বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ৩ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

খালেদা জিয়াকে হাসপাতালে দেখতে গেলেন ফখরুল

ছবি: সংগৃহীত

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে দেখতে রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে গেছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

সোমবার (৮ জুলাই) দুপুরে সাড়ে ১২টার দিকে তিনি হাসপাতালে যান। বিএনপির মিডিয়া সেলের তরফে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

এর আগে, রোববার দিনগত রাতে হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েন খালেদা জিয়া। পরে মেডিকেল বোর্ডের পরামর্শে ভোর সোয়া চারটার দিকে তাকে এভারকেয়ার হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

বেগম জিয়ার ব্যক্তিগত চিকিৎসক ডা. একে এম জাহিদ হোসেন সোমবার দুপুরে জানান, ভোরে হঠাৎ করে শ্বাসকষ্ট ও শারীরিক দুর্বলতা বেড়ে যাওয়া বেগম জিয়াকে হাসপাতালের সিসিইউতে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসা শেষে দুপুর ১২টার দিকে তাকে কেবিনে স্থানান্তর করা হয়। তবে তাকে নিবিড় পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে।

গত ২২ জুন রাতেও এভাবে হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েন খালেদা জিয়া। পরে হাসপাতালে নেওয়া হলে সিসিইউতে ভর্তি করে পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষে ২৪ জুন তার হৃদযন্ত্রে পেসমেকার বসানো হয়।

বিএনপি চেয়ারপারসন দীর্ঘদিন ধরে লিভার সিরোসিস, আর্থ্রাইটিস, ডায়াবেটিস, হৃদরোগ, কিডনি ও ফুসফুস জটিলতাসহ নানা রোগে ভুগছেন।

উল্লেখ্য, জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট ও জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় সাজাপ্রাপ্ত সাবেক এই প্রধানমন্ত্রীকে ২০২০ সালের ২৫ মার্চ সরকার নির্বাহী আদেশে শর্ত সাপেক্ষে মুক্তি দেয়। এরপর থেকে ছয় মাস পরপর তার সাজা স্থগিত করে মুক্তির মেয়াদ বাড়াচ্ছে সরকার।

খালেদা জিয়াকে হাসপাতালে দেখতে গেলেন ফখরুল

প্রকাশের সময় : ০১:৩৭:১৮ অপরাহ্ন, সোমবার, ৮ জুলাই ২০২৪

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে দেখতে রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে গেছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

সোমবার (৮ জুলাই) দুপুরে সাড়ে ১২টার দিকে তিনি হাসপাতালে যান। বিএনপির মিডিয়া সেলের তরফে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

এর আগে, রোববার দিনগত রাতে হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েন খালেদা জিয়া। পরে মেডিকেল বোর্ডের পরামর্শে ভোর সোয়া চারটার দিকে তাকে এভারকেয়ার হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

বেগম জিয়ার ব্যক্তিগত চিকিৎসক ডা. একে এম জাহিদ হোসেন সোমবার দুপুরে জানান, ভোরে হঠাৎ করে শ্বাসকষ্ট ও শারীরিক দুর্বলতা বেড়ে যাওয়া বেগম জিয়াকে হাসপাতালের সিসিইউতে ভর্তি করা হয়। চিকিৎসা শেষে দুপুর ১২টার দিকে তাকে কেবিনে স্থানান্তর করা হয়। তবে তাকে নিবিড় পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে।

গত ২২ জুন রাতেও এভাবে হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েন খালেদা জিয়া। পরে হাসপাতালে নেওয়া হলে সিসিইউতে ভর্তি করে পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষে ২৪ জুন তার হৃদযন্ত্রে পেসমেকার বসানো হয়।

বিএনপি চেয়ারপারসন দীর্ঘদিন ধরে লিভার সিরোসিস, আর্থ্রাইটিস, ডায়াবেটিস, হৃদরোগ, কিডনি ও ফুসফুস জটিলতাসহ নানা রোগে ভুগছেন।

উল্লেখ্য, জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট ও জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় সাজাপ্রাপ্ত সাবেক এই প্রধানমন্ত্রীকে ২০২০ সালের ২৫ মার্চ সরকার নির্বাহী আদেশে শর্ত সাপেক্ষে মুক্তি দেয়। এরপর থেকে ছয় মাস পরপর তার সাজা স্থগিত করে মুক্তির মেয়াদ বাড়াচ্ছে সরকার।