মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ৪ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মৌলভীবাজারে জাল নোটসহ আটক-২

মৌলভীবাজারে সাত হাজার টাকার জাল নোটসহ জাবেদ আলী ও আনোয়ার মিয়া নামের দুই জনকে আটক করে পুলিশ।
শনিবার ( ৮ জুন) বিকেলে মৌলভীবাজার সদর উপজেলার চাঁদনীঘাট ইউপিস্থ মাতারকাপন এলাকার মুদি দোকান বাহার এন্টারপ্রাইজ থেকে তাদেরকে আটক করা হয়।
মৌলভীবাজার সদর মডেল থানা সুত্রে জানা যায়, শনিবার বিকেলে মাতারকাপন এলাকার জনৈক মোজাহিদ মিয়ার মুদি দোকানে দুইজন লোক কেনাকাটা করতে আসে। তারা কেনাকাটা শেষে দুই জন দুটি ১,০০০ টাকার নোট দোকানদার মোজাহিদ মিয়াকে দেয়। দোকানদার নোট দুটি যাচাই করে জাল নোট হিসেবে শনাক্ত করেন। পরে মৌলভীবাজার থানাকে অবহিত করে। সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে দুইজনকে আটক করে।
পুলিশ আটককৃত ব্যক্তিদের তল্লাশি করে জাবেদ আলীর শার্টের পকেট থেকে ১,০০০ টাকার ৪ টি নোট এবং ২। আনোয়ার মিয়ার শার্টের পকেট থেকে ২টি ১,০০০ টাকার নোট এবং ২টি ৫০০ টাকা মূল্যের জাল নোটসহ মোট ৭,০০০ টাকার জাল নোট জব্দ করে।
এই ঘটনায় মৌলভীবাজার সদর থানায় বিশেষ ক্ষমতা আইনে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। এবং বোরবার মৌলভীবাজার বিজ্ঞ আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে।
এ বিষয়ে পুলিশ সুপার মোঃ মনজুর রহমান বলেন, ‘আমরা জাল টাকার এই চক্রের সাথে আরও যারা জড়িত আছে তাদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা করছি। প্রতি বছরই ঈদুল আজহার আগে সারা দেশে একটা চক্র জাল টাকা বিস্তারের চেষ্টা করে। কোরবানীর হাটে যাতে কেউ জাল টাকা ছড়াতে না পারে সেই লক্ষ্যে মৌলভীবাজার জেলা পুলিশ তৎপর ভূমিকা পালন করছে’।

মৌলভীবাজারে জাল নোটসহ আটক-২

প্রকাশের সময় : ০৭:২৪:৩৩ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১০ জুন ২০২৪
মৌলভীবাজারে সাত হাজার টাকার জাল নোটসহ জাবেদ আলী ও আনোয়ার মিয়া নামের দুই জনকে আটক করে পুলিশ।
শনিবার ( ৮ জুন) বিকেলে মৌলভীবাজার সদর উপজেলার চাঁদনীঘাট ইউপিস্থ মাতারকাপন এলাকার মুদি দোকান বাহার এন্টারপ্রাইজ থেকে তাদেরকে আটক করা হয়।
মৌলভীবাজার সদর মডেল থানা সুত্রে জানা যায়, শনিবার বিকেলে মাতারকাপন এলাকার জনৈক মোজাহিদ মিয়ার মুদি দোকানে দুইজন লোক কেনাকাটা করতে আসে। তারা কেনাকাটা শেষে দুই জন দুটি ১,০০০ টাকার নোট দোকানদার মোজাহিদ মিয়াকে দেয়। দোকানদার নোট দুটি যাচাই করে জাল নোট হিসেবে শনাক্ত করেন। পরে মৌলভীবাজার থানাকে অবহিত করে। সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে দুইজনকে আটক করে।
পুলিশ আটককৃত ব্যক্তিদের তল্লাশি করে জাবেদ আলীর শার্টের পকেট থেকে ১,০০০ টাকার ৪ টি নোট এবং ২। আনোয়ার মিয়ার শার্টের পকেট থেকে ২টি ১,০০০ টাকার নোট এবং ২টি ৫০০ টাকা মূল্যের জাল নোটসহ মোট ৭,০০০ টাকার জাল নোট জব্দ করে।
এই ঘটনায় মৌলভীবাজার সদর থানায় বিশেষ ক্ষমতা আইনে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। এবং বোরবার মৌলভীবাজার বিজ্ঞ আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে।
এ বিষয়ে পুলিশ সুপার মোঃ মনজুর রহমান বলেন, ‘আমরা জাল টাকার এই চক্রের সাথে আরও যারা জড়িত আছে তাদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা করছি। প্রতি বছরই ঈদুল আজহার আগে সারা দেশে একটা চক্র জাল টাকা বিস্তারের চেষ্টা করে। কোরবানীর হাটে যাতে কেউ জাল টাকা ছড়াতে না পারে সেই লক্ষ্যে মৌলভীবাজার জেলা পুলিশ তৎপর ভূমিকা পালন করছে’।