মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ৪ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

হেযবুত তওহীদের আলোচনা সভা,মানবজাতি হোক এক পরিবার- হোসাইন মোহাম্মদ সেলিম

মানবতার কল্যাণে নিবেদিত অরাজনৈতিক আন্দোলন হেযবুত তওহীদের উদ্যোগে‘সকল ধর্মের মর্মকথা – সবার ঊর্ধ্বে মানবতা’ এই স্লোগানকে ধারণ করে ধর্মীয়উগ্রবাদ, সাম্প্রদায়িকতা ও ধর্মান্ধতার বিরুদ্ধে করণীয় প্রসঙ্গে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
গতকাল শনিবার (৮ জুন ২০২৪ ইং) বিকাল ০৩ টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের তফাজ্জলহোসেন মানিক মিয়া কনফারেন্স হলে এই আলোচনা সভার আয়োজন করে হেযবুততওহীদ ঢাকা বিভাগ।
অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন হেযবুত তওহীদের সর্বোচ্চ নেতা এমাম হোসাইনমোহাম্মদ সেলিম। সভাপতির বক্তব্যে তিনি বলেন, ব্রিটিশ ঔপনিবেশিকরা এইউপমহাদেশে উরারফব জঁষব নীতির প্রয়োগ করে হিন্দু ও মুসলমানদের মধ্যেসাম্প্রদায়িক দাঙ্গা ও শত্রুতার সূত্রপাত ঘটিয়েছিল যার প্রতিক্রিয়া আজও চলমান
আছে। প্রতিটি ধর্মেই উগ্রপন্থী গোষ্ঠী অপর ধর্মের বিরুদ্ধে বিদ্বেষ প্রচার করেএবং রাজনৈতিক ইন্ধনে দাঙ্গাময় পরিস্থিতিকে উত্তপ্ত করে চলেছে। কিন্তু আমরামনে করি এগুলো প্রকৃতপক্ষে সাময়িক উপশম মাত্র, সমস্যার সমাধান নয়। হেযবুততওহীদ চেষ্টা করে যাচ্ছে প্রতিটি ধর্মের অনুসারীদের মধ্যে চিরন্তন ন্যায় ও সত্যেরভিত্তিতে ঐক্যবদ্ধ করতে, পরস্পরের প্রতি শ্রদ্ধাবোধ, ভ্রাতৃত্ববোধ জাগ্রতকরতে, উভয় গোষ্ঠীর ভিতরকার দেওয়ালগুলোকে ভেঙে ফেলতে। এসময় মানবজাতিকেতিনি পুনরায় এক পরিবার হবার আহ্বান জানান।
হেযবুত তওহীদের কেন্দ্রীয় নারী বিষয়ক সম্পাদক ও দৈনিক দেশেরপত্রের সম্পাদকরুফায়দাহ পন্নীর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন বাংলাাদেশস্যাটেলাইট কোম্পানি লি. এর চেয়ারম্যান ড. শাজাহান মাহমুদ, বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট রানা দাশগুপ্ত, বাংলাদেশ পূজাউদপাযন পরিষদের সভাপতি শ্রী বাসুদেব ধর, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের পালি
বিভাগের অধ্যাপক ড. জ্ঞানবধি ভিক্ষু, বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য

পরিষদের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মনিন্দ্র কুমার নাথ, ঢাবি অধ্যাপক ড. নাজমুলআহসান কলিম উল্লাহ, ঢাবি অধ্যাপক সুকোমল বড়ুয়া, খ্রিস্টান ধর্মীয় কল্যাণট্রাস্টের ট্রাস্টি, উইলিয়াম প্রলয় সমদ্দার বাপ্পি, ঢাবি অধ্যাপক চন্দ্রনাথপোদ্দার, বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদের য্গ্মু সাধারণ সম্পাদক শ্রীমতি পদ্মাবতী
দেবী প্রমুখ।
এছাড়াও হেযবুত তওহীদের তথ্য সম্পাদক এস এম সামসুল হুদা, ঢাকা বিভাগের সভাপতিডা. মাহবুব আলম মাহফুজসহ দেশের স্বনামধন্য মিডিয়া ব্যক্তিত্বের উপস্থিতিতেহলরুম ছিল পরিপূর্ণ।
আগত অতিথিবৃন্দ একে একে প্রতিপাদ্যের উপর আলোচনা রাখেন এবং তাদেরমূল্যবান মতামত প্রদান করেন।আলোচকরা অনুষ্ঠানের প্রতিপাদ্য বিষয়ের উপরে সহমত পোষণ করেন। তারা হোসাইন
মোহাম্মদ সেলিমের এই সংগ্রামী মহতী উদ্যোগকে সাধুবাদ জানান। তার সাহসীকতারপ্রসংশা করেন এবং এই উগ্রবাদ, সাম্প্রদায়িকতা, ধর্মান্ধতার বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধহয়ে কাজ করার ইচ্ছা পোষণ করেন।সর্বধর্মীয় সম্প্রীতি প্রতিষ্ঠায় জাতীয় প্রেসক্লাবে হেযবুত তওহীদের আলোচনা
সভা
মানবজাতি হোক এক পরিবার- হোসাইন মোহাম্মদ সেলিমমানবতার কল্যাণে নিবেদিত অরাজনৈতিক আন্দোলন হেযবুত তওহীদের উদ্যোগে‘সকল ধর্মের মর্মকথা – সবার ঊর্ধ্বে মানবতা’ এই স্লোগানকে ধারণ করে ধর্মীয়উগ্রবাদ, সাম্প্রদায়িকতা ও ধর্মান্ধতার বিরুদ্ধে করণীয় প্রসঙ্গে আলোচনা সভা
অনুষ্ঠিত হয়েছে।
গতকাল শনিবার (৮ জুন ২০২৪ ইং) বিকাল ০৩ টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের তফাজ্জলহোসেন মানিক মিয়া কনফারেন্স হলে এই আলোচনা সভার আয়োজন করে হেযবুততওহীদ ঢাকা বিভাগ।অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন হেযবুত তওহীদের সর্বোচ্চ নেতা এমাম হোসাইনমোহাম্মদ সেলিম।
অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন হেযবুত তওহীদের সর্বোচ্চ নেতা এমাম হোসাইনমোহাম্মদ সেলিম। সভাপতির বক্তব্যে তিনি বলেন, ব্রিটিশ ঔপনিবেশিকরা এইউপমহাদেশে উরারফব জঁষব নীতির প্রয়োগ করে হিন্দু ও মুসলমানদের মধ্যেসাম্প্রদায়িক দাঙ্গা ও শত্রুতার সূত্রপাত ঘটিয়েছিল যার প্রতিক্রিয়া আজও চলমান
আছে। প্রতিটি ধর্মেই উগ্রপন্থী গোষ্ঠী অপর ধর্মের বিরুদ্ধে বিদ্বেষ প্রচার করেবং রাজনৈতিক ইন্ধনে দাঙ্গাময় পরিস্থিতিকে উত্তপ্ত করে চলেছে। কিন্তু আমরামনে করি এগুলো প্রকৃতপক্ষে সাময়িক উপশম মাত্র, সমস্যার সমাধান নয়। হেযবুততওহীদ চেষ্টা করে যাচ্ছে প্রতিটি ধর্মের অনুসারীদের মধ্যে চিরন্তন ন্যায় ও সত্যের
ভিত্তিতে ঐক্যবদ্ধ করতে, পরস্পরের প্রতি শ্রদ্ধাবোধ, ভ্রাতৃত্ববোধ জাগ্রতকরতে, উভয় গোষ্ঠীর ভিতরকার দেওয়ালগুলোকে ভেঙে ফেলতে। এসময় মানবজাতিকেতিনি পুনরায় এক পরিবার হবার আহ্বান জানান।
হেযবুত তওহীদের কেন্দ্রীয় নারী বিষয়ক সম্পাদক ও দৈনিক দেশেরপত্রের সম্পাদকরুফায়দাহ পন্নীর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন বাংলাাদেশস্যাটেলাইট কোম্পানি লি. এর চেয়ারম্যান ড. শাজাহান মাহমুদ, বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট রানা দাশগুপ্ত, বাংলাদেশ পূজাউদপাযন পরিষদের সভাপতি শ্রী বাসুদেব ধর, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের পালি
বিভাগের অধ্যাপক ড. জ্ঞানবধি ভিক্ষু, বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্যপরিষদের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মনিন্দ্র কুমার নাথ, ঢাবি অধ্যাপক ড. নাজমুলআহসান কলিম উল্লাহ, ঢাবি অধ্যাপক সুকোমল বড়ুয়া, খ্রিস্টান ধর্মীয় কল্যাণট্রাস্টের ট্রাস্টি, উইলিয়াম প্রলয় সমদ্দার বাপ্পি, ঢাবি অধ্যাপক চন্দ্রনাথপোদ্দার, বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদের য্গ্মু সাধারণ সম্পাদক শ্রীমতি পদ্মাবতীদেবী প্রমুখ।এছাড়াও হেযবুত তওহীদের তথ্য সম্পাদক এস এম সামসুল হুদা, ঢাকা বিভাগের সভাপতিডা. মাহবুব আলম মাহফুজসহ দেশের স্বনামধন্য মিডিয়া ব্যক্তিত্বের উপস্থিতিতেহলরুম ছিল পরিপূর্ণআগত অতিথিবৃন্দ একে একে প্রতিপাদ্যের উপর আলোচনা রাখেন এবং তাদেরমূল্যবান মতামত প্রদান করেন।আলোচকরা অনুষ্ঠানের প্রতিপাদ্য বিষয়ের উপরে সহমত পোষণ করেন। তারা হোসাইনমোহাম্মদ সেলিমের এই সংগ্রামী মহতী উদ্যোগকে সাধুবাদ জানান। তার সাহসীকতারপ্রসংশা করেন এবং এই উগ্রবাদ, সাম্প্রদায়িকতা, ধর্মান্ধতার বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধহয়ে কাজ করার ইচ্ছা পোষণ করেন।

হেযবুত তওহীদের আলোচনা সভা,মানবজাতি হোক এক পরিবার- হোসাইন মোহাম্মদ সেলিম

প্রকাশের সময় : ০৭:৩১:২২ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ৯ জুন ২০২৪

মানবতার কল্যাণে নিবেদিত অরাজনৈতিক আন্দোলন হেযবুত তওহীদের উদ্যোগে‘সকল ধর্মের মর্মকথা – সবার ঊর্ধ্বে মানবতা’ এই স্লোগানকে ধারণ করে ধর্মীয়উগ্রবাদ, সাম্প্রদায়িকতা ও ধর্মান্ধতার বিরুদ্ধে করণীয় প্রসঙ্গে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
গতকাল শনিবার (৮ জুন ২০২৪ ইং) বিকাল ০৩ টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের তফাজ্জলহোসেন মানিক মিয়া কনফারেন্স হলে এই আলোচনা সভার আয়োজন করে হেযবুততওহীদ ঢাকা বিভাগ।
অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন হেযবুত তওহীদের সর্বোচ্চ নেতা এমাম হোসাইনমোহাম্মদ সেলিম। সভাপতির বক্তব্যে তিনি বলেন, ব্রিটিশ ঔপনিবেশিকরা এইউপমহাদেশে উরারফব জঁষব নীতির প্রয়োগ করে হিন্দু ও মুসলমানদের মধ্যেসাম্প্রদায়িক দাঙ্গা ও শত্রুতার সূত্রপাত ঘটিয়েছিল যার প্রতিক্রিয়া আজও চলমান
আছে। প্রতিটি ধর্মেই উগ্রপন্থী গোষ্ঠী অপর ধর্মের বিরুদ্ধে বিদ্বেষ প্রচার করেএবং রাজনৈতিক ইন্ধনে দাঙ্গাময় পরিস্থিতিকে উত্তপ্ত করে চলেছে। কিন্তু আমরামনে করি এগুলো প্রকৃতপক্ষে সাময়িক উপশম মাত্র, সমস্যার সমাধান নয়। হেযবুততওহীদ চেষ্টা করে যাচ্ছে প্রতিটি ধর্মের অনুসারীদের মধ্যে চিরন্তন ন্যায় ও সত্যেরভিত্তিতে ঐক্যবদ্ধ করতে, পরস্পরের প্রতি শ্রদ্ধাবোধ, ভ্রাতৃত্ববোধ জাগ্রতকরতে, উভয় গোষ্ঠীর ভিতরকার দেওয়ালগুলোকে ভেঙে ফেলতে। এসময় মানবজাতিকেতিনি পুনরায় এক পরিবার হবার আহ্বান জানান।
হেযবুত তওহীদের কেন্দ্রীয় নারী বিষয়ক সম্পাদক ও দৈনিক দেশেরপত্রের সম্পাদকরুফায়দাহ পন্নীর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন বাংলাাদেশস্যাটেলাইট কোম্পানি লি. এর চেয়ারম্যান ড. শাজাহান মাহমুদ, বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট রানা দাশগুপ্ত, বাংলাদেশ পূজাউদপাযন পরিষদের সভাপতি শ্রী বাসুদেব ধর, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের পালি
বিভাগের অধ্যাপক ড. জ্ঞানবধি ভিক্ষু, বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য

পরিষদের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মনিন্দ্র কুমার নাথ, ঢাবি অধ্যাপক ড. নাজমুলআহসান কলিম উল্লাহ, ঢাবি অধ্যাপক সুকোমল বড়ুয়া, খ্রিস্টান ধর্মীয় কল্যাণট্রাস্টের ট্রাস্টি, উইলিয়াম প্রলয় সমদ্দার বাপ্পি, ঢাবি অধ্যাপক চন্দ্রনাথপোদ্দার, বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদের য্গ্মু সাধারণ সম্পাদক শ্রীমতি পদ্মাবতী
দেবী প্রমুখ।
এছাড়াও হেযবুত তওহীদের তথ্য সম্পাদক এস এম সামসুল হুদা, ঢাকা বিভাগের সভাপতিডা. মাহবুব আলম মাহফুজসহ দেশের স্বনামধন্য মিডিয়া ব্যক্তিত্বের উপস্থিতিতেহলরুম ছিল পরিপূর্ণ।
আগত অতিথিবৃন্দ একে একে প্রতিপাদ্যের উপর আলোচনা রাখেন এবং তাদেরমূল্যবান মতামত প্রদান করেন।আলোচকরা অনুষ্ঠানের প্রতিপাদ্য বিষয়ের উপরে সহমত পোষণ করেন। তারা হোসাইন
মোহাম্মদ সেলিমের এই সংগ্রামী মহতী উদ্যোগকে সাধুবাদ জানান। তার সাহসীকতারপ্রসংশা করেন এবং এই উগ্রবাদ, সাম্প্রদায়িকতা, ধর্মান্ধতার বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধহয়ে কাজ করার ইচ্ছা পোষণ করেন।সর্বধর্মীয় সম্প্রীতি প্রতিষ্ঠায় জাতীয় প্রেসক্লাবে হেযবুত তওহীদের আলোচনা
সভা
মানবজাতি হোক এক পরিবার- হোসাইন মোহাম্মদ সেলিমমানবতার কল্যাণে নিবেদিত অরাজনৈতিক আন্দোলন হেযবুত তওহীদের উদ্যোগে‘সকল ধর্মের মর্মকথা – সবার ঊর্ধ্বে মানবতা’ এই স্লোগানকে ধারণ করে ধর্মীয়উগ্রবাদ, সাম্প্রদায়িকতা ও ধর্মান্ধতার বিরুদ্ধে করণীয় প্রসঙ্গে আলোচনা সভা
অনুষ্ঠিত হয়েছে।
গতকাল শনিবার (৮ জুন ২০২৪ ইং) বিকাল ০৩ টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের তফাজ্জলহোসেন মানিক মিয়া কনফারেন্স হলে এই আলোচনা সভার আয়োজন করে হেযবুততওহীদ ঢাকা বিভাগ।অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন হেযবুত তওহীদের সর্বোচ্চ নেতা এমাম হোসাইনমোহাম্মদ সেলিম।
অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন হেযবুত তওহীদের সর্বোচ্চ নেতা এমাম হোসাইনমোহাম্মদ সেলিম। সভাপতির বক্তব্যে তিনি বলেন, ব্রিটিশ ঔপনিবেশিকরা এইউপমহাদেশে উরারফব জঁষব নীতির প্রয়োগ করে হিন্দু ও মুসলমানদের মধ্যেসাম্প্রদায়িক দাঙ্গা ও শত্রুতার সূত্রপাত ঘটিয়েছিল যার প্রতিক্রিয়া আজও চলমান
আছে। প্রতিটি ধর্মেই উগ্রপন্থী গোষ্ঠী অপর ধর্মের বিরুদ্ধে বিদ্বেষ প্রচার করেবং রাজনৈতিক ইন্ধনে দাঙ্গাময় পরিস্থিতিকে উত্তপ্ত করে চলেছে। কিন্তু আমরামনে করি এগুলো প্রকৃতপক্ষে সাময়িক উপশম মাত্র, সমস্যার সমাধান নয়। হেযবুততওহীদ চেষ্টা করে যাচ্ছে প্রতিটি ধর্মের অনুসারীদের মধ্যে চিরন্তন ন্যায় ও সত্যের
ভিত্তিতে ঐক্যবদ্ধ করতে, পরস্পরের প্রতি শ্রদ্ধাবোধ, ভ্রাতৃত্ববোধ জাগ্রতকরতে, উভয় গোষ্ঠীর ভিতরকার দেওয়ালগুলোকে ভেঙে ফেলতে। এসময় মানবজাতিকেতিনি পুনরায় এক পরিবার হবার আহ্বান জানান।
হেযবুত তওহীদের কেন্দ্রীয় নারী বিষয়ক সম্পাদক ও দৈনিক দেশেরপত্রের সম্পাদকরুফায়দাহ পন্নীর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন বাংলাাদেশস্যাটেলাইট কোম্পানি লি. এর চেয়ারম্যান ড. শাজাহান মাহমুদ, বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট রানা দাশগুপ্ত, বাংলাদেশ পূজাউদপাযন পরিষদের সভাপতি শ্রী বাসুদেব ধর, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের পালি
বিভাগের অধ্যাপক ড. জ্ঞানবধি ভিক্ষু, বাংলাদেশ হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্যপরিষদের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মনিন্দ্র কুমার নাথ, ঢাবি অধ্যাপক ড. নাজমুলআহসান কলিম উল্লাহ, ঢাবি অধ্যাপক সুকোমল বড়ুয়া, খ্রিস্টান ধর্মীয় কল্যাণট্রাস্টের ট্রাস্টি, উইলিয়াম প্রলয় সমদ্দার বাপ্পি, ঢাবি অধ্যাপক চন্দ্রনাথপোদ্দার, বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদের য্গ্মু সাধারণ সম্পাদক শ্রীমতি পদ্মাবতীদেবী প্রমুখ।এছাড়াও হেযবুত তওহীদের তথ্য সম্পাদক এস এম সামসুল হুদা, ঢাকা বিভাগের সভাপতিডা. মাহবুব আলম মাহফুজসহ দেশের স্বনামধন্য মিডিয়া ব্যক্তিত্বের উপস্থিতিতেহলরুম ছিল পরিপূর্ণআগত অতিথিবৃন্দ একে একে প্রতিপাদ্যের উপর আলোচনা রাখেন এবং তাদেরমূল্যবান মতামত প্রদান করেন।আলোচকরা অনুষ্ঠানের প্রতিপাদ্য বিষয়ের উপরে সহমত পোষণ করেন। তারা হোসাইনমোহাম্মদ সেলিমের এই সংগ্রামী মহতী উদ্যোগকে সাধুবাদ জানান। তার সাহসীকতারপ্রসংশা করেন এবং এই উগ্রবাদ, সাম্প্রদায়িকতা, ধর্মান্ধতার বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধহয়ে কাজ করার ইচ্ছা পোষণ করেন।