মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

পরীক্ষার ফল আশানুরূপ হয়নি? এভাবে সামলে নিন

ছবি-সংগৃহীত

পরীক্ষার আশানুরূপ ফল না হলে তা মানসিক চাপ এবং উদ্বেগ অনেকটা বাড়িয়ে দিতে পারে। বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি, বোর্ড পরীক্ষার ফলাফল বা অন্য কোনো উল্লেখযোগ্য পরীক্ষার ফলের ক্ষেত্রে এ ধরনের চাপ অপ্রতিরোধ্য হতে পারে। যাইহোক, মানসিক সুস্থতা বজায় রাখার জন্য এই চাপকে কার্যকরভাবে নিয়ন্ত্রণ করা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

১. আপনার অনুভূতি স্বীকার করুন

পরীক্ষার ফলাফল সম্পর্কে উদ্বিগ্ন বোধ করা স্বাভাবিক, তবে এই আবেগকে অস্বীকার বা দমন করলে তা মানসিক চাপকে তীব্র করতে পারে। এর পরিবর্তে আপনার অনুভূতি স্বীকার করুন এবং বুঝে নিন যে নার্ভাস হওয়া অস্বাভাবিক নয়। আবেগকে স্বীকৃতি দেওয়াটা হলো তা কার্যকরভাবে নিয়ন্ত্রণ করার প্রথম পদক্ষেপ।

২. ইতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গি

যদিও পরীক্ষার ফলাফল গুরুত্বপূর্ণ, তবে এটি আপনার মূল্য বা ভবিষ্যতের সাফল্যকে সংজ্ঞায়িত করে না। নিজেকে মনে করিয়ে দিন যে এগুলো আপনার একাডেমিক যাত্রার একটি দিক মাত্র। আপনার ক্ষমতা, দক্ষতা এবং শক্তি একটি একক পরীক্ষার মধ্যে সীমাবদ্ধ নয়। এই দৃষ্টিভঙ্গি আপনার মনে কিছু চাপ কমাতে সাহায্য করতে পারে।

৩. আপনি যা নিয়ন্ত্রণ করতে পারেন সেদিকে মনোযোগ দিন

আপনি যা পরিবর্তন করতে পারবেন না তা নিয়ে চিন্তা করার পরিবর্তে, আপনি যা নিয়ন্ত্রণ করতে পারেন তাতে মনোনিবেশ করুন। এর মধ্যে রয়েছে আপনার প্রস্তুতির প্রচেষ্টা, অধ্যয়নের অভ্যাস এবং শেখার প্রতি মনোভাব। সর্বোত্তম প্রচেষ্টা চালিয়ে যান এবং লক্ষ্যে নিবিষ্ট থাকুন। এতে আপনি আরও আত্মবিশ্বাসী বোধ করবেন।

৪. নিজের প্রতি সহানুভূতিশীল হোন

এই চাপের সময়ে নিজের প্রতি সদয় হোন। নিজেকে একই সহানুভূতি দেখান যা আপনি একই পরিস্থিতিতে একজন বন্ধুকে দেখাতেন। নিজেকে বোঝান যে ভুল করা অস্বাভাবিক কিছু নয় এবং ব্যর্থতা শেখার প্রক্রিয়ার একটি স্বাভাবিক অংশ।

৫. নেতিবাচক চিন্তা বাদ দিন

পরীক্ষার ফলাফল সম্পর্কে ক্রমাগত নেতিবাচক চিন্তাভাবনা উদ্বেগকে বাড়িয়ে তুলতে পারে। তাই যখনই নেতিবাচক চিন্তাভাবনা আসে তখনই আপনার মনোযোগ অন্যদিকে সরিয়ে দিন। ব্যায়াম, শখের কাজ বা প্রিয়জনের সাথে সময় কাটানোর মতো কাজগুলো করুন।

সূত্র-ঢাকাপোস্ট

পরীক্ষার ফল আশানুরূপ হয়নি? এভাবে সামলে নিন

প্রকাশের সময় : ১১:২৪:১৯ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৩ মে ২০২৪

পরীক্ষার আশানুরূপ ফল না হলে তা মানসিক চাপ এবং উদ্বেগ অনেকটা বাড়িয়ে দিতে পারে। বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি, বোর্ড পরীক্ষার ফলাফল বা অন্য কোনো উল্লেখযোগ্য পরীক্ষার ফলের ক্ষেত্রে এ ধরনের চাপ অপ্রতিরোধ্য হতে পারে। যাইহোক, মানসিক সুস্থতা বজায় রাখার জন্য এই চাপকে কার্যকরভাবে নিয়ন্ত্রণ করা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

১. আপনার অনুভূতি স্বীকার করুন

পরীক্ষার ফলাফল সম্পর্কে উদ্বিগ্ন বোধ করা স্বাভাবিক, তবে এই আবেগকে অস্বীকার বা দমন করলে তা মানসিক চাপকে তীব্র করতে পারে। এর পরিবর্তে আপনার অনুভূতি স্বীকার করুন এবং বুঝে নিন যে নার্ভাস হওয়া অস্বাভাবিক নয়। আবেগকে স্বীকৃতি দেওয়াটা হলো তা কার্যকরভাবে নিয়ন্ত্রণ করার প্রথম পদক্ষেপ।

২. ইতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গি

যদিও পরীক্ষার ফলাফল গুরুত্বপূর্ণ, তবে এটি আপনার মূল্য বা ভবিষ্যতের সাফল্যকে সংজ্ঞায়িত করে না। নিজেকে মনে করিয়ে দিন যে এগুলো আপনার একাডেমিক যাত্রার একটি দিক মাত্র। আপনার ক্ষমতা, দক্ষতা এবং শক্তি একটি একক পরীক্ষার মধ্যে সীমাবদ্ধ নয়। এই দৃষ্টিভঙ্গি আপনার মনে কিছু চাপ কমাতে সাহায্য করতে পারে।

৩. আপনি যা নিয়ন্ত্রণ করতে পারেন সেদিকে মনোযোগ দিন

আপনি যা পরিবর্তন করতে পারবেন না তা নিয়ে চিন্তা করার পরিবর্তে, আপনি যা নিয়ন্ত্রণ করতে পারেন তাতে মনোনিবেশ করুন। এর মধ্যে রয়েছে আপনার প্রস্তুতির প্রচেষ্টা, অধ্যয়নের অভ্যাস এবং শেখার প্রতি মনোভাব। সর্বোত্তম প্রচেষ্টা চালিয়ে যান এবং লক্ষ্যে নিবিষ্ট থাকুন। এতে আপনি আরও আত্মবিশ্বাসী বোধ করবেন।

৪. নিজের প্রতি সহানুভূতিশীল হোন

এই চাপের সময়ে নিজের প্রতি সদয় হোন। নিজেকে একই সহানুভূতি দেখান যা আপনি একই পরিস্থিতিতে একজন বন্ধুকে দেখাতেন। নিজেকে বোঝান যে ভুল করা অস্বাভাবিক কিছু নয় এবং ব্যর্থতা শেখার প্রক্রিয়ার একটি স্বাভাবিক অংশ।

৫. নেতিবাচক চিন্তা বাদ দিন

পরীক্ষার ফলাফল সম্পর্কে ক্রমাগত নেতিবাচক চিন্তাভাবনা উদ্বেগকে বাড়িয়ে তুলতে পারে। তাই যখনই নেতিবাচক চিন্তাভাবনা আসে তখনই আপনার মনোযোগ অন্যদিকে সরিয়ে দিন। ব্যায়াম, শখের কাজ বা প্রিয়জনের সাথে সময় কাটানোর মতো কাজগুলো করুন।

সূত্র-ঢাকাপোস্ট