মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ৪ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সর্বশেষ : ঘূর্ণিঝড় রেমালের তাণ্ডবে সারাদেশে নিহত ১২

ঘূর্ণিঝড় রেমালের তাণ্ডবে সারাদেশে ১২ জন প্রাণ হারিয়েছেন। ঝড়ের প্রভাবে উপকূলের জেলাগুলো লন্ডভন্ড হয়ে গেছে। বিভিন্ন এলাকায় জলোচ্ছ্বাসের কারণে বাঁধ ভেঙে লোকালয়ে জোয়ারের পানি ঢুকে পড়েছে। ঝড়ে কাঁচা ঘরবাড়ি, দেয়াল ও গাছপালা ভেঙে গেছে। অনেক এলাকার রাস্তাঘাট পানির নিচে চলে গেছে। ঝড়ের কারণে দেশের বেশির ভাগ এলাকা বিদ্যুৎহীন অবস্থায় রয়েছে।
প্রবল ঘূর্ণিঝড় রেমাল রোব ও সোমবার দেশের উপকূলীয় এলাকায় আছড়ে পড়ে। পটুয়াখালীর খেপুপাড়া দিয়ে এটি অতিক্রম করে। ঝড়ের মাঝে পড়ে পটুয়াখালীতে ৩ জন, ভোলায় ৩ জন, বরিশালে ২ জন, সাতক্ষীরা, খুলনায়, চট্টগ্রাম ও কুমিল্লায় একজন করে মোট ১২ জনের মৃত্যু হয়েছে।
খুলনা : ঘূর্ণিঝড় রেমালের প্রভাবে খুলনায় তীব্র বাতাস ও বৃষ্টিতে গাছ উপড়ে ঘরের ওপর পড়ে লালচাঁদ মোড়ল (৩৬) নামে এক যুবক মারা গেছেন। রোববার রাতে উপজেলার সুরখালী ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ডের গাওঘরা গরিয়ারডাঙ্গা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। লালচাঁদ মোড়ল গরিয়ারডাঙ্গা গ্রামের গহর মোড়লের ছেলে। তিনি কৃষিকাজ করতেন।
পটুয়াখালী: পটুয়াখালীতে ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে মারা গেছেন তিনজন। এর মধ্যে দুমকি উপজেলায় ঝড়ো হাওয়ায় গাছচাপায় জয়নাল হাওলাদার নামে (৭০) এক বৃদ্ধের প্রাণহানি ঘটে। তিনি উপজেলার পাঙ্গাশিয়া ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ড নলদোয়ানি স্লুইসগেট এলাকার বাসিন্দা। বাউফলে মৃত্যু হয়েছে আব্দুল করিম (৬০) নামে এক পথচারীর। বেলা ১১টার দিকে উপজেলা পরিষদ গেটের সামনে ঘটনা ঘটে। নিহত ব্যক্তি উপজেলার নাজিরপুর ইউনিয়নের বাসিন্দা। ঘূর্ণিঝড়ের সময় তিনি উপজেলা পরিষদ গেট সংলগ্ন বিএনপির পুরানো (পরিত্যক্ত) অফিসের নিচে আশ্রয় নেয়। ঝড়ের তাণ্ডবে অফিসটি ভেঙে পড়লে তিনি চাপা পড়ে প্রাণ হারান। রোববার বিকালে পটুয়াখালীর কলাপাড়া উপজেলার ধূলাসর ইউনিয়নের কাউয়ারচর প্লাবিত এলাকায় বোনকে রক্ষা করতে গিয়ে শরীফুল ইসলাম নামে একজনের মৃত্যু হয়।
ভোলা: ঘূর্ণিঝড় রেমালের প্রভাবে ঘর ও গাছ চাপা পড়ে এক শিশুসহ তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে দৌলতখান উপজেলায় মাইশা (৪) নামে এক শিশু, বোরাহানউদ্দিন উপজেলায় জাহাঙ্গীর (৫০) নামে এক কৃষক, লালমোহন উপজেলার মনেজা খাতুন (৫৫) নামে এক নারীর মৃত্যু হয়েছে। ঘর চাপা পড়ে মারা যাওয়া মাইশা (৪) দৌলতখান পৌরসভার ২ নম্বর ওয়ার্ডের মো. মনির হোসেনের মেয়ে।
বরিশাল: ঝড়ো বাতাসে বরিশাল নগরে বহুতল ভবনের ছাদের দেয়ালের অংশ ধসে পাশের টিনশেড খাবার হোটেলের ওপর পড়ে দু’জন নিহত হয়েছেন। নিহতদের মধ্যে লোকমান হোসেন হোটেল মালিক আর মোকছেদুর রহমান কর্মচারী। এছাড়া এ ঘটনায় গুরুতর আহত অপর হোটেল কর্মচারী সাকিবকে উদ্ধার করে বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন থানা পুলিশ। সোমবার ভোররাত সাড়ে ৪টার দিকে নগরের রুপাতলী লিলি পেট্রোল পাম্পসংলগ্ন এলাকায় ওই ঘটনা ঘটে।
সাতক্ষীরা: সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপকূলে নদনদীর পানি ৫ থেকে ৭ ফুট বৃদ্ধি পেয়েছে। এরই মধ্যে শ্যামনগর উপজেলার গাবুরা ইউনিয়নের নাপিতখালী আশ্রয় কেন্দ্রে যাওয়ার পথে শওকাত মোড়ল (৬৫) নামে এক বৃদ্ধের মৃত্যু হয়। তিনি গাবুরা ইউনিয়নের নাপিতখালী গ্রামের মৃত নরিম মোড়লের ছেলে।
কুমিল্লা: কুমিল্লায় বিদ্যালয়ে ক্লাসরত অবস্থায় পার্শ্ববর্তী নির্মাণাধীন ভবনের ৭ তলার দেয়াল ধসে পড়ে সাইফুল ইসলাম সাগর নামে ৫ম শ্রেণির এক শিক্ষার্থী নিহত হয়েছে। সোমবার বেলা ১১টার দিকে জেলার সদর দক্ষিণ উপজেলার নোয়াগাঁও চৌমুহনী এলাকায় নুর আইডিয়াল স্কুলে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত সাইফুল ইসলাম সাগর (১০) সদর দক্ষিণ উপজেলার শাকতলা গ্রামের অলি হোসেনের ছেলে।
চট্টগ্রাম: চট্টগ্রাম নগরীর বায়েজিদ এলাকায় নির্মাণাধীন ভবনের দেয়াল ধসে এক যুবক মারা গেছেন। সোমবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে বায়েজিদের চন্দ্রনগর কলাবাগান এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত যুবকের নাম সাইফুল ইসলাম হৃদয় (২৬)। তিনি নির্মাণাধীন ভবনের পাশ দিয়ে হেঁটে যাওয়ার সময় ধসে পড়া দেয়াল চাপা পড়েন। এতে তার মৃত্যু হয়।
বায়েজিদ ফায়ার স্টেশনের সিনিয়র স্টেশন অফিসার কামরুজ্জামান গণমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।এনিয়ে রেমাল ঝড়ে কয়েকটি উপজেলায় প্রাণ হারালেন ১২ জন নিরীহ মানুষ।

সর্বশেষ : ঘূর্ণিঝড় রেমালের তাণ্ডবে সারাদেশে নিহত ১২

প্রকাশের সময় : ০৮:০৬:৫০ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৭ মে ২০২৪

ঘূর্ণিঝড় রেমালের তাণ্ডবে সারাদেশে ১২ জন প্রাণ হারিয়েছেন। ঝড়ের প্রভাবে উপকূলের জেলাগুলো লন্ডভন্ড হয়ে গেছে। বিভিন্ন এলাকায় জলোচ্ছ্বাসের কারণে বাঁধ ভেঙে লোকালয়ে জোয়ারের পানি ঢুকে পড়েছে। ঝড়ে কাঁচা ঘরবাড়ি, দেয়াল ও গাছপালা ভেঙে গেছে। অনেক এলাকার রাস্তাঘাট পানির নিচে চলে গেছে। ঝড়ের কারণে দেশের বেশির ভাগ এলাকা বিদ্যুৎহীন অবস্থায় রয়েছে।
প্রবল ঘূর্ণিঝড় রেমাল রোব ও সোমবার দেশের উপকূলীয় এলাকায় আছড়ে পড়ে। পটুয়াখালীর খেপুপাড়া দিয়ে এটি অতিক্রম করে। ঝড়ের মাঝে পড়ে পটুয়াখালীতে ৩ জন, ভোলায় ৩ জন, বরিশালে ২ জন, সাতক্ষীরা, খুলনায়, চট্টগ্রাম ও কুমিল্লায় একজন করে মোট ১২ জনের মৃত্যু হয়েছে।
খুলনা : ঘূর্ণিঝড় রেমালের প্রভাবে খুলনায় তীব্র বাতাস ও বৃষ্টিতে গাছ উপড়ে ঘরের ওপর পড়ে লালচাঁদ মোড়ল (৩৬) নামে এক যুবক মারা গেছেন। রোববার রাতে উপজেলার সুরখালী ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ডের গাওঘরা গরিয়ারডাঙ্গা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। লালচাঁদ মোড়ল গরিয়ারডাঙ্গা গ্রামের গহর মোড়লের ছেলে। তিনি কৃষিকাজ করতেন।
পটুয়াখালী: পটুয়াখালীতে ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে মারা গেছেন তিনজন। এর মধ্যে দুমকি উপজেলায় ঝড়ো হাওয়ায় গাছচাপায় জয়নাল হাওলাদার নামে (৭০) এক বৃদ্ধের প্রাণহানি ঘটে। তিনি উপজেলার পাঙ্গাশিয়া ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ড নলদোয়ানি স্লুইসগেট এলাকার বাসিন্দা। বাউফলে মৃত্যু হয়েছে আব্দুল করিম (৬০) নামে এক পথচারীর। বেলা ১১টার দিকে উপজেলা পরিষদ গেটের সামনে ঘটনা ঘটে। নিহত ব্যক্তি উপজেলার নাজিরপুর ইউনিয়নের বাসিন্দা। ঘূর্ণিঝড়ের সময় তিনি উপজেলা পরিষদ গেট সংলগ্ন বিএনপির পুরানো (পরিত্যক্ত) অফিসের নিচে আশ্রয় নেয়। ঝড়ের তাণ্ডবে অফিসটি ভেঙে পড়লে তিনি চাপা পড়ে প্রাণ হারান। রোববার বিকালে পটুয়াখালীর কলাপাড়া উপজেলার ধূলাসর ইউনিয়নের কাউয়ারচর প্লাবিত এলাকায় বোনকে রক্ষা করতে গিয়ে শরীফুল ইসলাম নামে একজনের মৃত্যু হয়।
ভোলা: ঘূর্ণিঝড় রেমালের প্রভাবে ঘর ও গাছ চাপা পড়ে এক শিশুসহ তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে দৌলতখান উপজেলায় মাইশা (৪) নামে এক শিশু, বোরাহানউদ্দিন উপজেলায় জাহাঙ্গীর (৫০) নামে এক কৃষক, লালমোহন উপজেলার মনেজা খাতুন (৫৫) নামে এক নারীর মৃত্যু হয়েছে। ঘর চাপা পড়ে মারা যাওয়া মাইশা (৪) দৌলতখান পৌরসভার ২ নম্বর ওয়ার্ডের মো. মনির হোসেনের মেয়ে।
বরিশাল: ঝড়ো বাতাসে বরিশাল নগরে বহুতল ভবনের ছাদের দেয়ালের অংশ ধসে পাশের টিনশেড খাবার হোটেলের ওপর পড়ে দু’জন নিহত হয়েছেন। নিহতদের মধ্যে লোকমান হোসেন হোটেল মালিক আর মোকছেদুর রহমান কর্মচারী। এছাড়া এ ঘটনায় গুরুতর আহত অপর হোটেল কর্মচারী সাকিবকে উদ্ধার করে বরিশাল শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন থানা পুলিশ। সোমবার ভোররাত সাড়ে ৪টার দিকে নগরের রুপাতলী লিলি পেট্রোল পাম্পসংলগ্ন এলাকায় ওই ঘটনা ঘটে।
সাতক্ষীরা: সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপকূলে নদনদীর পানি ৫ থেকে ৭ ফুট বৃদ্ধি পেয়েছে। এরই মধ্যে শ্যামনগর উপজেলার গাবুরা ইউনিয়নের নাপিতখালী আশ্রয় কেন্দ্রে যাওয়ার পথে শওকাত মোড়ল (৬৫) নামে এক বৃদ্ধের মৃত্যু হয়। তিনি গাবুরা ইউনিয়নের নাপিতখালী গ্রামের মৃত নরিম মোড়লের ছেলে।
কুমিল্লা: কুমিল্লায় বিদ্যালয়ে ক্লাসরত অবস্থায় পার্শ্ববর্তী নির্মাণাধীন ভবনের ৭ তলার দেয়াল ধসে পড়ে সাইফুল ইসলাম সাগর নামে ৫ম শ্রেণির এক শিক্ষার্থী নিহত হয়েছে। সোমবার বেলা ১১টার দিকে জেলার সদর দক্ষিণ উপজেলার নোয়াগাঁও চৌমুহনী এলাকায় নুর আইডিয়াল স্কুলে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত সাইফুল ইসলাম সাগর (১০) সদর দক্ষিণ উপজেলার শাকতলা গ্রামের অলি হোসেনের ছেলে।
চট্টগ্রাম: চট্টগ্রাম নগরীর বায়েজিদ এলাকায় নির্মাণাধীন ভবনের দেয়াল ধসে এক যুবক মারা গেছেন। সোমবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে বায়েজিদের চন্দ্রনগর কলাবাগান এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত যুবকের নাম সাইফুল ইসলাম হৃদয় (২৬)। তিনি নির্মাণাধীন ভবনের পাশ দিয়ে হেঁটে যাওয়ার সময় ধসে পড়া দেয়াল চাপা পড়েন। এতে তার মৃত্যু হয়।
বায়েজিদ ফায়ার স্টেশনের সিনিয়র স্টেশন অফিসার কামরুজ্জামান গণমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।এনিয়ে রেমাল ঝড়ে কয়েকটি উপজেলায় প্রাণ হারালেন ১২ জন নিরীহ মানুষ।