মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ৪ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বিজিবিতে চাকরি দেয়ার নামে প্রতারণা, আটক ২

যশোরে বিজিবিতে চাকরি দেয়ার নামে প্রতারণার অভিযোগে দুইজনকে আটক করেছে র‌্যাব-৬ যশোর  ক্যাম্পের সদস্যরা।

আটককৃতরা হলেন, যশোর সদর উপজেলার জঙ্গলবাধাল গ্রামের মৃত শেখ আতিকুর রহমানের ছেলে আনিসুর রহমান ও নড়াইল জেলার লোহাগড়া উপজেলার কলেজপাড়ার মৃত আবুল হোসেনের ছেলে মশিউর রহমান । র‌্যাব-৬ যশোরের সদস্যরা ঝুমঝুমপুর এলাকা থেকে শনিবার ১ জুন তাদেরকে আটক করে।

র‌্যাব-৬ যশোরের কোম্পানি অধিনায়ক মেজর মোহাম্মদ সাকিব হোনের জানান, অভয়নগর উপজেলার মশরহাটি গ্রামের রবিউল ইসলাম ও তার ছেলে নিজ এলাকায় চায়েরদোকান দিয়ে জীবিকা নির্বাহ করতেন। গত ২৫ এপ্রিল তারা দোকানে অবস্থান করা অবস্থায় আনিসুর আসেন। এসময় তিনি রবিউলের ছেলে সানমুন আহম্মেদকে বিজিবিতে চাকরি দেয়ার প্রলোভন দেখান। তার প্রলোভনে রাজি হন রবিউল ও তার ছেলে। তাদের মধ্যে পাঁচ লাখ টাকায় চুক্তিও হয়। এরপর গত ২৮ এপ্রিল অপরিচিত একটি মোবাইল নাম্বার থেকে সানমুনকে বিজিবির কমান্ডার পরিচয় দিয়ে কল করেন। তাকে জানানো হয় অনলাইনে আবেদনের জন্য তিন হাজার টাকা দিতে হবে। পরে তাকে তিন হাজার টাকা দেন সানমুন। এরমধ্যে গত ২৮ মে  আনিসুর ও মশিউর সানমুনদের বাড়িতে যান। জানানো হয় পহেলা জুন যশোর বিজিবির মাঠে পরিক্ষা হবে। ওই পরিক্ষায় পাশের জন্য পঞ্চাশ হাজার টাকা দাবি করে।

সর্বশেষ পহেলা জুন সকালে বাবা ছেলে বিজিবির মাঠে যান। এসময় আসামিদের সাথে দেখা হলে ৫০ হাজার টাকা দাবি করেন। কিন্তু তারা পাঁচ হাজার টাকা দেন। চাকরি হলে বাকি টাকা দেয়ার আশ্বাস দেন। একই সাথে তাদেরকে একটি অনলাইনে আবেদন পত্র দিয়ে চলে যান আসামিরা। পরে ওই আবেদন পত্র নিয়ে বিজিবির সাথে যোগাযোগ করলে জানতে পারেন তা জাল। পরবর্তিতে ভুক্তোভুগিরা এ ঘটনায় ওই দুইজনের বিরুদ্ধে কোতোয়ালি থানায় মামলা করেন।

র‌্যাব আরও জানায়, বিষয়টি নিয়ে তারা তদন্ত শুরু করেন। তারা আসামিদের অবস্থান শনাক্ত করে শনিবার ১ জুন রাতে ঝুমঝুমপুর থেকে ওই দুইজনকে আটক করে কোতোয়ালি থানায় হস্তান্তর করেন।

বিজিবিতে চাকরি দেয়ার নামে প্রতারণা, আটক ২

প্রকাশের সময় : ১১:২৪:২৬ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ৩ জুন ২০২৪

যশোরে বিজিবিতে চাকরি দেয়ার নামে প্রতারণার অভিযোগে দুইজনকে আটক করেছে র‌্যাব-৬ যশোর  ক্যাম্পের সদস্যরা।

আটককৃতরা হলেন, যশোর সদর উপজেলার জঙ্গলবাধাল গ্রামের মৃত শেখ আতিকুর রহমানের ছেলে আনিসুর রহমান ও নড়াইল জেলার লোহাগড়া উপজেলার কলেজপাড়ার মৃত আবুল হোসেনের ছেলে মশিউর রহমান । র‌্যাব-৬ যশোরের সদস্যরা ঝুমঝুমপুর এলাকা থেকে শনিবার ১ জুন তাদেরকে আটক করে।

র‌্যাব-৬ যশোরের কোম্পানি অধিনায়ক মেজর মোহাম্মদ সাকিব হোনের জানান, অভয়নগর উপজেলার মশরহাটি গ্রামের রবিউল ইসলাম ও তার ছেলে নিজ এলাকায় চায়েরদোকান দিয়ে জীবিকা নির্বাহ করতেন। গত ২৫ এপ্রিল তারা দোকানে অবস্থান করা অবস্থায় আনিসুর আসেন। এসময় তিনি রবিউলের ছেলে সানমুন আহম্মেদকে বিজিবিতে চাকরি দেয়ার প্রলোভন দেখান। তার প্রলোভনে রাজি হন রবিউল ও তার ছেলে। তাদের মধ্যে পাঁচ লাখ টাকায় চুক্তিও হয়। এরপর গত ২৮ এপ্রিল অপরিচিত একটি মোবাইল নাম্বার থেকে সানমুনকে বিজিবির কমান্ডার পরিচয় দিয়ে কল করেন। তাকে জানানো হয় অনলাইনে আবেদনের জন্য তিন হাজার টাকা দিতে হবে। পরে তাকে তিন হাজার টাকা দেন সানমুন। এরমধ্যে গত ২৮ মে  আনিসুর ও মশিউর সানমুনদের বাড়িতে যান। জানানো হয় পহেলা জুন যশোর বিজিবির মাঠে পরিক্ষা হবে। ওই পরিক্ষায় পাশের জন্য পঞ্চাশ হাজার টাকা দাবি করে।

সর্বশেষ পহেলা জুন সকালে বাবা ছেলে বিজিবির মাঠে যান। এসময় আসামিদের সাথে দেখা হলে ৫০ হাজার টাকা দাবি করেন। কিন্তু তারা পাঁচ হাজার টাকা দেন। চাকরি হলে বাকি টাকা দেয়ার আশ্বাস দেন। একই সাথে তাদেরকে একটি অনলাইনে আবেদন পত্র দিয়ে চলে যান আসামিরা। পরে ওই আবেদন পত্র নিয়ে বিজিবির সাথে যোগাযোগ করলে জানতে পারেন তা জাল। পরবর্তিতে ভুক্তোভুগিরা এ ঘটনায় ওই দুইজনের বিরুদ্ধে কোতোয়ালি থানায় মামলা করেন।

র‌্যাব আরও জানায়, বিষয়টি নিয়ে তারা তদন্ত শুরু করেন। তারা আসামিদের অবস্থান শনাক্ত করে শনিবার ১ জুন রাতে ঝুমঝুমপুর থেকে ওই দুইজনকে আটক করে কোতোয়ালি থানায় হস্তান্তর করেন।