মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বেলকুচিতে নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতা, ২ তাঁত ফ্যাক্টরিতে আগুন

সিরাজগঞ্জের বেলকুচিতে দুটি তাঁত কারখানায় অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটেছে। এতে প্রায় অর্ধকোটি টাকা ক্ষতি হয়েছে বলে মালিক পক্ষ দাবি করেছে। নিবার্চন পরবর্তী সহিংসতায় কারনে এমন ঘটনা ঘটাতে পারে বলে মনে করছেন ফ্যাক্টরি মালিক পক্ষ, তাদের ধারনা গত ৮ মে অনুষ্ঠিত দোয়াত কলম প্রতিকে নিবার্চন করায় এমন ঘটনা ঘটাতে পারে প্রতিপক্ষ। ফ্যাক্টরিতে থাকা ৩২ টা বিদ্যুতিক পাওয়ারলুমসহ দুটি ফ্যাক্টরি ঘর পুরে ভস্মীভূত হয়ে যায়’। এলাকাবাসী ও বেলকুচি ফায়ার সার্ভিসের ইউনিট প্রায় দুই ঘণ্টা চেষ্টার পর আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে।
ক্ষতিগ্রস্ত কারখানার মালিকের দাবি এতে তার প্রায় অর্ধকোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে। গত শুক্রবার রাতে বেলকুচি দৌলতপুর ইউনিয়নের আজুগড়া জামাতমোড় এলাকার হাজী মোতালেব মুন্সীর তাঁত ফ্যাক্টরিতে এ ঘটনা ঘটে। তবে কিভাবে অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটেছে তার সঠিক কারণ জানা যায়নি। এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, আনুমানিক রাত দেড়টায় হঠাৎ মোতালেব মুন্সীর বাড়ির তাঁত ফ্যাক্টরি ঘরে অগ্নিকান্ডের লেলিহান শিখা দেখতে পান। পরে বেলকুচি ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের কর্মীরা প্রায় দুই ঘণ্টা চেষ্টার পর আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন। বেলকুচি ফায়ার সার্ভিসের ষ্টেশন ইনচার্জ নাসির উদ্দিন বলেন, রাত দেড়টার দিকে খবর আসে আমরা খবর পাওয়ার মাত্র আমাদের ইউনিট নিয়ে ঘটনাস্থলে যাই।
প্রায় রাত ৪টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রনে আসে। প্রাথমিক ভাবে ধারনা করা হচ্ছে বিদ্যুতিক সটসার্কেট থেকে আগুনের সুত্রপাত হতে পারে। তবে কি ভাবে হয়েছে তা নিশ্চিত করতে তদন্ত করছে পুলিশ। এ ব্যাপারে বেলকুচি থানার ওসি আনিছুর রহমান জানান, আমরা ঘটনা জানার পর আমাদের ফোর্স নিয়ে উপস্থিত হই। ফায়ার সার্ভিস এসে দুই ঘন্টার চেস্টায় আগুন নিয়ন্ত্রনে আনে। আগুন কিভাবে লাগছে এখনো বোঝা যাচ্ছে না। ফ্যাক্টরি মালিক একটি অভিযোগ করেছে। তবে এখনই কত টাকার ক্ষতি হয়েছে তা বলা যাচ্ছে না। এটি তদন্ত করে জানা যাবে।’

বেলকুচিতে নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতা, ২ তাঁত ফ্যাক্টরিতে আগুন

প্রকাশের সময় : ০৮:১৮:২৩ অপরাহ্ন, শনিবার, ১১ মে ২০২৪
সিরাজগঞ্জের বেলকুচিতে দুটি তাঁত কারখানায় অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটেছে। এতে প্রায় অর্ধকোটি টাকা ক্ষতি হয়েছে বলে মালিক পক্ষ দাবি করেছে। নিবার্চন পরবর্তী সহিংসতায় কারনে এমন ঘটনা ঘটাতে পারে বলে মনে করছেন ফ্যাক্টরি মালিক পক্ষ, তাদের ধারনা গত ৮ মে অনুষ্ঠিত দোয়াত কলম প্রতিকে নিবার্চন করায় এমন ঘটনা ঘটাতে পারে প্রতিপক্ষ। ফ্যাক্টরিতে থাকা ৩২ টা বিদ্যুতিক পাওয়ারলুমসহ দুটি ফ্যাক্টরি ঘর পুরে ভস্মীভূত হয়ে যায়’। এলাকাবাসী ও বেলকুচি ফায়ার সার্ভিসের ইউনিট প্রায় দুই ঘণ্টা চেষ্টার পর আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে।
ক্ষতিগ্রস্ত কারখানার মালিকের দাবি এতে তার প্রায় অর্ধকোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে। গত শুক্রবার রাতে বেলকুচি দৌলতপুর ইউনিয়নের আজুগড়া জামাতমোড় এলাকার হাজী মোতালেব মুন্সীর তাঁত ফ্যাক্টরিতে এ ঘটনা ঘটে। তবে কিভাবে অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটেছে তার সঠিক কারণ জানা যায়নি। এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, আনুমানিক রাত দেড়টায় হঠাৎ মোতালেব মুন্সীর বাড়ির তাঁত ফ্যাক্টরি ঘরে অগ্নিকান্ডের লেলিহান শিখা দেখতে পান। পরে বেলকুচি ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের কর্মীরা প্রায় দুই ঘণ্টা চেষ্টার পর আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন। বেলকুচি ফায়ার সার্ভিসের ষ্টেশন ইনচার্জ নাসির উদ্দিন বলেন, রাত দেড়টার দিকে খবর আসে আমরা খবর পাওয়ার মাত্র আমাদের ইউনিট নিয়ে ঘটনাস্থলে যাই।
প্রায় রাত ৪টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রনে আসে। প্রাথমিক ভাবে ধারনা করা হচ্ছে বিদ্যুতিক সটসার্কেট থেকে আগুনের সুত্রপাত হতে পারে। তবে কি ভাবে হয়েছে তা নিশ্চিত করতে তদন্ত করছে পুলিশ। এ ব্যাপারে বেলকুচি থানার ওসি আনিছুর রহমান জানান, আমরা ঘটনা জানার পর আমাদের ফোর্স নিয়ে উপস্থিত হই। ফায়ার সার্ভিস এসে দুই ঘন্টার চেস্টায় আগুন নিয়ন্ত্রনে আনে। আগুন কিভাবে লাগছে এখনো বোঝা যাচ্ছে না। ফ্যাক্টরি মালিক একটি অভিযোগ করেছে। তবে এখনই কত টাকার ক্ষতি হয়েছে তা বলা যাচ্ছে না। এটি তদন্ত করে জানা যাবে।’