বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ৩ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ঈদে গরুর ভুঁড়ি পরিষ্কার করার সহজ কৌশল

গরুর ভুঁড়ি অনেকের কাছে জিভে জল আনা একটি খাবার, আবার অনেকে এর গন্ধও সহ্য করতে পারেন না। গরুর ভুঁড়ির বিষয়টি অনেকটা শুঁটকির মতো। কারও কাছে ভীষণ প্রিয় তো কারও কাছে আবার অসহ্যকর। তবে গরু বা খাসির ভুঁড়ি ভুনা খেতে পছন্দ করেন এমন মানুষের সংখ্যা কম নয়। কিন্তু এই ভুঁড়ি পরিষ্কার করাটা কষ্টকর। আগামীকাল রোববার পবিত্র ঈদুল আজহা বা কুরবানির ঈদ। সেসময় কুরবানির পশুর ভুঁড়ি পরিষ্কারের প্রয়োজন হবে।

ভুঁড়ি পরিষ্কার করার জন্য যা লাগবে

* চুন
* হলুদ গুঁড়া
* ধারালো ছুরি
* বড় বালতি বা গামলা
* বড় হাড়ি

যেভাবে পরিষ্কার করবেন

প্রথমে ধারালো ছুরি দিয়ে ভুঁড়ি দুইভাগ করে এর ভেতরের সব ময়লা বের করে নিতে হবে। এরপর গরম পানি দিয়ে ভুঁড়ির ভেতরটা ভালো করে ধুয়ে নিতে হবে। ভুঁড়িটিকে বড় বড় টুকরা করে কেটে নিতে হবে। বালতিতে শুকনো চুন পরিমাণমতো পানি দিয়ে টুকরো করা ভুঁড়িগুলোকে ৪০-৪৫ মিনিট ভিজিয়ে রাখবেন। এমনভাবে ভেজাবেন যেন চুনের পানিতে ভুঁড়িগুলো ডুবে থাকে। ৪০-৪৫ মিনিট পরে ভুঁড়ির টুকরোগুলোকে চুন মিশ্রিত পানি থেকে তুলে ছুরি বা চামচ দিয়ে ভালোভাবে চেঁছে নিন। এতে করে খুব সহজেই ভুঁড়ি থেকে কালো অংশটুকু উঠে ভুঁড়ি সাদা হয়ে যাবে। ময়লাগুলো এরপরও পরিষ্কার না হলে আরও ১০/১৫ মিনিট চুনের পানিতে ডুবিয়ে রাখতে হবে। এতে ময়লাগুলো তুলে ফেলা যাবে সহজেই।

এই পর্যায়ে এসে একটি বড় হাঁড়িতে পানি দিয়ে চুলায় বসিয়ে দিন। পানি ফুটে উঠলে তাতে এক চা চামচ হলুদ গুঁড়া মিশিয়ে দিন। এবার টুকরো করা ভুঁড়িগুলোকে ১০/১৫ মিনিট সেদ্ধ করে নিন। এতে করে ভুঁড়িতে থাকা দুর্গন্ধ অনেকটাই কেটে যাবে।

সেদ্ধ করা ভুঁড়ির টুকরোগুলো গরম থাকতে থাকতেই আবারও ছুরি বা চামচ দিয়ে চেঁছে নিতে হবে। গরম অবস্থায় চাঁচলে ভুঁড়ির পেছনে লেগে থাকা চর্বি আর পর্দাগুলো অনায়াসেই উঠে যাবে। পরিষ্কার করা ভুঁড়িগুলোকে ঠান্ডা হওয়ার পর ছোট ছোট টুকরো করে রান্না করতে পারেন। চাইলে ফ্রিজে সংরক্ষণ করতে পারেন।

ঈদে গরুর ভুঁড়ি পরিষ্কার করার সহজ কৌশল

প্রকাশের সময় : ০৪:৩২:৩৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪

গরুর ভুঁড়ি অনেকের কাছে জিভে জল আনা একটি খাবার, আবার অনেকে এর গন্ধও সহ্য করতে পারেন না। গরুর ভুঁড়ির বিষয়টি অনেকটা শুঁটকির মতো। কারও কাছে ভীষণ প্রিয় তো কারও কাছে আবার অসহ্যকর। তবে গরু বা খাসির ভুঁড়ি ভুনা খেতে পছন্দ করেন এমন মানুষের সংখ্যা কম নয়। কিন্তু এই ভুঁড়ি পরিষ্কার করাটা কষ্টকর। আগামীকাল রোববার পবিত্র ঈদুল আজহা বা কুরবানির ঈদ। সেসময় কুরবানির পশুর ভুঁড়ি পরিষ্কারের প্রয়োজন হবে।

ভুঁড়ি পরিষ্কার করার জন্য যা লাগবে

* চুন
* হলুদ গুঁড়া
* ধারালো ছুরি
* বড় বালতি বা গামলা
* বড় হাড়ি

যেভাবে পরিষ্কার করবেন

প্রথমে ধারালো ছুরি দিয়ে ভুঁড়ি দুইভাগ করে এর ভেতরের সব ময়লা বের করে নিতে হবে। এরপর গরম পানি দিয়ে ভুঁড়ির ভেতরটা ভালো করে ধুয়ে নিতে হবে। ভুঁড়িটিকে বড় বড় টুকরা করে কেটে নিতে হবে। বালতিতে শুকনো চুন পরিমাণমতো পানি দিয়ে টুকরো করা ভুঁড়িগুলোকে ৪০-৪৫ মিনিট ভিজিয়ে রাখবেন। এমনভাবে ভেজাবেন যেন চুনের পানিতে ভুঁড়িগুলো ডুবে থাকে। ৪০-৪৫ মিনিট পরে ভুঁড়ির টুকরোগুলোকে চুন মিশ্রিত পানি থেকে তুলে ছুরি বা চামচ দিয়ে ভালোভাবে চেঁছে নিন। এতে করে খুব সহজেই ভুঁড়ি থেকে কালো অংশটুকু উঠে ভুঁড়ি সাদা হয়ে যাবে। ময়লাগুলো এরপরও পরিষ্কার না হলে আরও ১০/১৫ মিনিট চুনের পানিতে ডুবিয়ে রাখতে হবে। এতে ময়লাগুলো তুলে ফেলা যাবে সহজেই।

এই পর্যায়ে এসে একটি বড় হাঁড়িতে পানি দিয়ে চুলায় বসিয়ে দিন। পানি ফুটে উঠলে তাতে এক চা চামচ হলুদ গুঁড়া মিশিয়ে দিন। এবার টুকরো করা ভুঁড়িগুলোকে ১০/১৫ মিনিট সেদ্ধ করে নিন। এতে করে ভুঁড়িতে থাকা দুর্গন্ধ অনেকটাই কেটে যাবে।

সেদ্ধ করা ভুঁড়ির টুকরোগুলো গরম থাকতে থাকতেই আবারও ছুরি বা চামচ দিয়ে চেঁছে নিতে হবে। গরম অবস্থায় চাঁচলে ভুঁড়ির পেছনে লেগে থাকা চর্বি আর পর্দাগুলো অনায়াসেই উঠে যাবে। পরিষ্কার করা ভুঁড়িগুলোকে ঠান্ডা হওয়ার পর ছোট ছোট টুকরো করে রান্না করতে পারেন। চাইলে ফ্রিজে সংরক্ষণ করতে পারেন।