত্তরপত্র বাতিল হয়েছে। ‘বি’ ইউনিটের গতবার পাসের হার ছিল ৫৬ দশমিক ৩২ শতাংশ। শিক্ষার্থীরা আজ রাত ১১ টা ৫৯ মিনিটের মধ্যে জিএসটির ওয়েবসাইট (https://gstadmission.ac.bd/) থেকে ফলাফল জানতে পারবেন।

ঘোষিত ফলাফলে দেখা যায়, ‘বি’ ইউনিটে সর্বোচ্চ ৭৬ দশমিক ২৫ নম্বর পেয়ে প্রথম স্থান অধিকার করেছেন রুকাইয়া ফেরদৌস লামিয়া। কৃতিত্বপূর্ণ এ শিক্ষার্থী ঢাকার বীরশ্রেষ্ঠ মুন্সি আব্দুর রউফ পাবলিক কলেজের শিক্ষার্থী, রোল নং ৩১৮৬৩০ এবং তাঁর কেন্দ্র ছিল জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপকেন্দ্র ঢাকা রেসিডেনসিয়াল মডেল কলেজ। এছাড়া ৭৫ নম্বরের উপরে ১ জন, ৭০ নম্বরের ওপরে ৭ জন, ৬৫ নম্বরের উপরে ৪৯ জন, ৬০ নম্বরের উপরে ২১৯ জন, ৫৫ নম্বরের উপরে ৭৮৩ জন, ৫০ নম্বরের উপরে ২৪২৫ জন, ৪৫ নম্বরের উপরে ৫৮৩০ জন, ৪০ নম্বরের উপরে ১১৬৪৬ জন, ৩৫ নম্বরের উপরে ২০১৩২ জন এবং ৩০ নম্বরের উপরে ৩১০৮৩ জন উত্তীর্ণ হয়েছেন। ২৪ বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির জন্য ‘বি’ ইউনিটভুক্ত শিক্ষার্থীদের জন্য ৪ হাজার ৫১৫টি আসন রয়েছে।

‘বি’ ইউনিটের ফলাফল প্রকাশের সময় অধ্যাপক ড. মোঃ আনোয়ার হোসেন বলেন, ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের যাতায়াত, থাকা-খাওয়াসহ বিভিন্ন দুর্দশা লাঘবে চতুর্থবারের মতো তিনটি ইউনিটে জিএসটি ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। গত ৩ মে ‘বি’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। নির্ধারিত সময়ের পূর্বেই ভর্তি পরীক্ষার ফলাফল ঘোষণা করা হয়েছে। সুষ্ঠু ও নির্বিঘেœ পরীক্ষা সম্পন্ন করায় গুচ্ছভুক্ত

ফলাফল প্রকাশের সময় আরও উপস্থিত ছিলেন ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়, কুষ্টিয়ার উপাচার্য অধ্যাপক ড. শেখ আব্দুস সালাম, শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, সিলেটের উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদ, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ডিজিটাল বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলাদেশের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ মাহফুজুল ইসলাম, চাঁদপুর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. নাসিম আখতার, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিশ্ববিদ্যালয়, কিশোরগঞ্জের উপাচার্য অধ্যাপক ড. জেড এম পারভেজ সাজ্জাদ, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, পিরোজপুরের অধ্যাপক ড. কাজী সাইফুদ্দিন, যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. মো. আনিছুর রহমান, টেকনিক্যাল উপ-কমিটির অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম, অধ্যাপক ড. মো. খাদেমুল ইসলাম, অধ্যাপক ড. সৈয়দ মো. গালিব প্রমুখ।

এদিকে গুচ্ছভুক্ত ‘এ’ ইউনিটের আর্কিটেকচার (ড্রয়িং) পরীক্ষার ফলাফলও ঘোষণা করা হয়েছে। পূর্ব সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, ড্রয়িং (ব্যবহারিক) পরীক্ষার মোট নম্বরের ৩০ শতাংশকে পাস হিসেবে বিবেচনা করে ৮৭৭ জনকে উত্তীর্ণ হিসেবে দেখানো হয়েছে। পাসকৃত শিক্ষার্থীরাও আজ রাত ১১টা ৫৯ মিনিটের আগেই জিএসটির ওয়েবসাইটে গিয়ে তাদের ফলাফল দেখতে পাবেন। গুচ্ছভুক্ত চারটি বিশ্ববিদ্যালয়ে আর্কিটেকচারে ভর্তির জন্য মোট ১৬৫টি আসন রয়েছে।

উল্লেখ্য, আগামী ১০ মে ‘সি’ ইউনিটে বাণিজ্য বিভাগ থেকে আবেদনকৃত শিক্ষার্থীদের বেলা ১১টা-১২টা পর্যন্ত ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। তবে শিক্ষার্থীদের পরীক্ষা শুরুর ১ ঘণ্টা পূর্বেই কেন্দ্রে পৌঁছানোর নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

যশোরের শার্শায় সড়ক দুর্ঘটনায় নারী নিহত আহত -৩ 

যশোরের নাভারন সাতক্ষীরা সড়কের জামতলা এলাকায় মাটিবাহী ট্রাক্টরের চাঁপায় মোটরসাইকেল আরোহী এক নারীর মৃত্যু নিহত হয়েছে। ওই সময় মোটরসাইকেল চালক, ওই নারীর স্বামী এবং একমাত্র কন্যাও মারাত্নক ভাবে আহত হয়েছে।

রোববার দুপুরে নাভারণ-সাতক্ষীরা মহাসড়কের জামতলা ওরিয়েন্টাল অয়েল কোম্পানীর ফ্যাক্টোরীর সামনে এ দূর্ঘটনাটি ঘটে বলে জানান, নাভারণ হাইওয়ে থানার সাব ইন্সপেক্টর মফিজুল ইসলাম।

নিহত রিতা রাণী(২১) সাতক্ষীরা জেলার শ্যামনগর উপজেলার পদ্মপুকুর ইউনিয়নের গড়কুমারপুর গ্রামের মিলন গোলদারের স্ত্রী এবং যশোরের শার্শার গোড়পাড়া পোতাপুর গ্রামের কিনা মন্ডলের মেয়ে।

আহতরা হচ্ছেন,নিহত রিতা রাণীর স্বামী মিলন গোলদার (৩০) ও তাদের শিশু কন্যা প্রিয়া(২) এবং একই এলাকার রুহুল কুদ্দুছ সানার ছেলে মোটরসাইকেল চালক আসমাতুল্লা(৩৫)।

আহত মিলন গোলদারের বরাতে এসআই  মফিজুল ইসলাম জানান,মিলন ভাড়া মোটরসাইকেলে স্ত্রী ও মেয়েকে নিয়ে শশুর বাড়ি শার্শার গোড়পাড়ায় যাচ্ছিলেন।জামতলা ওরিয়েন্টাল অয়েল কোম্পানীর ফ্যাক্টোরীর সামনে পৌছালে মাটিবাহী একটি ট্রাক্টর নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে তাদেরকে চাঁপা দিয়ে দ্রুত পালিয়ে যায়।

এসময় ঘটনাস্থলেই রিতা মারা যায়।পরে স্থানীয়রা মিলন,প্রিয়া ও আসমাতুল্লাকে উদ্ধার করে স্থানীয় একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করে।

এই পুলিশ কর্মকর্তা জানান,লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।ঘাতক ট্রাক্টরটি আটকে অভিযান চলছে।এ ব্যাপারে মামলার প্রস্তুতি চলছিল বলে জানা গেছে।

যশোরের চৌগাছা থেকে ফেনসিডিলসহ দুইজন আটক

যশোরের চৌগাছায় ডিবি পুলিশের অভিযানে ফেনসিডিলসহ দুই য্বুককে আটক করা হয়েছে। তাদের কাছ থেকে ৩০ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার করা হয়েছে। আটককৃতরা হলো, চৌগাছা উপজেলার বর্ণি ধোপাপাড়ার আক্তারুল ইসলাম ও ঝিনাইদহ জেলার মহেশপুর উপজেলার বড়বাড়ি বাজারপাড়ার রকি মিয়া।

ডিবির ওসি রুপন কুমার সরকার জানান, তাদের কাছে খবর আসে চৌগাছার রাজাপুরে একটি চক্র মাদকের কারবার করছে। এ খবরের ভিত্তিতে এসআই রাজেশ কুমার দাশের নেতৃত্বে একটি টিম চৌগাছায় অভিযান চালায়। তারা রাজাপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সামনে থেকে ৩০ বোতল ফেনসিডিলসহ আক্তারুল ইসলাম ও রকি মিয়াকে আটক করে। এঘটনায় চৌগাছা থানায় মামলা হয়েছে।

যশোরে ৪টি প্রতিষ্ঠানকে ভোক্তা অধিকারের ৭০ হাজার টাকা জরিমানা

 জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষন অধিদপ্তর যশোর জেলা কার্যালয় অনিয়মের অভিযোগে অভিযান চালিয়ে ৪টি প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে ৭০ হাজার টাকা জরিমানা করে আদায় করেছে। অবৈধ প্রক্রিয়ায় খাদ্য উৎপাদনের অভিযোগে খাবার হোটেল সাতক্ষীরা প্লাসকে ভোক্তা অধিকার আইনের ৪৩ ধারায় ২৫ হাজার টাকা, একই অপরাধে প্যারাডাইস হোটেল এন্ড রেস্টুরেন্টকে ২০ হাজার টাকা, এবং ফিরিজিয়ান স্যাম্পল বিক্রির অভিযোগে মেডিসিন কর্নারকে ভোক্তা অধিকার আইনের ৩৭ ধারায় ১৫ হাজার টাকা একই অপরাধে শাহ ফার্মেসিকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করে আদায় করা হয়।

রোববার অভয়নগর উপজেলার নওয়াপাড়া বাজার এলাকায় অভিযান পরিচালনা করা হয়। অভিযানের নেতৃত্ব দেন জাতীয় ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর যশোরের সহকারি পরিচালক সৈয়দা তামান্না তাসনীম। অভিযানে উপস্থিত থেকে সার্বিক সহযোগিতা করেন ক্যাব সদস্য আব্দুর রকিব সরদার ও  জেলা পুলিশের একটি টিম। জনস্বার্থে এরুপ অভিযান অব্যাহত থাকবে।

যশোর শহরের শংকরপুর থেকে ককটেল সহ যুবক আটক

 যশোর শহরের শংকরপুর এলাকার জিসান ওরফে ভাগ্নি জিসানকে ৬টি ককটেল ও বিভিন্ন সরঞ্জামসহ আটক করেছে পুলিশ। রোববার তাদেরকে আদালতে সোপর্দ করা হলে বিচারক তাদেরকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন।

পুলিশ জানায়, গত ২৩ এপ্রিল মধ্যরাতে তাদের কাছে খবর আসে শংকরপুর চোপদারপাড়া এলাকায় একদল সন্ত্রাসী বিভিন্ন দেশি অস্ত্র ও বোমা নিয়ে অবস্থান করছেন এমন সংবাদের ভিত্তিতে তারা অভিযান চালায়। এসময় সন্ত্রাসীরা  পালিয়ে যায়। ঘটনাস্থল থেকে ছয়টি ককটেল ও বোমা তৈরির কিছু সরঞ্জাম উদ্ধার করা হয়।

এ ঘটনায় পাঁচজনের পাঁচজনের বিরুদ্ধে কোতোয়ালি থানায় মামলা করেন এসআই জয়ন্ত সরকার। অন্য আসামিরা হলেন, আসামিরা হলেন গাড়োয়ানপট্টির নুরুর ছেলে রাকিব, হাজারীগেটের মিন্টুর ছেলে তানভীর, কালিতলার কালু বাবুর ছেলে নিরব দেবনাথ ও শংকরপুর মহিলা মাদ্রাসা এলাকার আলী হোসেনের ছেলে আসিফ। এছাড়াও এ মামলায় আরও ৮/১০জনকে আসামি করা হয়। তদন্তে উঠে আসে জিসানও এ ঘটনার সাথে জড়িত ছিলেন।

যশোর ডিবি পুলিশের হাতে আন্তঃজেলা ডাকাত দলের ৪ সদস্য আটক

প্রকাশের সময় : ০৯:৩৯:৩৯ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ৬ মে ২০২৪
যশোর ডিবি পুলিশ অভিযান চালিয়ে আন্তঃ জেলা ডাকাত দলের ৪ সদস্যকে গ্রেফতার করেছে।  গ্রেফতারকৃতরা হলো খুলনা জেলার রুপসা উপজেলার তালিমপুর গ্রামের বর্তমানে নৈহাটি দারােগাভিটা গ্রামের অহিদ শেখের ছেলে আব্দুল হালিম (৩৫) বাগেরহাট জেলার ফকিরহাট উপজেলার জাড়িয়া মাইটকুমড়া গ্রামের জাহাঙ্গীর শেখের ছেলে শিমুল শেখ ওরফে হৃদয় (২২) খুলনা জেলার তেরখাদা উপজেলার নাসির হালদারের ছেলে মিলন হালদার ওরফে হৃদয় (২৬) ও খুলনা জেলার রুপসা উপজেলার চররুপসা গ্রামের বর্তমানে জয়পুর ইলাহিপুর গ্রামের শওকত আলী শেখ ওরফে শহর আলী শেখের ছেলে আবুল কালাম শেখ (৪০)। এদের কাছ থেকে উদ্ধার করা হয়েছে ২ টি গাভি গরু, ১ টি পিকআপ গাড়ি, ২ জোড়া স্বর্নের কানের দুল, ১ টি এলইডি টিভি ও ১ টি পানির পাম্প।

ডিবি পুলিশের ওসি রুপন কুমার সরকার জানান, তথ্য প্রযুক্তি মাধ্যমে আসামিদের সনাক্ত করে এস আই শামিম হোসেনের নেতৃত্বে বাগেরহাট ও খুলনা এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে ৪ জনকে আটক করা হয়। অভিযানে আরো অংশ নেয় এস আই শফি আহমেদ রিয়েল, এ এস আই রঞ্জন কুমার বসু, কনসটেবল আব্দুল বাতেন, নাজমুল খান, মিটুল, সামছুজ্জোহা, ইসমাইলসহ চৌকস টিম।

ঘটনার বিবরনে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এস আই শামিম হোসেন জানান, ২৭ এপ্রিল গভীর রাতে মনিরামপুর উপজেলার বাগডোব গ্রামে আতিয়ার রহমানের বাড়ি অজ্হাত ৩ ডাকাত ঘরে ঢুকে পিছন থেকে আতিয়ারকে জাপটে ধরে। আতিয়ার চিৎকার ডাকাতরা তার মুখ চেপে ধরে ও মারপিট করে। ধস্তাধস্তির শব্দ শুনে আতিয়ারের স্ত্রী ঘুম থেকে জেগে যায়। এ সময় ডাকাতরা আতিয়ার ও তার স্ত্রীকে স্যালোয়ারের কাপড় দিয়ে বেধে ফেলে। ডাকাতরা আতিয়ারের বসতঘরের আলমারী থেকে বিভিন্ন স্বর্ণালংকার, ০২টি বিদেশী টর্চলাইট, ০১টি বাটন মোবাইল, ০১টি ভিভো মোবাইল, নগদ টাকা, ০১টি এলইডি টিভি বসতঘরে থাকা ব্যবহার্য মালামাল নিয়ে যায়। ডাকাতরা চলে যাওয়ার সময় আতিয়ারের গোয়াল ঘর থেকে ০১টি কালো-সাদা রংয়ের জার্সি গাভী ও ০১টি লাল সিন্দি গাভী, ০১টি বৈদ্যুতিক পানির মোটর লুন্ঠন করে নিয়ে যায়। এই ঘটনায় আতিয়ার রহমান (৬৩) মনিরামপুর থানায় মামলা করেন। মামলা নম্বর-৩। তারিখ ০২.৫.২০২৪ ইং। ধারা-৩৯২ পেনাল কোড রুজু হয়। লুন্ঠিত মালামাল উদ্ধারের জন্য মামলাটির তদন্তভার অর্পন করা হয়। এরই ধারাবাহিকতায় ডিবি অভিযান চালিয়ে আসামিদের আটকসহ মালামাল উদ্ধার করে।

যশোরের শার্শায় চেয়ারম্যান  প্রার্থীর বাড়িতে বোমা বিস্ফোরণ ঘটিয়েছে দূর্বত্তরা

যশোরের শার্শা উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী অধ্যক্ষ ইব্রাহিম খলিলের বাসার সামনে গভীর রাতে দুইটি বোমা বিস্ফোরণ ঘটিয়েছে দূর্বত্তরা।শনিবার (৪ মে) দিবাগত রাত ৩টা ৪৫ মিনিটের সময় শার্শার রাজনগর মোড়ে তার নিজস্ব বাসভবনের সামনে এই বোমা বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনার পরপরই পালিয়ে যায় দূর্বত্তরা। তবে এ ঘটনায় কোন ক্ষয়ক্ষতি বা হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি। এদিকে গভীর রাতে হঠাৎ বোমা বিস্ফোরণের বিকট শব্দে অধ্যক্ষ ইব্রাহিম খলিলের পরিবার সহ আশেপাশের মানুষের মাঝে চরম আতঙ্ক বিরাজ করছে।

অধ্যক্ষ ইব্রাহিম খলিল জানান, রাতে হঠাৎ বিকট শব্দে পরিবারের সবার ঘুম ভেঙে যায়। ঘড়ির কাঁটায় তখন ৩টা ৪৫ মিনিট। তড়িঘড়ি উঠে পর্যবেক্ষণ করে দেখি বাসার সামনে দূর্বত্তরা বোমা বিস্ফোরণ ঘটিয়েছে। এসময় পরিবারের লোকজনের মাঝে আতঙ্ক বিরাজ করতে থাকে। তাৎক্ষণিকভাবে প্রশাসনকে জানালে পুলিশ এসে তদন্ত কার্যক্রম শুরু করে।

এ ঘটনার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই কামরুল ইসলাম বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে এসে তদন্ত কার্যক্রম শুরু করেছি। বোমা বিস্ফোরণের আলামত সংগ্রহ করা হয়েছে। এ বিষয়ে আইনানুগ কার্যক্রম চলমান রয়েছে। কে বা কারা বোমা বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটিয়েছে ক্ষতিয়ে দেখা হচ্ছে।

শার্শা থানার অফিসার ইনচার্জ শেখ মোঃ মনিরুজ্জামান বলেন, ঘটনাটি শুনেছি। তদন্ত কার্যক্রম চলছে। তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

জিএসটির ‘বি’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষার ফল প্রকাশ, পাসের হার ৩৬ দশমিক ৩৩ শতাংশ

দেশের ২৪টি সাধারণ এবং বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির জন্য অনুষ্ঠিত গুচ্ছভুক্ত জিএসটির ‘বি’ ইউনিটের ফলাফল প্রকাশ করা হয়েছে। এ পরীক্ষায় পাসের হার ৩৬ দশমিক ৩৩ শতাংশ। শিক্ষার্থীরা আজ রাত ১১ টা ৫৯ মিনিটের আগেই জিএসটির ওয়েবসাইটে ঢুকে তাঁদের ফলাফল জানতে পারবেন।

আজ রোববার দুপুরে জিএসটি সমন্বিত ভর্তি কমিটির আহ্বায়ক ও যবিপ্রবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোঃ আনোয়ার হোসেনের কাছে টেকনিক্যাল কমিটির পক্ষ থেকে ‘বি’ ইউনিটের ফলাফল তুলে দেওয়া হয়। বিকেলে জিএসটি সমন্বিত ভর্তি কমিটির সভায় উপস্থাপনের পর তা প্রকাশের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। ঘোষিত ফলাফলে জানানো হয়, ২০২৩-২৪ সেশনে প্রথম বর্ষে ভর্তির জন্য এ বছর ‘বি’ ইউনিটে ৯৪ হাজার ৬৩১ জন পরীক্ষার্থী আবেদন করে। এরমধ্যে ৮৫ হাজার ৫৪৮ জন পরীক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেন। তারমধ্যে ৩১ হাজার ৮১ জন শিক্ষার্থী ৩০ নম্বরের উপরে পেয়ে ভর্তির ন্যূনতম যোগ্যতা অর্জন করেছেন। যার হিসাবে পাসের হার ৩৬ দশমিক ৩৩ শতাংশ। এছাড়া বিভিন্ন কারণে ০.০৩ শতাংশ তথা ২৩ জন শিক্ষার্থীর উত্তরপত্র বাতিল হয়েছে। ‘বি’ ইউনিটের গতবার পাসের হার ছিল ৫৬ দশমিক ৩২ শতাংশ। শিক্ষার্থীরা আজ রাত ১১ টা ৫৯ মিনিটের মধ্যে জিএসটির ওয়েবসাইট (https://gstadmission.ac.bd/) থেকে ফলাফল জানতে পারবেন।

ঘোষিত ফলাফলে দেখা যায়, ‘বি’ ইউনিটে সর্বোচ্চ ৭৬ দশমিক ২৫ নম্বর পেয়ে প্রথম স্থান অধিকার করেছেন রুকাইয়া ফেরদৌস লামিয়া। কৃতিত্বপূর্ণ এ শিক্ষার্থী ঢাকার বীরশ্রেষ্ঠ মুন্সি আব্দুর রউফ পাবলিক কলেজের শিক্ষার্থী, রোল নং ৩১৮৬৩০ এবং তাঁর কেন্দ্র ছিল জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপকেন্দ্র ঢাকা রেসিডেনসিয়াল মডেল কলেজ। এছাড়া ৭৫ নম্বরের উপরে ১ জন, ৭০ নম্বরের ওপরে ৭ জন, ৬৫ নম্বরের উপরে ৪৯ জন, ৬০ নম্বরের উপরে ২১৯ জন, ৫৫ নম্বরের উপরে ৭৮৩ জন, ৫০ নম্বরের উপরে ২৪২৫ জন, ৪৫ নম্বরের উপরে ৫৮৩০ জন, ৪০ নম্বরের উপরে ১১৬৪৬ জন, ৩৫ নম্বরের উপরে ২০১৩২ জন এবং ৩০ নম্বরের উপরে ৩১০৮৩ জন উত্তীর্ণ হয়েছেন। ২৪ বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির জন্য ‘বি’ ইউনিটভুক্ত শিক্ষার্থীদের জন্য ৪ হাজার ৫১৫টি আসন রয়েছে।

‘বি’ ইউনিটের ফলাফল প্রকাশের সময় অধ্যাপক ড. মোঃ আনোয়ার হোসেন বলেন, ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের যাতায়াত, থাকা-খাওয়াসহ বিভিন্ন দুর্দশা লাঘবে চতুর্থবারের মতো তিনটি ইউনিটে জিএসটি ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। গত ৩ মে ‘বি’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। নির্ধারিত সময়ের পূর্বেই ভর্তি পরীক্ষার ফলাফল ঘোষণা করা হয়েছে। সুষ্ঠু ও নির্বিঘেœ পরীক্ষা সম্পন্ন করায় গুচ্ছভুক্ত

ফলাফল প্রকাশের সময় আরও উপস্থিত ছিলেন ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়, কুষ্টিয়ার উপাচার্য অধ্যাপক ড. শেখ আব্দুস সালাম, শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, সিলেটের উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদ, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ডিজিটাল বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলাদেশের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ মাহফুজুল ইসলাম, চাঁদপুর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. নাসিম আখতার, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিশ্ববিদ্যালয়, কিশোরগঞ্জের উপাচার্য অধ্যাপক ড. জেড এম পারভেজ সাজ্জাদ, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, পিরোজপুরের অধ্যাপক ড. কাজী সাইফুদ্দিন, যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. মো. আনিছুর রহমান, টেকনিক্যাল উপ-কমিটির অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম, অধ্যাপক ড. মো. খাদেমুল ইসলাম, অধ্যাপক ড. সৈয়দ মো. গালিব প্রমুখ।

এদিকে গুচ্ছভুক্ত ‘এ’ ইউনিটের আর্কিটেকচার (ড্রয়িং) পরীক্ষার ফলাফলও ঘোষণা করা হয়েছে। পূর্ব সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, ড্রয়িং (ব্যবহারিক) পরীক্ষার মোট নম্বরের ৩০ শতাংশকে পাস হিসেবে বিবেচনা করে ৮৭৭ জনকে উত্তীর্ণ হিসেবে দেখানো হয়েছে। পাসকৃত শিক্ষার্থীরাও আজ রাত ১১টা ৫৯ মিনিটের আগেই জিএসটির ওয়েবসাইটে গিয়ে তাদের ফলাফল দেখতে পাবেন। গুচ্ছভুক্ত চারটি বিশ্ববিদ্যালয়ে আর্কিটেকচারে ভর্তির জন্য মোট ১৬৫টি আসন রয়েছে।

উল্লেখ্য, আগামী ১০ মে ‘সি’ ইউনিটে বাণিজ্য বিভাগ থেকে আবেদনকৃত শিক্ষার্থীদের বেলা ১১টা-১২টা পর্যন্ত ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। তবে শিক্ষার্থীদের পরীক্ষা শুরুর ১ ঘণ্টা পূর্বেই কেন্দ্রে পৌঁছানোর নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

যশোরের শার্শায় সড়ক দুর্ঘটনায় নারী নিহত আহত -৩ 

যশোরের নাভারন সাতক্ষীরা সড়কের জামতলা এলাকায় মাটিবাহী ট্রাক্টরের চাঁপায় মোটরসাইকেল আরোহী এক নারীর মৃত্যু নিহত হয়েছে। ওই সময় মোটরসাইকেল চালক, ওই নারীর স্বামী এবং একমাত্র কন্যাও মারাত্নক ভাবে আহত হয়েছে।

রোববার দুপুরে নাভারণ-সাতক্ষীরা মহাসড়কের জামতলা ওরিয়েন্টাল অয়েল কোম্পানীর ফ্যাক্টোরীর সামনে এ দূর্ঘটনাটি ঘটে বলে জানান, নাভারণ হাইওয়ে থানার সাব ইন্সপেক্টর মফিজুল ইসলাম।

নিহত রিতা রাণী(২১) সাতক্ষীরা জেলার শ্যামনগর উপজেলার পদ্মপুকুর ইউনিয়নের গড়কুমারপুর গ্রামের মিলন গোলদারের স্ত্রী এবং যশোরের শার্শার গোড়পাড়া পোতাপুর গ্রামের কিনা মন্ডলের মেয়ে।

আহতরা হচ্ছেন,নিহত রিতা রাণীর স্বামী মিলন গোলদার (৩০) ও তাদের শিশু কন্যা প্রিয়া(২) এবং একই এলাকার রুহুল কুদ্দুছ সানার ছেলে মোটরসাইকেল চালক আসমাতুল্লা(৩৫)।

আহত মিলন গোলদারের বরাতে এসআই  মফিজুল ইসলাম জানান,মিলন ভাড়া মোটরসাইকেলে স্ত্রী ও মেয়েকে নিয়ে শশুর বাড়ি শার্শার গোড়পাড়ায় যাচ্ছিলেন।জামতলা ওরিয়েন্টাল অয়েল কোম্পানীর ফ্যাক্টোরীর সামনে পৌছালে মাটিবাহী একটি ট্রাক্টর নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে তাদেরকে চাঁপা দিয়ে দ্রুত পালিয়ে যায়।

এসময় ঘটনাস্থলেই রিতা মারা যায়।পরে স্থানীয়রা মিলন,প্রিয়া ও আসমাতুল্লাকে উদ্ধার করে স্থানীয় একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করে।

এই পুলিশ কর্মকর্তা জানান,লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।ঘাতক ট্রাক্টরটি আটকে অভিযান চলছে।এ ব্যাপারে মামলার প্রস্তুতি চলছিল বলে জানা গেছে।

যশোরের চৌগাছা থেকে ফেনসিডিলসহ দুইজন আটক

যশোরের চৌগাছায় ডিবি পুলিশের অভিযানে ফেনসিডিলসহ দুই য্বুককে আটক করা হয়েছে। তাদের কাছ থেকে ৩০ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার করা হয়েছে। আটককৃতরা হলো, চৌগাছা উপজেলার বর্ণি ধোপাপাড়ার আক্তারুল ইসলাম ও ঝিনাইদহ জেলার মহেশপুর উপজেলার বড়বাড়ি বাজারপাড়ার রকি মিয়া।

ডিবির ওসি রুপন কুমার সরকার জানান, তাদের কাছে খবর আসে চৌগাছার রাজাপুরে একটি চক্র মাদকের কারবার করছে। এ খবরের ভিত্তিতে এসআই রাজেশ কুমার দাশের নেতৃত্বে একটি টিম চৌগাছায় অভিযান চালায়। তারা রাজাপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সামনে থেকে ৩০ বোতল ফেনসিডিলসহ আক্তারুল ইসলাম ও রকি মিয়াকে আটক করে। এঘটনায় চৌগাছা থানায় মামলা হয়েছে।

যশোরে ৪টি প্রতিষ্ঠানকে ভোক্তা অধিকারের ৭০ হাজার টাকা জরিমানা

 জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষন অধিদপ্তর যশোর জেলা কার্যালয় অনিয়মের অভিযোগে অভিযান চালিয়ে ৪টি প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে ৭০ হাজার টাকা জরিমানা করে আদায় করেছে। অবৈধ প্রক্রিয়ায় খাদ্য উৎপাদনের অভিযোগে খাবার হোটেল সাতক্ষীরা প্লাসকে ভোক্তা অধিকার আইনের ৪৩ ধারায় ২৫ হাজার টাকা, একই অপরাধে প্যারাডাইস হোটেল এন্ড রেস্টুরেন্টকে ২০ হাজার টাকা, এবং ফিরিজিয়ান স্যাম্পল বিক্রির অভিযোগে মেডিসিন কর্নারকে ভোক্তা অধিকার আইনের ৩৭ ধারায় ১৫ হাজার টাকা একই অপরাধে শাহ ফার্মেসিকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করে আদায় করা হয়।

রোববার অভয়নগর উপজেলার নওয়াপাড়া বাজার এলাকায় অভিযান পরিচালনা করা হয়। অভিযানের নেতৃত্ব দেন জাতীয় ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর যশোরের সহকারি পরিচালক সৈয়দা তামান্না তাসনীম। অভিযানে উপস্থিত থেকে সার্বিক সহযোগিতা করেন ক্যাব সদস্য আব্দুর রকিব সরদার ও  জেলা পুলিশের একটি টিম। জনস্বার্থে এরুপ অভিযান অব্যাহত থাকবে।

যশোর শহরের শংকরপুর থেকে ককটেল সহ যুবক আটক

 যশোর শহরের শংকরপুর এলাকার জিসান ওরফে ভাগ্নি জিসানকে ৬টি ককটেল ও বিভিন্ন সরঞ্জামসহ আটক করেছে পুলিশ। রোববার তাদেরকে আদালতে সোপর্দ করা হলে বিচারক তাদেরকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন।

পুলিশ জানায়, গত ২৩ এপ্রিল মধ্যরাতে তাদের কাছে খবর আসে শংকরপুর চোপদারপাড়া এলাকায় একদল সন্ত্রাসী বিভিন্ন দেশি অস্ত্র ও বোমা নিয়ে অবস্থান করছেন এমন সংবাদের ভিত্তিতে তারা অভিযান চালায়। এসময় সন্ত্রাসীরা  পালিয়ে যায়। ঘটনাস্থল থেকে ছয়টি ককটেল ও বোমা তৈরির কিছু সরঞ্জাম উদ্ধার করা হয়।

এ ঘটনায় পাঁচজনের পাঁচজনের বিরুদ্ধে কোতোয়ালি থানায় মামলা করেন এসআই জয়ন্ত সরকার। অন্য আসামিরা হলেন, আসামিরা হলেন গাড়োয়ানপট্টির নুরুর ছেলে রাকিব, হাজারীগেটের মিন্টুর ছেলে তানভীর, কালিতলার কালু বাবুর ছেলে নিরব দেবনাথ ও শংকরপুর মহিলা মাদ্রাসা এলাকার আলী হোসেনের ছেলে আসিফ। এছাড়াও এ মামলায় আরও ৮/১০জনকে আসামি করা হয়। তদন্তে উঠে আসে জিসানও এ ঘটনার সাথে জড়িত ছিলেন।