বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ৪ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কেরানীগঞ্জে মহাসড়ক দখল করে চলছে রমরমা কাঠের ব্যবসা

ঢাকার দক্ষিণ কেরানীগঞ্জের ঢাকা-মাওয়া সড়কের তেঘরিয়া স্ট্যান্ড এলাকায় জন গুরুত্বপূর্ণ মহাসড়ক দখল করে রমরমা ব্যবসা করছে কাঠ ব্যবসায়ীরা। এই গুরুত্বপূর্ণ সড়ক কাঠ দিয়ে দখল করে রাখার কারণে প্রতিনিয়ত ঘটছে দুর্ঘটনা। এছাড়া যা নবাহন চলাচলেও  অসুবিধা হচ্ছে।
সারেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানা থেকে মাত্র ২০০ মিটার পশ্চিমে ঢাকা মাওয়া মহাসড়কের তেঘরিয়া স্ট্যান্ড। এই স্ট্যান্ড থেকে প্রায় আধা কিলোমিটার সড়কের প্রায় অর্ধেক জায়গা দখল করে কাঠ বিছিয়ে রাখা হয়েছে।
এছাড়া জনগণের যাতায়াতের সরকারি ফুটপাতে  রাস্তায় কাঠের গুড়ি ফেলে চলাচল বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। প্রকাশ্যে এ ধরনের ঘটনা ঘটলেও প্রশাসন কোন ভূমিকা নেয়নি বলে জানিয়েছেন ওই এলাকার জনগণ।
এলাকাবাসী জানান, তেঘরিয়া স্ট্যান্ডের ওভার ব্রিজের নিচের জায়গাও দখল করে দোকান বসানো হয়েছে। এতে করে ফুটপাত দিয়ে জনগণের যাতায়াতের রাস্তা বন্ধ হয়ে গেছে। ওভার ব্রিজ এলাকা থেকে শুরু করে রাস্তার দক্ষিণ পাশে জনগণের যাতায়াতের ফুটপাত দখল করে রেখেছে স্থানীয় কাঠের দোকানদাররা। তারা বড় বড় কাঠের গুড়ি ফেলে এই রাস্তাটি নিজেদের দখলে নিয়েছে। আর এই কারণেই এই এলাকায় প্রায়ই দুর্ঘটনা ঘটছে। ‌ এই  এলাকার সো, মিলের  মালিকরা নিজেদের খেয়াল খুশি মত জন গুরুত্বপূর্ণ এই মহাসড়কের রাস্তার অংশ দখল করে রেখেছে। কাঠের গুড়ি ফেলার কারণে রাস্তার অনেক অংশ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এছাড়া   কাঠের গুড়ি রাস্তায় ফেলার কারণে যানবাহন চলাচল ব্যাহত হয় । বিশেষ করে রাতের বেলায় অনেক যানবাহন দুর্ঘটনার কবলে পড়ে এই কাঠের গুড়ির কারণে।
সাধারণ গ্রামবাসী অবিলম্বে রাস্তার পাশ থেকে দখল করা জায়গাগুলো উচ্ছেদ করে দখলদারদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থার দাবী জানিয়েছে প্রশাসনের কাছে।

কেরানীগঞ্জে মহাসড়ক দখল করে চলছে রমরমা কাঠের ব্যবসা

প্রকাশের সময় : ০৯:৫১:৪৮ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১১ জুন ২০২৪
ঢাকার দক্ষিণ কেরানীগঞ্জের ঢাকা-মাওয়া সড়কের তেঘরিয়া স্ট্যান্ড এলাকায় জন গুরুত্বপূর্ণ মহাসড়ক দখল করে রমরমা ব্যবসা করছে কাঠ ব্যবসায়ীরা। এই গুরুত্বপূর্ণ সড়ক কাঠ দিয়ে দখল করে রাখার কারণে প্রতিনিয়ত ঘটছে দুর্ঘটনা। এছাড়া যা নবাহন চলাচলেও  অসুবিধা হচ্ছে।
সারেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানা থেকে মাত্র ২০০ মিটার পশ্চিমে ঢাকা মাওয়া মহাসড়কের তেঘরিয়া স্ট্যান্ড। এই স্ট্যান্ড থেকে প্রায় আধা কিলোমিটার সড়কের প্রায় অর্ধেক জায়গা দখল করে কাঠ বিছিয়ে রাখা হয়েছে।
এছাড়া জনগণের যাতায়াতের সরকারি ফুটপাতে  রাস্তায় কাঠের গুড়ি ফেলে চলাচল বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। প্রকাশ্যে এ ধরনের ঘটনা ঘটলেও প্রশাসন কোন ভূমিকা নেয়নি বলে জানিয়েছেন ওই এলাকার জনগণ।
এলাকাবাসী জানান, তেঘরিয়া স্ট্যান্ডের ওভার ব্রিজের নিচের জায়গাও দখল করে দোকান বসানো হয়েছে। এতে করে ফুটপাত দিয়ে জনগণের যাতায়াতের রাস্তা বন্ধ হয়ে গেছে। ওভার ব্রিজ এলাকা থেকে শুরু করে রাস্তার দক্ষিণ পাশে জনগণের যাতায়াতের ফুটপাত দখল করে রেখেছে স্থানীয় কাঠের দোকানদাররা। তারা বড় বড় কাঠের গুড়ি ফেলে এই রাস্তাটি নিজেদের দখলে নিয়েছে। আর এই কারণেই এই এলাকায় প্রায়ই দুর্ঘটনা ঘটছে। ‌ এই  এলাকার সো, মিলের  মালিকরা নিজেদের খেয়াল খুশি মত জন গুরুত্বপূর্ণ এই মহাসড়কের রাস্তার অংশ দখল করে রেখেছে। কাঠের গুড়ি ফেলার কারণে রাস্তার অনেক অংশ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এছাড়া   কাঠের গুড়ি রাস্তায় ফেলার কারণে যানবাহন চলাচল ব্যাহত হয় । বিশেষ করে রাতের বেলায় অনেক যানবাহন দুর্ঘটনার কবলে পড়ে এই কাঠের গুড়ির কারণে।
সাধারণ গ্রামবাসী অবিলম্বে রাস্তার পাশ থেকে দখল করা জায়গাগুলো উচ্ছেদ করে দখলদারদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থার দাবী জানিয়েছে প্রশাসনের কাছে।