বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ৩ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ক্ষেতলালে শিশু বলাৎকারের পলাতক আসামি গ্রেপ্তার

জয়পুরহাটের ক্ষেতলালে ৭ বছরের দ্বিতীয় শ্রেণী পড়ুয়া এক শিশু শিক্ষার্থীকে বলাৎকার করে দীর্ঘদিন পলাতক থাকা আসামি আব্দুর রউফকে (৫০) কে গ্রেপ্তার করেছে থানা পুলিশ।
থানা সূত্রে জানা গেছে, গত ফেব্রুয়ারী মাসে উপজেলার আয়মাপুর পূর্বপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে। আয়মাপুর পূর্বপাড়া গ্রামের দ্বিতীয় শ্রেণির এক শিক্ষার্থী বাড়ির নিকটবর্তী একটি মুদি দোকানের পাশে প্রতিবেশি এক সহপাঠী শিশুর সাথে খেলা করছিল। এমন সময় একই গ্রামের জালাল খাঁর ছেলে আব্দুর রউফ শিশুটিকে বিভিন খাবারের লোভ দেখিয়ে রাস্তার পাশেই তার মুরগীর খামারে ডেকে নিয়ে গিয়ে বলৎকার করে। পরে এ বিষয়ে ঘটনার দিন ওই ভুক্তভোগী শিশুর মা বাদী হয়ে ক্ষেতলাল থানায় একটি ধর্ষণ মামলা করেছেন। ঘটনার পর থেকে দীর্ঘদিন ধরে সে পলাতক ছিল। গত ৭ (জুলাই) রবিবার দিবাগত রাতে গোপন সংবাদের মাধ্যমে থানা পুলিশের একটি টিম বগুড়া শহরের বিভিন্ন জায়গায় অভিযান চালিয়ে কাহালু এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করেছে।
এ বিষয়ে ক্ষেতলাল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আনোয়ার হোসেন জানান, শিশু ধর্ষণের ঘটনায় থানায় একটি ধর্ষণ মামলা হয়েছিলো। আসামী দীর্ঘদিন পলাতক ছিলেন। আমাদের থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে বগুড়ার কাহালু এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করেছে। ৮ (জুলাই) সোমবার তাকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।

ক্ষেতলালে শিশু বলাৎকারের পলাতক আসামি গ্রেপ্তার

প্রকাশের সময় : ০৩:০২:৩৫ অপরাহ্ন, সোমবার, ৮ জুলাই ২০২৪
জয়পুরহাটের ক্ষেতলালে ৭ বছরের দ্বিতীয় শ্রেণী পড়ুয়া এক শিশু শিক্ষার্থীকে বলাৎকার করে দীর্ঘদিন পলাতক থাকা আসামি আব্দুর রউফকে (৫০) কে গ্রেপ্তার করেছে থানা পুলিশ।
থানা সূত্রে জানা গেছে, গত ফেব্রুয়ারী মাসে উপজেলার আয়মাপুর পূর্বপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে। আয়মাপুর পূর্বপাড়া গ্রামের দ্বিতীয় শ্রেণির এক শিক্ষার্থী বাড়ির নিকটবর্তী একটি মুদি দোকানের পাশে প্রতিবেশি এক সহপাঠী শিশুর সাথে খেলা করছিল। এমন সময় একই গ্রামের জালাল খাঁর ছেলে আব্দুর রউফ শিশুটিকে বিভিন খাবারের লোভ দেখিয়ে রাস্তার পাশেই তার মুরগীর খামারে ডেকে নিয়ে গিয়ে বলৎকার করে। পরে এ বিষয়ে ঘটনার দিন ওই ভুক্তভোগী শিশুর মা বাদী হয়ে ক্ষেতলাল থানায় একটি ধর্ষণ মামলা করেছেন। ঘটনার পর থেকে দীর্ঘদিন ধরে সে পলাতক ছিল। গত ৭ (জুলাই) রবিবার দিবাগত রাতে গোপন সংবাদের মাধ্যমে থানা পুলিশের একটি টিম বগুড়া শহরের বিভিন্ন জায়গায় অভিযান চালিয়ে কাহালু এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করেছে।
এ বিষয়ে ক্ষেতলাল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আনোয়ার হোসেন জানান, শিশু ধর্ষণের ঘটনায় থানায় একটি ধর্ষণ মামলা হয়েছিলো। আসামী দীর্ঘদিন পলাতক ছিলেন। আমাদের থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে বগুড়ার কাহালু এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করেছে। ৮ (জুলাই) সোমবার তাকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।