সোমবার, ২৪ জুন ২০২৪, ১০ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সৌদিতে সাঁতারের পোশাকে নারী ফ্যাশন শো

ছবি: এএফপি

মধ্যপ্রাচ্যের রক্ষণশীল দেশ সৌদি আরবে প্রথমবারের মতো অনুষ্ঠিত হয়েছে নারীদের সুইমশ্যুট ফ্যাশন শো। সাঁতারের পোশাক পরে এতে অংশ নেন নারী মডেলরা। যে দেশে এক দশকেরও কম আগে নারীদের বোরকা পরা বাধ্যতামূলক ছিল, সেখানে এ রকম পদক্ষেপ অনেকের কাছেই অবাক করার মতো।

ফ্যাশন শোটি সৌদি আরবের পশ্চিম উপকূলে অবস্থিত সেন্ট রেজিস রেড সি রিসোর্টে রেড সি ফ্যাশন সপ্তাহের উদ্বোধনীর দ্বিতীয় দিনে অনুষ্ঠিত হয়। রিসোর্টটি রেড সি গ্লোবালের অংশ, যা সৌদি আরবের ভিশন ২০৩০ সামাজিক ও অর্থনৈতিক সংস্কার কর্মসূচির গিগা প্রকল্পগুলোর মধ্যে একটি। ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমানের তত্ত্বাবধানে প্রকল্পগুলো বাস্তবায়িত হচ্ছে।

মরক্কোর ডিজাইনার ইয়াসমিনা কানজালের কাজ নিয়ে এই পুলসাইড শোতে অধিকাংশই ছিল লাল, বাদামি ও নীল রঙের একটুকরা কাপড়। অধিকাংশ মডেলের কাঁধ উন্মুক্ত ছিল এবং কিছুর শরীরের মাঝের আংশিক দৃশ্যমান ছিল।

কানজাল বলেন, এটা সত্য যে এই দেশটি খুবই রক্ষণশীল। কিন্তু আমরা আরববিশ্বের প্রতিনিধিত্ব করা মার্জিত সাঁতারের পোশাক দেখানোর চেষ্টা করেছি।

তিনি আরো বলেন, যখন আমরা এখানে আসি, আমরা বুঝতে পারি যে সৌদি আরবে সুইমিংস্যুট ফ্যাশন শো একটি ঐতিহাসিক মুহূর্ত। কারণ দেশটিতে প্রথমবারের মতো এমন অনুষ্ঠান হচ্ছে।

শোতে যোগদানকারী সিরিয়ার ফ্যাশন ইনফ্লুয়েন্সার শৌক মোহাম্মদ বলেন, বিশ্বের কাছে সৌদি আরবের উন্মুক্ত হওয়ার এবং এর ফ্যাশন ও পর্যটন খাতে আকর্ষণ বৃদ্ধির প্রয়াস দেখে অবাক হওয়ার কিছু নেই।

এ আয়োজনে উপস্থিত ফরাসি প্রভাবশালী রাফায়েল সিমাকোর্বে বলেন, তিনি এ আয়োজনে ঝুঁকিপূর্ণ কিছু দেখছেন না। তবে সৌদির প্রেক্ষাপটে এটি একটি বড় অর্জন।

সৌদিতে সাঁতারের পোশাকে নারী ফ্যাশন শো

প্রকাশের সময় : ১১:২৭:৪৮ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৯ মে ২০২৪

মধ্যপ্রাচ্যের রক্ষণশীল দেশ সৌদি আরবে প্রথমবারের মতো অনুষ্ঠিত হয়েছে নারীদের সুইমশ্যুট ফ্যাশন শো। সাঁতারের পোশাক পরে এতে অংশ নেন নারী মডেলরা। যে দেশে এক দশকেরও কম আগে নারীদের বোরকা পরা বাধ্যতামূলক ছিল, সেখানে এ রকম পদক্ষেপ অনেকের কাছেই অবাক করার মতো।

ফ্যাশন শোটি সৌদি আরবের পশ্চিম উপকূলে অবস্থিত সেন্ট রেজিস রেড সি রিসোর্টে রেড সি ফ্যাশন সপ্তাহের উদ্বোধনীর দ্বিতীয় দিনে অনুষ্ঠিত হয়। রিসোর্টটি রেড সি গ্লোবালের অংশ, যা সৌদি আরবের ভিশন ২০৩০ সামাজিক ও অর্থনৈতিক সংস্কার কর্মসূচির গিগা প্রকল্পগুলোর মধ্যে একটি। ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমানের তত্ত্বাবধানে প্রকল্পগুলো বাস্তবায়িত হচ্ছে।

মরক্কোর ডিজাইনার ইয়াসমিনা কানজালের কাজ নিয়ে এই পুলসাইড শোতে অধিকাংশই ছিল লাল, বাদামি ও নীল রঙের একটুকরা কাপড়। অধিকাংশ মডেলের কাঁধ উন্মুক্ত ছিল এবং কিছুর শরীরের মাঝের আংশিক দৃশ্যমান ছিল।

কানজাল বলেন, এটা সত্য যে এই দেশটি খুবই রক্ষণশীল। কিন্তু আমরা আরববিশ্বের প্রতিনিধিত্ব করা মার্জিত সাঁতারের পোশাক দেখানোর চেষ্টা করেছি।

তিনি আরো বলেন, যখন আমরা এখানে আসি, আমরা বুঝতে পারি যে সৌদি আরবে সুইমিংস্যুট ফ্যাশন শো একটি ঐতিহাসিক মুহূর্ত। কারণ দেশটিতে প্রথমবারের মতো এমন অনুষ্ঠান হচ্ছে।

শোতে যোগদানকারী সিরিয়ার ফ্যাশন ইনফ্লুয়েন্সার শৌক মোহাম্মদ বলেন, বিশ্বের কাছে সৌদি আরবের উন্মুক্ত হওয়ার এবং এর ফ্যাশন ও পর্যটন খাতে আকর্ষণ বৃদ্ধির প্রয়াস দেখে অবাক হওয়ার কিছু নেই।

এ আয়োজনে উপস্থিত ফরাসি প্রভাবশালী রাফায়েল সিমাকোর্বে বলেন, তিনি এ আয়োজনে ঝুঁকিপূর্ণ কিছু দেখছেন না। তবে সৌদির প্রেক্ষাপটে এটি একটি বড় অর্জন।