বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ৪ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

শ্রীমঙ্গলে কলার আড়ৎ থেকে বিষধর গ্রীনপিট ভাইপার উদ্ধার

গ্রিন পিট ভাইপার

মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে গাঢ় সবুজ রঙের গ্রীন পিট ভাইপার নামের একটি সাপ উদ্ধার করা হয়েছে।
শুক্রবার (৭ জুন) বিকেলে বন্যপ্রাণী ব্যবস্থাপনা প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগ সাপটিকে কমলগঞ্জের সংরক্ষিত লাউয়াছড়া বনে অবমুক্ত করে।
বৃহস্পতিবার (৬ জুন) রাতে শ্রীমঙ্গলের নতুন বাজার কলার আড়ৎ থেকে এই সাপটিকে উদ্ধার করে শ্রীমঙ্গল বন্যপ্রাণী সেবা ফাউন্ডেশন।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার রাতে আড়ৎ এর কলাগুলো আলাদা করে রাখতে গিয়ে গাঢ় সবুজ রঙের গ্রীন পিট ভাইপার নামের এই সাপটি দেখতে পায় দোকানীরা। তখন তারা চিৎকার দিলে আশপাশের সবাই দেখতে আসেন সাপটিকে। পরে স্থানীয় বন্যপ্রাণী সেবা সংস্থাকে খবর দেন তারা।
শ্রীমঙ্গল বাংলাদেশ বন্যপ্রাণী সেবা ফাউন্ডেশনের পরিচালক স্বজল দেব জানান, কলার আড়ৎ এ সাপটি দেখে আতঙ্কিত হয়ে পড়েন দোকানদাররা। পরে আমাদের খবর দিলে ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখতে পাই এ বিষধর সাপটিকে। তখন সাপটিকে অক্ষত অবস্থায় উদ্ধার করে বন বিভাগের কাছে হস্তান্তর করা হয়।
বন্যপ্রাণী ব্যবস্থাপনা প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগের শ্রীমঙ্গল কার্যালয়ের রেঞ্জ কর্মকর্তা মো. শহিদুল ইসলাম জানান, সাপটিকে সুস্থ থাকায় শুক্রবার বিকেলে সংরক্ষিত বনাঞ্চল লাউয়াছড়ায় অবমুক্ত করা হয়েছে।
তিনি বলেন, দেশের সব সাপের মধ্যে সবুজ রঙের এই সাপটি দেখতে অপূর্ব সুন্দর। সাপটি সাধারণত ব্যাঙ, পাখি, ইঁদুর ইত্যাদি উষ্ণ রক্ত বিশিষ্ট প্রাণী খেয়ে জীবনধারণ করে থাকে। তবে এ বন্যপ্রাণীটির প্রধান খাদ্য ইঁদুর।

শ্রীমঙ্গলে কলার আড়ৎ থেকে বিষধর গ্রীনপিট ভাইপার উদ্ধার

প্রকাশের সময় : ০১:১৩:০৬ অপরাহ্ন, শনিবার, ৮ জুন ২০২৪
মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে গাঢ় সবুজ রঙের গ্রীন পিট ভাইপার নামের একটি সাপ উদ্ধার করা হয়েছে।
শুক্রবার (৭ জুন) বিকেলে বন্যপ্রাণী ব্যবস্থাপনা প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগ সাপটিকে কমলগঞ্জের সংরক্ষিত লাউয়াছড়া বনে অবমুক্ত করে।
বৃহস্পতিবার (৬ জুন) রাতে শ্রীমঙ্গলের নতুন বাজার কলার আড়ৎ থেকে এই সাপটিকে উদ্ধার করে শ্রীমঙ্গল বন্যপ্রাণী সেবা ফাউন্ডেশন।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার রাতে আড়ৎ এর কলাগুলো আলাদা করে রাখতে গিয়ে গাঢ় সবুজ রঙের গ্রীন পিট ভাইপার নামের এই সাপটি দেখতে পায় দোকানীরা। তখন তারা চিৎকার দিলে আশপাশের সবাই দেখতে আসেন সাপটিকে। পরে স্থানীয় বন্যপ্রাণী সেবা সংস্থাকে খবর দেন তারা।
শ্রীমঙ্গল বাংলাদেশ বন্যপ্রাণী সেবা ফাউন্ডেশনের পরিচালক স্বজল দেব জানান, কলার আড়ৎ এ সাপটি দেখে আতঙ্কিত হয়ে পড়েন দোকানদাররা। পরে আমাদের খবর দিলে ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখতে পাই এ বিষধর সাপটিকে। তখন সাপটিকে অক্ষত অবস্থায় উদ্ধার করে বন বিভাগের কাছে হস্তান্তর করা হয়।
বন্যপ্রাণী ব্যবস্থাপনা প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগের শ্রীমঙ্গল কার্যালয়ের রেঞ্জ কর্মকর্তা মো. শহিদুল ইসলাম জানান, সাপটিকে সুস্থ থাকায় শুক্রবার বিকেলে সংরক্ষিত বনাঞ্চল লাউয়াছড়ায় অবমুক্ত করা হয়েছে।
তিনি বলেন, দেশের সব সাপের মধ্যে সবুজ রঙের এই সাপটি দেখতে অপূর্ব সুন্দর। সাপটি সাধারণত ব্যাঙ, পাখি, ইঁদুর ইত্যাদি উষ্ণ রক্ত বিশিষ্ট প্রাণী খেয়ে জীবনধারণ করে থাকে। তবে এ বন্যপ্রাণীটির প্রধান খাদ্য ইঁদুর।