মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ৪ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

৫টি নিয়ম মেনে চলি, সবুজ যশোর গড়ে তুলি’ ক্যাম্পেইন শুরু যনাস’র

৫টি নিয়ম মেনে চলি, চলুন সবুজ যশোর গড়ে তুলি’। এই শ্লোগানে পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় গাছ রোপণে উদ্বুদ্ধ করতে ক্যাম্পেইন শুরু করেছে যশোর নাগরিক সংঘ (যনাস)। রোববার সকালে সরকারি মাইকেল মধুসূদন কলেজ ক্যাম্পাস থেকে ক্যাম্পেইনটি শুরু হয়।

কলেজ প্রাঙ্গণে একটি ফল গাছের চারা রোপণের মধ্যে দিয়ে প্রধান অতিথি হিসেবে ক্যাম্পেইনটির উদ্বোধন ঘোষণা করেন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানটির অধ্যক্ষ প্রফেসর মর্জিনা আক্তার। বিশেষ অতিথি ছিলেন প্রবীণ সাংবাদিক বীরমুক্তিযোদ্ধা রুকুনউদৌলাহ্ ও কলেজটির শিক্ষক পরিষদের সম্পাদক অধ্যাপক মদন কুমার সাহা।

এ ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন যশোর নাগরিক সংঘের সমন্বয়ক আলী আজম টিটো, সদস্য আহাদ আলী মুন্না, সালমান হাসান রাজিব প্রমুখ।

যশোর নাগরিক সংঘ সূত্র জানায়, তাপপ্রবাহ থেকে বাঁচতে ও পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় ৫টি নিয়ম মেনে চলার আহবান জানিয়ে কয়েক মাসব্যাপী এই ক্যাম্পেইন চলবে। মেনে চলার জন্য আহবান জানানো ৫টি নিয়মের মধ্যে রয়েছেÑ এক বিন্দু পানি অপচয় না করা। পাথুরে চুন, আঠা, হোয়াইট সিমেন্ট ও জিঙ্ক অক্সাইড দিয়ে প্রতিটি বাড়ির ছাদ সাদা করা। প্রতিটি বাড়ির ছাদ ও বারান্দা গাছাপালা দিয়ে ছেয়ে ফেলা। ছাদ থেকে লতানো গাছ ঝুলিয়ে দেয়াল ঢেকে দেয়া। মরুভূমি হয়ে যাওয়া হাইওয়েগুলো আবার সবুজে ভরে ফেলা। যশোর বৃক্ষ ব্যাংকে গাছ জমা দেয়া ও সবুজ যশোর বৃক্ষ ব্যাংক থেকে রোপণের জন্য গাছের চারা নেয়া।

ঘূর্ণিঝড় ‘রিমেল’ মোকাবেলায় যশোর স্বাস্থ্য বিভাগের সেচ্ছাসেবী টিম প্রস্তুত

ঘুর্ণিঝড় ‘রোমেল’ মোকাবেলায় স্বাস্থ্যসেবা নিয়ে সকল ধরণের প্রস্তুতি গ্রহন করেছে যশোর জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ। যশোরের ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা.নাজমুস সাদিক এ তথ্য জানান।

তিনি জানান, জেলার সকল স্বাস্থ্যসেবা প্রতিষ্ঠানে একটি করে মেডিকেল টিম। এর মধ্যে জেলা হাসপাতালসহ ৮ উপজেলায় ৮টি মেডিকেল টিম প্রস্তুত করা হয়েছে। একই সাথে সব স্বাস্থ্য সেবা প্রতিষ্ঠানে অতিরিক্ত ১ থেকে ২ জন করে অতিরিক্ত জনবল নিযুক্ত করা হয়েছে। একইসাথে জেলার সার্বিক পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণের জন্য কন্ট্রোল রুম চালু করা হয়েছে।

ডেপুটি সিভিল সার্জন নাজমুস সাদিক আরও জানান, ঘূর্ণিঝড় মোকাবেলায় সিভিল সার্জন অফিসের পক্ষ থেকে খাবার স্যালাইনসহ জরুরি প্রতিরোধ ও প্রতিষেধক ওষুধ ও উপকরণ পর্যাপ্ত মজুত করা হয়েছে। প্রয়োজনীয় সংখ্যক পানি বিশুদ্ধকরণ ট্যাবলেট এবং সাপে কাপড় দেওয়া রোগীর জন্য প্রয়োজনীয় সংখ্যক অ্যান্টিভেনম মজুত রাখতে সংশ্লিষ্ট স্বাস্থ্যসেবা প্রতিষ্ঠান সমূহকে ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছে। স্বাস্থ্য পরিদর্শক, সহকারী স্বাস্থ্য পরিদর্শক, স্বাস্থ্য সহকারীসহ অন্যান্য মাঠকর্মীদের নিজ নিজ এলাকায় সতর্কভাবে অবস্থান করে পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণের নির্দেশ প্রদান করা হয়েছে এবং যেকোনো জরুরি পরিস্থিতিতে ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ প্রদান করা হয়েছে।

তিনি জানান, কমিউনিটি ক্লিনিক, ইউনিয়ন স্বাস্থ্যকেন্দ্র ও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সগুলোতে চলমান সার্বক্ষণিক চিকিৎসা সেবা নিশ্চিত করার পাশাপাশি জরুরি পরিস্থিতির জন্য প্রস্তুতি নিতে বলা হয়েছে। যেকোনো স্বাস্থ্যগত ঝুকি বা সমস্যায় নিকটস্থ স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্রের সহযোগিতা গ্রহনের জন্য অনুরোধ জানানো হচ্ছে।

এদিকে যশোর রেড ক্রিসেন্টের সাধারণ সম্পাদক ও প্রেসক্লাব যশোরের সভাপতি জাহিদ হাসান টোকন জানান, ঘূর্ণিঝড় ‘রোমেল’ মোকাবেলায় জেলা প্রশাসনের সাথে রেডক্রিসেন্ট যশোর টিম সকল প্রস্তুতি গ্রহন করেছে। জেলা জুড়ে ১০০ জন ভলান্টিয়ার প্রস্তুত রয়েছে। পাশাপাশি আনুষাঙ্গিক সরঞ্জাম প্রস্তুত করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, এর আগে ২০২০ সালে ২০মে প্রলয়ঙ্কারী ঘূর্ণিঝড় আম্পানে ঘরের ওপর গাছ পড়ে যশোরে মা-মেয়েসহ ১২ জনের মৃত্যু হয়েছিল। যশোরের বিভিন্ন উপজেলায় এই দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত ব্যক্তিদের মধ্যে যশোরের শার্শা উপজেলায় চারজন, চৌগাছায় দুজন, বাঘারপাড়ার একজন ও মণিরামপুর উপজেলার পাঁচজন ছিলেন।

যশোরে ৫ জনের বিরুদ্ধে৭০ লাখ টাকা প্রতারণার  মামলা

যশোরে ৭০ লাখ টাকা ধার নিয়ে না দিয়ে প্রতারণার করার অভিযোগে সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রে কোতয়ালী আমলী আদালতে মামলা হয়েছে। মামলায় তিন ভাইসহ ৫ জনকে আসামি করা হয়েছে। মামলার আসামিরা হলো,যশোর শহরের সিটি কলেজ পাড়ার বলায় চন্দ্রকরের ছেলে তারক চন্দ্রকর,গোবিন্দ কর, বিশ্বজিৎ কর,একই এলাকার বলায় চন্দ্র করের ছেলে করুনা হুই, রিপন হুই। তাদের গ্রামের বাড়ি বাগেরহাটের চিতলমারী থানার দুর্গাপুর গ্রামে।

মামলাটি করেছেন, যশোর শহরের ষষ্ঠিতলাপাড়ার বিপি রোডের মৃত আব্দুস সাত্তারের ছেলে নিজাম উদ্দিন অমিত।

মামলায় অমিত উল্লেখ করেছেন,২০২৩ সালের ৫ নভেম্বর ৩শ টাকার ননজুডিসিয়াল স্ট্যাম্পে একটি অঙ্গীকার নামায় স্বাক্ষর করে ৭০ লাখ টাকা ধার গ্রহণের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। ৩০ নভেম্বর তারক চন্দ্রকর, গোবিন্দ কর, বিশ্বজিৎ কর ৭০ লাখ টাকা ধারণ গ্রহণ করেন।

এরপর নির্ধারিত সময়ে তারা টাকা পরিশোধ না করে ঘোরাতে থাকে। এক পর্যায়ে ২০২৪ সালের ২ ফেব্রুয়ারি তাদের বাসায় ডেকে নিয়ে ধার দেওয়া টাকা চান। সেখানে তারা টাকা দিতে পারবে না বলে চলে যায়। এরপর তারা টাকা না দেয়ায় যশোর আদালতে মামলা করেন।

মামলার আইনজীবী আবু মোর্তজা ছোট জানান,৭০ লাখ টাকা ধার নিয়ে না দিয়ে প্রতারণা করার অভিযোগে আদালতে মামলা হয়েছে। যার নম্বর জিআর ১২৪২/২৪,  মামলার পরবর্তী ধার্য্য তারিখ চলতি বছরের ২৫ আগস্ট।

যশোরে সাংবাদিকের ফুফুর মৃত্যু আজ জানাজা ও দাফন 

দৈনিক সমাজের কথার স্টাফ রিপোর্টার ওসাংবাদিক ইউনিয়ন যশোরের সদস্য এস হাশমী সাজুর বড় ফুফু সৈয়দা নাজ হাশমী হৃদরোগসহ বার্ধক্য জনিত রোগে  আক্রান্ত হয়ে আজ রোববার সন্ধ্যায়  যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হসপিটালের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইন্তেকাল করেছেন (ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন) মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল (৬৭)বছর। তিনি তিন পুত্র ও এক কন্যা সন্তান সহ অসংখ্য আত্মীয়-স্বজন রেখে গেছেন। সোমবার সকাল ৯ টায় মরহুমার  নামাজের জানাজা রেলগেট নিজস্ব বাড়ির সামনে অনুষ্ঠিত হবে। পরে কারবালা গোরস্থানে তাকে দাফন করা হবে।

বিদ্রোহি কবির সাহসী উচ্চারণ এখন গোটা বিশ্বময়

বিদ্রোহি কবি কাজী নজরুল ইসলামের ১২৫ তম জন্মজয়ন্তী উপলক্ষে অগ্নিবীণা কেন্দ্রীয় সংসদ যশোর আয়োজিত আলোচন সভায় আলোচকরা বলেছেন বৃটিশ ঔপনিবেশিক শক্তি ও তাদের দোসররা কেঁপে উঠেছিল বিদ্রোহী কবির নজরুল ইসলামের অগ্নিঝরা লেখায়। আতংকে কেঁপে উঠেছিল বৃটিশরাজের তখ্তে-তাউস। সকল ধর্ম বর্ণ নির্বিশেষে মিলে মিশে একাকার হয়ে গেছে তার ক্ষুরধার লেখনীতে। কাজী নজরুল ইসলাম সকল অনাচারের বিরুদ্ধে যুগে যুগে বিরাজমান। স্ইে নজরুল চেতনাকে দেশ জাতি তথা বিশ্বময় ছড়িয়ে দিতে “অগ্নিবীণা” কাজ শুরু করে যাচেছ।

 বিকেল সাড়ে ৫ টায় যশোরের বি সরকার মেমোরিয়াল হলে আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে প্রধান আলোচক ছিলেন বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ প্রফেসর ডক্টর মুস্তাফিজুর রহমান, সংগঠনের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আতাহার রহমানের সভাপতিত্বে আরো আলোচনা করেন যশোর শিক্ষা বোর্ডের সাবেক উপ সচিব আব্দুল খালেক, অগ্নিবীণার সহসভাপতি শিক্ষক নেতা নজরুল ইসলাম বুলবুল অ্যাডভেকেট আফরোজা বেগম, স্বাগত বক্তব্য দেন অগ্নিবীণার সাধারণন সম্পাদক রুমানা খান চৌধুরী, নতুন খয়েরতলা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারি প্রধান শিক্ষক জিল্লুর রহমান প্রমূখ।

আলোচকরা বলেন, বিদ্রোহি কবির অকুণ্ঠ সাহসী উচ্চারণ এখন গোটা বিশ্বময়Ñ‘আমি চির বিদ্রোহী বীর,/ বিশ্ব ছাড়ায়ে উঠিয়াছি একা, চির-উন্নত শির। বৃটিশ শাষকরা কবি নজরুল নামে ‘রাজদ্রোহের’ মামলা, অতঃপর এক বছরের সশ্র্রম কারাদন্ড দিয়ে ‘বিদ্রোহীকে’ জেলে আটকিয়ে রক্ষা পেতে চাইলেন। অন্যায়ের বিরুদ্ধে সব সময় সোচ্চার ছিলেন তিনি। নজরুল চর্চা বাড়ানোর উপর জোর দেন তারা।

অনুষ্ঠানে নজরুল সংগীত পরিবেশন করেন শফিকুল ইসলাম নাসিমা ফেরদৌসী, রুমানা খান চৌধুরী, কতুব উদ্দিন বিশ্বাস, আমিনুল ইসলাম লাভলু, লাভলী ঘোষ, শারমিন সুলতানা, ফাতেমা পারভীন,আব্দুস সাত্তার প্রমূখ।

আলোচনার পর নজরুলের উপর বিভিন্ন প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ করা হয়।  শেষে  কাজী নজরুল ইসলামের জীবন অবলম্বনে নাটক ঝিলমিল মঞ্চস্থ করা হয়। অনুষ্ঠান সাজসজজা ও নাটক পরিচানায় ছিলেন অগ্নিবীণার নাট্য সম্পাদক  স্বপন দাশ।

বেনাপোলে সাড়ে ৫শ বোতল ফেনসিডিল সহ ২ জনকে আটক করেছে র‌্যাব

র‌্যাব-৬ যশোরের সদস্যরা বেনাপোলে আলাদা অভিযানে প্রাায় সাড়ে ৫শ’ ফেনসিডিলসহ দুইজনকে আটক করেছে। একটি অভিযানে গোয়ালঘর থেকে ফেনসিডিল উদ্ধার হয়েছে। অপর একটি অভিযানে খঁড়ের গাদার ভেতর থেকে ফেনসিডিল উদ্ধার করা হয়েছে।

অন্যদিকে মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের সদস্যরা গাঁজাসহ এক বৃদ্ধ মাদক কারবারীকে আটক করেছে।

র‌্যাব জানিয়েছে, শনিবার বেলা পৌনে ১১টার দিকে বেনাপোলের উত্তর বোরোপোতা গ্রামের আব্দুস সাত্তারের মাদক ব্যবসায়ী ছেলে রাজু আহমেদ সুমনকে (২৪) আটক করা হয়। পরে তার স্বীকারোক্তি মোতাবেক তার গোয়াল ঘরে বিশেষ কায়দায় লুকিয়ে রাখা ৩৭৫ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার করা হয়।

অন্য এক অভিযানে শনিবার বেলা ১১টার দিকে পুটখালীর দৌলতপুর গ্রামের আইয়ুব আলীর ছেলে রহমাত মোল্লা (৩৫) নামে এক মাদক কারকারীকে আটক করা হয়। পরে তার দেখানো মতে বাড়ির ভেতর খড়ের গাঁদার ভেতর থেকে ১৬৮ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার করা হয়।

অন্যদিকে মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের উপপরিদর্শক এসএম শাহীন পারভেজ জানিয়েছেন,  সদর উপজেলার হামিদপুর মোড় থেকে ৬শ গ্রাম গাঁজাসহ তাজেম মৃধা (৬০) নামে এক ব্যক্তিকে আটক করা হয়। তিনি বেনাপোল পোর্ট থানাস্থ দিঘিরপাড় গ্রামের মৃত সাহেদ আলী মৃধার ছেলে।

যশোরে ক্যাফে প্রেসক্লাবের ম্যানেজারের পকেট থেকে ৭০ হাজার টাকা ছিনতা্ই

যশোরের ক্যাফে প্রেসক্লাবের ম্যানেজারের কাছ থেকে কৌশলে ৭০ হাজার টাকা হাতিয়ে নিয়েছে ইজিবাইকে থাকা যাত্রীবেশী এক টানাবাজ। এই ঘটনায় কোতয়ালি থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দেয়া হয়েছে। কিন্তু এখনো পর্যন্ত পুলিশ কোন ব্যবস্থা গ্রহণ করেনি।

মানেজার শহরের পুরাতন কসবা রায়পাড়ার বাসিন্দা মোজাম্মেল হোসেন অভিযোগপত্রে উল্লেখ করেছেন, গত ২৩ মে বেলা ১১টার দিকে প্রতিষ্ঠান থেকে নগদ ৭০ হাজার টাকা নিয়ে এমকে রোডস্থ ফাস্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংকের জমা দেয়ার জন্য একটি ইজিবাইকে উঠেন। সে সময় অজ্ঞাত এক যুবক মনিহার এলাকায় যাবে বলে উঠে। পোস্ট অফিসের সামনে পৌছালে অজ্ঞাত ওই যুবক ইজিবাইকের খোলা হাতলটি লাগিয়ে দিতে বলেন। তিনি সরল বিশ্বাসের হাতলা লাগিয়ে দেন। পরে ইজিবাইকটি তসবীর মহলের সামনে পৌছালে ওই যুবক ইজিবাইক থেকে নেমে যায়। পরে তিনি পরে পকেটে হাত দিয়ে দেখেন তার টাকা নেই। সাথে সাথে নেমে অনেক খোঁজাখুঁজি করে দানাবাজ পকেটমার ওই যুবককে আর খুঁজে পাননি। আশেপাশে ও বিভিন্ন দিকে খোঁজখবর নেন। কিন্তু ওই যুবককের দেখা পাননি।  তার ধারনা  যাত্রীবেশী ওই টানাবাজ যুবক তার পকেট থেকে কৌশলে টাকা হাতিয়ে নিয়ে সটকে পড়েছে।

ঘটনার দিন এই বিষয়ে যশোর কোতোয়ালি মডেল থানায় একটি অভিযোগ দেয়া হয়। অভিযোগটি যশোর শহরে গাড়িখানার পুরাতন কসবা পুলিশ ফাঁড়ির দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে তদন্ত করতে। কিন্তু গত কয়েকদিন ধরে পুলিশ এই বিষয়ে কোন ব্যবস্থা গ্রহণ করতে এগিয়ে আসেনি। বা ঘটনাস্থল তদন্ত করতে ও ও অভিযোগকারী বক্তব্য গ্রহণ করেননি।

যশোরে যৌতুকের দাবিতে গৃহবধূকে মারপিট মামলা স্বামী আটক

যশোরে যৌতুকের দাবিতে স্ত্রীকে মারপিটের ঘটনায় স্বামীকে আটক করেছে কোতোয়ালি থানা পুলিশ। আটক স্বামী ইকরামুল হক তুহিন যশোর শহরের বকচর এলাকার বাসিন্দা। এ ঘটনায় স্ত্রী নীলগঞ্জ সুপারী বাগান এলাকার লিমা খাতুন তার স্বামী তুহিন ও ননদ মিনু বেগমের বিরুদ্ধে কোতোয়ালি থানায় মামলা করেছেন।

মামলায় উল্লেখ করেছেন, ২০২৩ সালের ৭ ডিসেম্বর ১৫ লাখ টাকা দেনমোহরে তুহিনের সাথে বিয়ে হয়। এরমধ্যে তুহিন তার ভরণ পোষন দেয়া বন্ধ করে দেয়। যৌতুক দাবি করে তাকে মারপিট শুরু করে এবং খুন জখমের হুমকি দেয়। এক পর্যায় বাধ্য হয়ে লিমা তার পরিবারের কাছ থেকে দুই লাখ টাকা এনে দেয় তুহিনকে। এরপর আরও দুই লাখ টাকা দাবি করে তুহিন। টাকা দিতে অপরাগতা প্রকাশ করলে গত ২৫ মে বিকেলে ননদ মিনু বেগমের উস্কানিতে তুহিন কাঠের লাঠি দিয়ে বেধড়ক মারপিট করে। এসময় তার শরীরের বিভিন্ন স্থানে জখম হয়। পরে আশপাশের লোকজন এসে লিমাকে উদ্ধার করে যশোর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে। পরবর্তিতে তিনি থানায় আশ্রয় নেন।

এ বিষয়ে কোতোয়ালি থানার এসআই শরীফ আল মামুন বলেন, ঘটনার সত্যতা পেয়ে শনিবার মধ্য রাতে তুহিনের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করা হয়। পরে রোববার তাকে আদালতে সোপর্দ করা হয়।

যশোরের শার্শায় আওয়ামী লীগের কার্যালয় ভাঙচুর, চেয়ারম্যানসহ ১৭ জনের বিরুদ্ধে মামলা

যশোরের শার্শার গোগা আওয়ামী লীগের কার্যালয় ভাঙচুর ও মারধরের অভিযোগে সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুর রশিদসহ ১৭ জনের বিরুদ্ধে রোববার আদালতে মামলা হয়েছে। উপজেলার অগ্রভুলট গ্রামের মৃত পীর আলীর ছেলে গোগা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সদস্য শাহাজান আলী মামলাটি করেছেন। জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. ইমরান আহম্মেদ অভিযোগের তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য শার্শা থানা পুলিশের ওসিকে আদেশ দিয়েছেন।

আসামিরা হচ্ছে  শার্শা উপজেলার গোগা ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুর রশিদ, গোগা পূর্ব গ্রামের রহমত আলী, কালিয়ানী গ্রামের জসিম উদ্দীন, গোগা পূর্ব গ্রামের রায়হান কবির রানা, আমলাই গ্রামের শামছুজ্জামান বুলু, শরিফুল ইসলাম, সেতাই গ্রামের কামরুল ইসলাম, হরিশচন্দ্রপুর গ্রামের জোবাইদুর রহমান শান্টু, অমিত হাসান, আব্দুল ওহাব, অগ্রভুলট গ্রামের ইদ্রিস আলী, গোগা পূর্ব গ্রামের জুলফিকার আলী, গোগা গ্রামের মিজানুর রহমান, কালিয়ানী গ্রামের জুলফিকার আলী ভুট্টা, গোগা পূর্ব গ্রামের মিজানুর রহমান, আমলাই গ্রামের ইমানুর রহমান ও  অগ্রভুলট গ্রামের শাহাজান আলী।

মামলায়  শাহাজান আলী উল্লেখ করেছেন, স্থানীয় বল ফিল্ডের পাশে গোগা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের কার্যালয়টি অবস্থিত। উল্লিখিত আসামিরা কার্যালয়টি জবর দখলসহ ভাঙচুরের জন্য বেশ কিছুদিন ধরে হুমকি দিয়ে আসছিলেন। গত ১৫ মে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে দলীয় কর্মী মোহাম্মদ আলী, সহিদুল, নবীছ উদ্দীন, মনির হোসেন, আব্দুল মজিদ ও বাবুল মেম্বার কার্যালয়ে বসে সাংগঠনিক আলাপ আলোচনা করছিলেন। এ সময় আসামি আব্দুর রশিদের হুকুমে অন্য আসামিরা দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে জোরপূর্বক কার্যালয়ে ঢুকে ব্যাপক ভাঙচুর করেন। ক্ষয়ক্ষতির পরিমান প্রায় ৯০ হাজার টাকা।

৫টি নিয়ম মেনে চলি, সবুজ যশোর গড়ে তুলি’ ক্যাম্পেইন শুরু যনাস’র

প্রকাশের সময় : ০৭:৫৬:১৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৭ মে ২০২৪

৫টি নিয়ম মেনে চলি, চলুন সবুজ যশোর গড়ে তুলি’। এই শ্লোগানে পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় গাছ রোপণে উদ্বুদ্ধ করতে ক্যাম্পেইন শুরু করেছে যশোর নাগরিক সংঘ (যনাস)। রোববার সকালে সরকারি মাইকেল মধুসূদন কলেজ ক্যাম্পাস থেকে ক্যাম্পেইনটি শুরু হয়।

কলেজ প্রাঙ্গণে একটি ফল গাছের চারা রোপণের মধ্যে দিয়ে প্রধান অতিথি হিসেবে ক্যাম্পেইনটির উদ্বোধন ঘোষণা করেন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানটির অধ্যক্ষ প্রফেসর মর্জিনা আক্তার। বিশেষ অতিথি ছিলেন প্রবীণ সাংবাদিক বীরমুক্তিযোদ্ধা রুকুনউদৌলাহ্ ও কলেজটির শিক্ষক পরিষদের সম্পাদক অধ্যাপক মদন কুমার সাহা।

এ ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন যশোর নাগরিক সংঘের সমন্বয়ক আলী আজম টিটো, সদস্য আহাদ আলী মুন্না, সালমান হাসান রাজিব প্রমুখ।

যশোর নাগরিক সংঘ সূত্র জানায়, তাপপ্রবাহ থেকে বাঁচতে ও পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় ৫টি নিয়ম মেনে চলার আহবান জানিয়ে কয়েক মাসব্যাপী এই ক্যাম্পেইন চলবে। মেনে চলার জন্য আহবান জানানো ৫টি নিয়মের মধ্যে রয়েছেÑ এক বিন্দু পানি অপচয় না করা। পাথুরে চুন, আঠা, হোয়াইট সিমেন্ট ও জিঙ্ক অক্সাইড দিয়ে প্রতিটি বাড়ির ছাদ সাদা করা। প্রতিটি বাড়ির ছাদ ও বারান্দা গাছাপালা দিয়ে ছেয়ে ফেলা। ছাদ থেকে লতানো গাছ ঝুলিয়ে দেয়াল ঢেকে দেয়া। মরুভূমি হয়ে যাওয়া হাইওয়েগুলো আবার সবুজে ভরে ফেলা। যশোর বৃক্ষ ব্যাংকে গাছ জমা দেয়া ও সবুজ যশোর বৃক্ষ ব্যাংক থেকে রোপণের জন্য গাছের চারা নেয়া।

ঘূর্ণিঝড় ‘রিমেল’ মোকাবেলায় যশোর স্বাস্থ্য বিভাগের সেচ্ছাসেবী টিম প্রস্তুত

ঘুর্ণিঝড় ‘রোমেল’ মোকাবেলায় স্বাস্থ্যসেবা নিয়ে সকল ধরণের প্রস্তুতি গ্রহন করেছে যশোর জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ। যশোরের ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা.নাজমুস সাদিক এ তথ্য জানান।

তিনি জানান, জেলার সকল স্বাস্থ্যসেবা প্রতিষ্ঠানে একটি করে মেডিকেল টিম। এর মধ্যে জেলা হাসপাতালসহ ৮ উপজেলায় ৮টি মেডিকেল টিম প্রস্তুত করা হয়েছে। একই সাথে সব স্বাস্থ্য সেবা প্রতিষ্ঠানে অতিরিক্ত ১ থেকে ২ জন করে অতিরিক্ত জনবল নিযুক্ত করা হয়েছে। একইসাথে জেলার সার্বিক পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণের জন্য কন্ট্রোল রুম চালু করা হয়েছে।

ডেপুটি সিভিল সার্জন নাজমুস সাদিক আরও জানান, ঘূর্ণিঝড় মোকাবেলায় সিভিল সার্জন অফিসের পক্ষ থেকে খাবার স্যালাইনসহ জরুরি প্রতিরোধ ও প্রতিষেধক ওষুধ ও উপকরণ পর্যাপ্ত মজুত করা হয়েছে। প্রয়োজনীয় সংখ্যক পানি বিশুদ্ধকরণ ট্যাবলেট এবং সাপে কাপড় দেওয়া রোগীর জন্য প্রয়োজনীয় সংখ্যক অ্যান্টিভেনম মজুত রাখতে সংশ্লিষ্ট স্বাস্থ্যসেবা প্রতিষ্ঠান সমূহকে ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছে। স্বাস্থ্য পরিদর্শক, সহকারী স্বাস্থ্য পরিদর্শক, স্বাস্থ্য সহকারীসহ অন্যান্য মাঠকর্মীদের নিজ নিজ এলাকায় সতর্কভাবে অবস্থান করে পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণের নির্দেশ প্রদান করা হয়েছে এবং যেকোনো জরুরি পরিস্থিতিতে ব্যবস্থা নিতে নির্দেশ প্রদান করা হয়েছে।

তিনি জানান, কমিউনিটি ক্লিনিক, ইউনিয়ন স্বাস্থ্যকেন্দ্র ও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সগুলোতে চলমান সার্বক্ষণিক চিকিৎসা সেবা নিশ্চিত করার পাশাপাশি জরুরি পরিস্থিতির জন্য প্রস্তুতি নিতে বলা হয়েছে। যেকোনো স্বাস্থ্যগত ঝুকি বা সমস্যায় নিকটস্থ স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্রের সহযোগিতা গ্রহনের জন্য অনুরোধ জানানো হচ্ছে।

এদিকে যশোর রেড ক্রিসেন্টের সাধারণ সম্পাদক ও প্রেসক্লাব যশোরের সভাপতি জাহিদ হাসান টোকন জানান, ঘূর্ণিঝড় ‘রোমেল’ মোকাবেলায় জেলা প্রশাসনের সাথে রেডক্রিসেন্ট যশোর টিম সকল প্রস্তুতি গ্রহন করেছে। জেলা জুড়ে ১০০ জন ভলান্টিয়ার প্রস্তুত রয়েছে। পাশাপাশি আনুষাঙ্গিক সরঞ্জাম প্রস্তুত করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, এর আগে ২০২০ সালে ২০মে প্রলয়ঙ্কারী ঘূর্ণিঝড় আম্পানে ঘরের ওপর গাছ পড়ে যশোরে মা-মেয়েসহ ১২ জনের মৃত্যু হয়েছিল। যশোরের বিভিন্ন উপজেলায় এই দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত ব্যক্তিদের মধ্যে যশোরের শার্শা উপজেলায় চারজন, চৌগাছায় দুজন, বাঘারপাড়ার একজন ও মণিরামপুর উপজেলার পাঁচজন ছিলেন।

যশোরে ৫ জনের বিরুদ্ধে৭০ লাখ টাকা প্রতারণার  মামলা

যশোরে ৭০ লাখ টাকা ধার নিয়ে না দিয়ে প্রতারণার করার অভিযোগে সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রে কোতয়ালী আমলী আদালতে মামলা হয়েছে। মামলায় তিন ভাইসহ ৫ জনকে আসামি করা হয়েছে। মামলার আসামিরা হলো,যশোর শহরের সিটি কলেজ পাড়ার বলায় চন্দ্রকরের ছেলে তারক চন্দ্রকর,গোবিন্দ কর, বিশ্বজিৎ কর,একই এলাকার বলায় চন্দ্র করের ছেলে করুনা হুই, রিপন হুই। তাদের গ্রামের বাড়ি বাগেরহাটের চিতলমারী থানার দুর্গাপুর গ্রামে।

মামলাটি করেছেন, যশোর শহরের ষষ্ঠিতলাপাড়ার বিপি রোডের মৃত আব্দুস সাত্তারের ছেলে নিজাম উদ্দিন অমিত।

মামলায় অমিত উল্লেখ করেছেন,২০২৩ সালের ৫ নভেম্বর ৩শ টাকার ননজুডিসিয়াল স্ট্যাম্পে একটি অঙ্গীকার নামায় স্বাক্ষর করে ৭০ লাখ টাকা ধার গ্রহণের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। ৩০ নভেম্বর তারক চন্দ্রকর, গোবিন্দ কর, বিশ্বজিৎ কর ৭০ লাখ টাকা ধারণ গ্রহণ করেন।

এরপর নির্ধারিত সময়ে তারা টাকা পরিশোধ না করে ঘোরাতে থাকে। এক পর্যায়ে ২০২৪ সালের ২ ফেব্রুয়ারি তাদের বাসায় ডেকে নিয়ে ধার দেওয়া টাকা চান। সেখানে তারা টাকা দিতে পারবে না বলে চলে যায়। এরপর তারা টাকা না দেয়ায় যশোর আদালতে মামলা করেন।

মামলার আইনজীবী আবু মোর্তজা ছোট জানান,৭০ লাখ টাকা ধার নিয়ে না দিয়ে প্রতারণা করার অভিযোগে আদালতে মামলা হয়েছে। যার নম্বর জিআর ১২৪২/২৪,  মামলার পরবর্তী ধার্য্য তারিখ চলতি বছরের ২৫ আগস্ট।

যশোরে সাংবাদিকের ফুফুর মৃত্যু আজ জানাজা ও দাফন 

দৈনিক সমাজের কথার স্টাফ রিপোর্টার ওসাংবাদিক ইউনিয়ন যশোরের সদস্য এস হাশমী সাজুর বড় ফুফু সৈয়দা নাজ হাশমী হৃদরোগসহ বার্ধক্য জনিত রোগে  আক্রান্ত হয়ে আজ রোববার সন্ধ্যায়  যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হসপিটালের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইন্তেকাল করেছেন (ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন) মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল (৬৭)বছর। তিনি তিন পুত্র ও এক কন্যা সন্তান সহ অসংখ্য আত্মীয়-স্বজন রেখে গেছেন। সোমবার সকাল ৯ টায় মরহুমার  নামাজের জানাজা রেলগেট নিজস্ব বাড়ির সামনে অনুষ্ঠিত হবে। পরে কারবালা গোরস্থানে তাকে দাফন করা হবে।

বিদ্রোহি কবির সাহসী উচ্চারণ এখন গোটা বিশ্বময়

বিদ্রোহি কবি কাজী নজরুল ইসলামের ১২৫ তম জন্মজয়ন্তী উপলক্ষে অগ্নিবীণা কেন্দ্রীয় সংসদ যশোর আয়োজিত আলোচন সভায় আলোচকরা বলেছেন বৃটিশ ঔপনিবেশিক শক্তি ও তাদের দোসররা কেঁপে উঠেছিল বিদ্রোহী কবির নজরুল ইসলামের অগ্নিঝরা লেখায়। আতংকে কেঁপে উঠেছিল বৃটিশরাজের তখ্তে-তাউস। সকল ধর্ম বর্ণ নির্বিশেষে মিলে মিশে একাকার হয়ে গেছে তার ক্ষুরধার লেখনীতে। কাজী নজরুল ইসলাম সকল অনাচারের বিরুদ্ধে যুগে যুগে বিরাজমান। স্ইে নজরুল চেতনাকে দেশ জাতি তথা বিশ্বময় ছড়িয়ে দিতে “অগ্নিবীণা” কাজ শুরু করে যাচেছ।

 বিকেল সাড়ে ৫ টায় যশোরের বি সরকার মেমোরিয়াল হলে আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে প্রধান আলোচক ছিলেন বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ প্রফেসর ডক্টর মুস্তাফিজুর রহমান, সংগঠনের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আতাহার রহমানের সভাপতিত্বে আরো আলোচনা করেন যশোর শিক্ষা বোর্ডের সাবেক উপ সচিব আব্দুল খালেক, অগ্নিবীণার সহসভাপতি শিক্ষক নেতা নজরুল ইসলাম বুলবুল অ্যাডভেকেট আফরোজা বেগম, স্বাগত বক্তব্য দেন অগ্নিবীণার সাধারণন সম্পাদক রুমানা খান চৌধুরী, নতুন খয়েরতলা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারি প্রধান শিক্ষক জিল্লুর রহমান প্রমূখ।

আলোচকরা বলেন, বিদ্রোহি কবির অকুণ্ঠ সাহসী উচ্চারণ এখন গোটা বিশ্বময়Ñ‘আমি চির বিদ্রোহী বীর,/ বিশ্ব ছাড়ায়ে উঠিয়াছি একা, চির-উন্নত শির। বৃটিশ শাষকরা কবি নজরুল নামে ‘রাজদ্রোহের’ মামলা, অতঃপর এক বছরের সশ্র্রম কারাদন্ড দিয়ে ‘বিদ্রোহীকে’ জেলে আটকিয়ে রক্ষা পেতে চাইলেন। অন্যায়ের বিরুদ্ধে সব সময় সোচ্চার ছিলেন তিনি। নজরুল চর্চা বাড়ানোর উপর জোর দেন তারা।

অনুষ্ঠানে নজরুল সংগীত পরিবেশন করেন শফিকুল ইসলাম নাসিমা ফেরদৌসী, রুমানা খান চৌধুরী, কতুব উদ্দিন বিশ্বাস, আমিনুল ইসলাম লাভলু, লাভলী ঘোষ, শারমিন সুলতানা, ফাতেমা পারভীন,আব্দুস সাত্তার প্রমূখ।

আলোচনার পর নজরুলের উপর বিভিন্ন প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ করা হয়।  শেষে  কাজী নজরুল ইসলামের জীবন অবলম্বনে নাটক ঝিলমিল মঞ্চস্থ করা হয়। অনুষ্ঠান সাজসজজা ও নাটক পরিচানায় ছিলেন অগ্নিবীণার নাট্য সম্পাদক  স্বপন দাশ।

বেনাপোলে সাড়ে ৫শ বোতল ফেনসিডিল সহ ২ জনকে আটক করেছে র‌্যাব

র‌্যাব-৬ যশোরের সদস্যরা বেনাপোলে আলাদা অভিযানে প্রাায় সাড়ে ৫শ’ ফেনসিডিলসহ দুইজনকে আটক করেছে। একটি অভিযানে গোয়ালঘর থেকে ফেনসিডিল উদ্ধার হয়েছে। অপর একটি অভিযানে খঁড়ের গাদার ভেতর থেকে ফেনসিডিল উদ্ধার করা হয়েছে।

অন্যদিকে মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের সদস্যরা গাঁজাসহ এক বৃদ্ধ মাদক কারবারীকে আটক করেছে।

র‌্যাব জানিয়েছে, শনিবার বেলা পৌনে ১১টার দিকে বেনাপোলের উত্তর বোরোপোতা গ্রামের আব্দুস সাত্তারের মাদক ব্যবসায়ী ছেলে রাজু আহমেদ সুমনকে (২৪) আটক করা হয়। পরে তার স্বীকারোক্তি মোতাবেক তার গোয়াল ঘরে বিশেষ কায়দায় লুকিয়ে রাখা ৩৭৫ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার করা হয়।

অন্য এক অভিযানে শনিবার বেলা ১১টার দিকে পুটখালীর দৌলতপুর গ্রামের আইয়ুব আলীর ছেলে রহমাত মোল্লা (৩৫) নামে এক মাদক কারকারীকে আটক করা হয়। পরে তার দেখানো মতে বাড়ির ভেতর খড়ের গাঁদার ভেতর থেকে ১৬৮ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার করা হয়।

অন্যদিকে মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের উপপরিদর্শক এসএম শাহীন পারভেজ জানিয়েছেন,  সদর উপজেলার হামিদপুর মোড় থেকে ৬শ গ্রাম গাঁজাসহ তাজেম মৃধা (৬০) নামে এক ব্যক্তিকে আটক করা হয়। তিনি বেনাপোল পোর্ট থানাস্থ দিঘিরপাড় গ্রামের মৃত সাহেদ আলী মৃধার ছেলে।

যশোরে ক্যাফে প্রেসক্লাবের ম্যানেজারের পকেট থেকে ৭০ হাজার টাকা ছিনতা্ই

যশোরের ক্যাফে প্রেসক্লাবের ম্যানেজারের কাছ থেকে কৌশলে ৭০ হাজার টাকা হাতিয়ে নিয়েছে ইজিবাইকে থাকা যাত্রীবেশী এক টানাবাজ। এই ঘটনায় কোতয়ালি থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দেয়া হয়েছে। কিন্তু এখনো পর্যন্ত পুলিশ কোন ব্যবস্থা গ্রহণ করেনি।

মানেজার শহরের পুরাতন কসবা রায়পাড়ার বাসিন্দা মোজাম্মেল হোসেন অভিযোগপত্রে উল্লেখ করেছেন, গত ২৩ মে বেলা ১১টার দিকে প্রতিষ্ঠান থেকে নগদ ৭০ হাজার টাকা নিয়ে এমকে রোডস্থ ফাস্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংকের জমা দেয়ার জন্য একটি ইজিবাইকে উঠেন। সে সময় অজ্ঞাত এক যুবক মনিহার এলাকায় যাবে বলে উঠে। পোস্ট অফিসের সামনে পৌছালে অজ্ঞাত ওই যুবক ইজিবাইকের খোলা হাতলটি লাগিয়ে দিতে বলেন। তিনি সরল বিশ্বাসের হাতলা লাগিয়ে দেন। পরে ইজিবাইকটি তসবীর মহলের সামনে পৌছালে ওই যুবক ইজিবাইক থেকে নেমে যায়। পরে তিনি পরে পকেটে হাত দিয়ে দেখেন তার টাকা নেই। সাথে সাথে নেমে অনেক খোঁজাখুঁজি করে দানাবাজ পকেটমার ওই যুবককে আর খুঁজে পাননি। আশেপাশে ও বিভিন্ন দিকে খোঁজখবর নেন। কিন্তু ওই যুবককের দেখা পাননি।  তার ধারনা  যাত্রীবেশী ওই টানাবাজ যুবক তার পকেট থেকে কৌশলে টাকা হাতিয়ে নিয়ে সটকে পড়েছে।

ঘটনার দিন এই বিষয়ে যশোর কোতোয়ালি মডেল থানায় একটি অভিযোগ দেয়া হয়। অভিযোগটি যশোর শহরে গাড়িখানার পুরাতন কসবা পুলিশ ফাঁড়ির দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে তদন্ত করতে। কিন্তু গত কয়েকদিন ধরে পুলিশ এই বিষয়ে কোন ব্যবস্থা গ্রহণ করতে এগিয়ে আসেনি। বা ঘটনাস্থল তদন্ত করতে ও ও অভিযোগকারী বক্তব্য গ্রহণ করেননি।

যশোরে যৌতুকের দাবিতে গৃহবধূকে মারপিট মামলা স্বামী আটক

যশোরে যৌতুকের দাবিতে স্ত্রীকে মারপিটের ঘটনায় স্বামীকে আটক করেছে কোতোয়ালি থানা পুলিশ। আটক স্বামী ইকরামুল হক তুহিন যশোর শহরের বকচর এলাকার বাসিন্দা। এ ঘটনায় স্ত্রী নীলগঞ্জ সুপারী বাগান এলাকার লিমা খাতুন তার স্বামী তুহিন ও ননদ মিনু বেগমের বিরুদ্ধে কোতোয়ালি থানায় মামলা করেছেন।

মামলায় উল্লেখ করেছেন, ২০২৩ সালের ৭ ডিসেম্বর ১৫ লাখ টাকা দেনমোহরে তুহিনের সাথে বিয়ে হয়। এরমধ্যে তুহিন তার ভরণ পোষন দেয়া বন্ধ করে দেয়। যৌতুক দাবি করে তাকে মারপিট শুরু করে এবং খুন জখমের হুমকি দেয়। এক পর্যায় বাধ্য হয়ে লিমা তার পরিবারের কাছ থেকে দুই লাখ টাকা এনে দেয় তুহিনকে। এরপর আরও দুই লাখ টাকা দাবি করে তুহিন। টাকা দিতে অপরাগতা প্রকাশ করলে গত ২৫ মে বিকেলে ননদ মিনু বেগমের উস্কানিতে তুহিন কাঠের লাঠি দিয়ে বেধড়ক মারপিট করে। এসময় তার শরীরের বিভিন্ন স্থানে জখম হয়। পরে আশপাশের লোকজন এসে লিমাকে উদ্ধার করে যশোর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে। পরবর্তিতে তিনি থানায় আশ্রয় নেন।

এ বিষয়ে কোতোয়ালি থানার এসআই শরীফ আল মামুন বলেন, ঘটনার সত্যতা পেয়ে শনিবার মধ্য রাতে তুহিনের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করা হয়। পরে রোববার তাকে আদালতে সোপর্দ করা হয়।

যশোরের শার্শায় আওয়ামী লীগের কার্যালয় ভাঙচুর, চেয়ারম্যানসহ ১৭ জনের বিরুদ্ধে মামলা

যশোরের শার্শার গোগা আওয়ামী লীগের কার্যালয় ভাঙচুর ও মারধরের অভিযোগে সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুর রশিদসহ ১৭ জনের বিরুদ্ধে রোববার আদালতে মামলা হয়েছে। উপজেলার অগ্রভুলট গ্রামের মৃত পীর আলীর ছেলে গোগা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সদস্য শাহাজান আলী মামলাটি করেছেন। জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. ইমরান আহম্মেদ অভিযোগের তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য শার্শা থানা পুলিশের ওসিকে আদেশ দিয়েছেন।

আসামিরা হচ্ছে  শার্শা উপজেলার গোগা ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুর রশিদ, গোগা পূর্ব গ্রামের রহমত আলী, কালিয়ানী গ্রামের জসিম উদ্দীন, গোগা পূর্ব গ্রামের রায়হান কবির রানা, আমলাই গ্রামের শামছুজ্জামান বুলু, শরিফুল ইসলাম, সেতাই গ্রামের কামরুল ইসলাম, হরিশচন্দ্রপুর গ্রামের জোবাইদুর রহমান শান্টু, অমিত হাসান, আব্দুল ওহাব, অগ্রভুলট গ্রামের ইদ্রিস আলী, গোগা পূর্ব গ্রামের জুলফিকার আলী, গোগা গ্রামের মিজানুর রহমান, কালিয়ানী গ্রামের জুলফিকার আলী ভুট্টা, গোগা পূর্ব গ্রামের মিজানুর রহমান, আমলাই গ্রামের ইমানুর রহমান ও  অগ্রভুলট গ্রামের শাহাজান আলী।

মামলায়  শাহাজান আলী উল্লেখ করেছেন, স্থানীয় বল ফিল্ডের পাশে গোগা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের কার্যালয়টি অবস্থিত। উল্লিখিত আসামিরা কার্যালয়টি জবর দখলসহ ভাঙচুরের জন্য বেশ কিছুদিন ধরে হুমকি দিয়ে আসছিলেন। গত ১৫ মে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে দলীয় কর্মী মোহাম্মদ আলী, সহিদুল, নবীছ উদ্দীন, মনির হোসেন, আব্দুল মজিদ ও বাবুল মেম্বার কার্যালয়ে বসে সাংগঠনিক আলাপ আলোচনা করছিলেন। এ সময় আসামি আব্দুর রশিদের হুকুমে অন্য আসামিরা দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে জোরপূর্বক কার্যালয়ে ঢুকে ব্যাপক ভাঙচুর করেন। ক্ষয়ক্ষতির পরিমান প্রায় ৯০ হাজার টাকা।