মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ৪ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

উপজেলা চেয়ারম্যান হিসেবে জুয়েলকে দেখতে চায় যশোরবাসী

যশোর সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী মো. শফিকুল ইসলাম জুয়েল।

আগামী ২৯ মে অনুষ্ঠিত হবে যশোর সদর উপজেলা পরিষদের নির্বাচন। নির্বাচন উপলক্ষে সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী হিসাবে সকল জনগনের কাছে দোয়া ও সমর্থন চেয়েছেন বিশিষ্ট সমাজসেবক ও সাবেক ছাত্রলীগ নেতা মো. শফিকুল ইসলাম জুয়েল। তিনি আসন্ন নির্বাচনে কাপ-পিরিচ প্রতীক নিয়ে লড়বেন।

তিনি যশোর সদর উপজেলার ৪ নং ওয়ার্ডের (পুরাতন কসবা) বীর মুক্তিযোদ্ধা রফিকুল ইসলাম টুকু শেখের ছেলে। মা ছিলেন যশোর পৌরসভার ৪-৫-৬ নম্বর ওয়ার্ডের সাবেক মহিলা কমিশনার। বর্তমান তার বোন নাসিমা আক্তার ৪-৫-৬ নম্বর ওয়ার্ডের মহিলা কাউন্সিলর। শফিকুল ইসলাম জুয়েল সাবেক যশোর জেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ছিলেন।

প্রবীণ ভোটার মোশারেফ হোসেন বলেন, জুয়েল আমাদের এলাকার ছেলে। ছাত্রজীবন থেকেই তিনি আওয়ামী লীগের রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডে সম্পৃক্ত ছিলেন এবং এখনও আছেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতকে তৃণমূলে শক্তিশালী করার লক্ষ্যে নিরলসভাবে কাজ করে চলেছেন তিনি। ছাত্র জীবন থেকেই নেতৃত্বের সকল গুনের অধিকারী মানবিক এই ছাত্র নেতা,  ছাত্র জীবন থেকেই জনগনের সেবা করে আসছেন। এলাকাবাসীসহ সুশীল সমাজ… ক্লিন ইমেজের শিক্ষিত জুয়েলকে আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান হিসেবে দেখতে চায়।মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী মানবিক নেতা দলমত নির্বিশেষে সকল মানুষের আস্থা ও ভালবাসার ব্যক্তিত্ব মো. শফিকুল ইসলাম জুয়েল।

তিনি আরও বলেন, করোনা মহামারির সময় এলাকার মানুষের মাঝে খাদ্যসহ বিভিন্ন প্রয়োজনীয় সামগ্রী বিতরন করেছেন, শীতকালে দরিদ্র ও অসহায় মানুষদের কম্বল বিতরনসহ নানা দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন জুয়েল।

শফিকুল ইসলাম জুয়েল বলেন, এলাকার সামাজিক ও শিক্ষামূলক কর্মকাণ্ডে ভূমিকা পালনসহ এলাকাবাসীর মধ্যে আত্মনির্ভরশীলতার জন্য সচেতনতা বৃদ্ধি, গরিব-অসহায়, মেধাবী ছাত্রছাত্রীদের পড়ালেখা চালিয়ে যেতে সহায়তা প্রদান করছি। ধর্মীয় উৎসব, প্রাকৃতিক দুর্যোগে অসহায়-গরিবদের মাঝে বিভিন্ন সহযোগিতাসহ সেবামূলক কাজ অব্যাহত আছে। আসন্ন সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে তিনি সবার দোয়া ও সমর্থন প্রত্যাশী।

বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যা শেখ হাসিনা সরকারের ব্যাপক উন্নয়নের চিত্র তুলে ধরে তিনি বলেন, মানুষের জীবন যাত্রার মান উন্নত হয়েছে, দেশে উন্নয়নের জোয়ার বইছে বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যা গর্ভকালীন ভাতা, বয়স্ক ভাতাসহ বিভিন্ন ভাবেই দেশের মানুষের উন্নয়নের জন্য কাজ করেছেন। বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যার নেতৃত্বে বাংলাদেশের উন্নয়নের কথা বলে শেষ করা যাবে না। তাইতো এদেশের মানুষ আবারও জননেত্রী শেখ হাসিনা সরকারকেই ভোট দিয়ে ক্ষমতায় এনেছেন।

তিনি আরও বলেন, আমি যশোরের ছেলে আমি যদি সদর উপজেলার প্রতিনিধিত্ব করতে পারি, জনগন যদি আমাকে সুযোগ দেন তাহলে আমি সদর উপজেলার মানুষের জন্য কাজ করতে চাই এবং জনগণের সেবক হিসাবে পাশে থেকে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করাব অঙ্গিকার করছি।

এলাকার জনগনের উদ্যেশে তিনি বলেন, আমি সর্বসাধারণের সেবক হতে চাই। সকল সামাজিক সমস্যা দূরীকরণে সর্বদা জনগণের পাশে থাকবো। আমি কথার মাধ্যমে নয়, আমার কাজের মাধ্যমে এলাকার জণগণের সেবা করার প্রয়াস নিয়ে এগিয়ে যাব ইনশাআল্লাহ।

উপজেলা চেয়ারম্যান হিসেবে জুয়েলকে দেখতে চায় যশোরবাসী

প্রকাশের সময় : ০৬:২৭:৩৫ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৯ মে ২০২৪

আগামী ২৯ মে অনুষ্ঠিত হবে যশোর সদর উপজেলা পরিষদের নির্বাচন। নির্বাচন উপলক্ষে সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী হিসাবে সকল জনগনের কাছে দোয়া ও সমর্থন চেয়েছেন বিশিষ্ট সমাজসেবক ও সাবেক ছাত্রলীগ নেতা মো. শফিকুল ইসলাম জুয়েল। তিনি আসন্ন নির্বাচনে কাপ-পিরিচ প্রতীক নিয়ে লড়বেন।

তিনি যশোর সদর উপজেলার ৪ নং ওয়ার্ডের (পুরাতন কসবা) বীর মুক্তিযোদ্ধা রফিকুল ইসলাম টুকু শেখের ছেলে। মা ছিলেন যশোর পৌরসভার ৪-৫-৬ নম্বর ওয়ার্ডের সাবেক মহিলা কমিশনার। বর্তমান তার বোন নাসিমা আক্তার ৪-৫-৬ নম্বর ওয়ার্ডের মহিলা কাউন্সিলর। শফিকুল ইসলাম জুয়েল সাবেক যশোর জেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ছিলেন।

প্রবীণ ভোটার মোশারেফ হোসেন বলেন, জুয়েল আমাদের এলাকার ছেলে। ছাত্রজীবন থেকেই তিনি আওয়ামী লীগের রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডে সম্পৃক্ত ছিলেন এবং এখনও আছেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতকে তৃণমূলে শক্তিশালী করার লক্ষ্যে নিরলসভাবে কাজ করে চলেছেন তিনি। ছাত্র জীবন থেকেই নেতৃত্বের সকল গুনের অধিকারী মানবিক এই ছাত্র নেতা,  ছাত্র জীবন থেকেই জনগনের সেবা করে আসছেন। এলাকাবাসীসহ সুশীল সমাজ… ক্লিন ইমেজের শিক্ষিত জুয়েলকে আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান হিসেবে দেখতে চায়।মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিশ্বাসী মানবিক নেতা দলমত নির্বিশেষে সকল মানুষের আস্থা ও ভালবাসার ব্যক্তিত্ব মো. শফিকুল ইসলাম জুয়েল।

তিনি আরও বলেন, করোনা মহামারির সময় এলাকার মানুষের মাঝে খাদ্যসহ বিভিন্ন প্রয়োজনীয় সামগ্রী বিতরন করেছেন, শীতকালে দরিদ্র ও অসহায় মানুষদের কম্বল বিতরনসহ নানা দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন জুয়েল।

শফিকুল ইসলাম জুয়েল বলেন, এলাকার সামাজিক ও শিক্ষামূলক কর্মকাণ্ডে ভূমিকা পালনসহ এলাকাবাসীর মধ্যে আত্মনির্ভরশীলতার জন্য সচেতনতা বৃদ্ধি, গরিব-অসহায়, মেধাবী ছাত্রছাত্রীদের পড়ালেখা চালিয়ে যেতে সহায়তা প্রদান করছি। ধর্মীয় উৎসব, প্রাকৃতিক দুর্যোগে অসহায়-গরিবদের মাঝে বিভিন্ন সহযোগিতাসহ সেবামূলক কাজ অব্যাহত আছে। আসন্ন সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে তিনি সবার দোয়া ও সমর্থন প্রত্যাশী।

বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যা শেখ হাসিনা সরকারের ব্যাপক উন্নয়নের চিত্র তুলে ধরে তিনি বলেন, মানুষের জীবন যাত্রার মান উন্নত হয়েছে, দেশে উন্নয়নের জোয়ার বইছে বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যা গর্ভকালীন ভাতা, বয়স্ক ভাতাসহ বিভিন্ন ভাবেই দেশের মানুষের উন্নয়নের জন্য কাজ করেছেন। বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যার নেতৃত্বে বাংলাদেশের উন্নয়নের কথা বলে শেষ করা যাবে না। তাইতো এদেশের মানুষ আবারও জননেত্রী শেখ হাসিনা সরকারকেই ভোট দিয়ে ক্ষমতায় এনেছেন।

তিনি আরও বলেন, আমি যশোরের ছেলে আমি যদি সদর উপজেলার প্রতিনিধিত্ব করতে পারি, জনগন যদি আমাকে সুযোগ দেন তাহলে আমি সদর উপজেলার মানুষের জন্য কাজ করতে চাই এবং জনগণের সেবক হিসাবে পাশে থেকে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করাব অঙ্গিকার করছি।

এলাকার জনগনের উদ্যেশে তিনি বলেন, আমি সর্বসাধারণের সেবক হতে চাই। সকল সামাজিক সমস্যা দূরীকরণে সর্বদা জনগণের পাশে থাকবো। আমি কথার মাধ্যমে নয়, আমার কাজের মাধ্যমে এলাকার জণগণের সেবা করার প্রয়াস নিয়ে এগিয়ে যাব ইনশাআল্লাহ।