বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০২৪, ৩ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

রাশিয়ায় পুতিনের মধ্যাহ্নভোজে অংশ নিলেন নরেন্দ্র মোদী

রাশিয়ার মাটিতে পা রেখেই চিনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংকে হারিয়ে দিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সরকারের তরফে অভ্যর্থনা জানানোর মাপকাঠিতে। ২০২৩-এর মার্চ মস্কোর বিমানবন্দরে জিনপিংকে অভ্যর্থনা জানাতে হাজির ছিলেন পুতিন সরকারের দ্বিতীয় উপ-প্রধানমন্ত্রী দিমিত্রি চেরনিশেঙ্কো। সোমবার একই বিমানবন্দরে মোদীকে তাঁকে স্বাগত জানালেন দিমিত্রির ‘সিনিয়র’, রাশিয়ার প্রথম উপ-প্রধানমন্ত্রী ডেনিস মান্তুরভ।

বিমানবন্দর থেকে মান্তুরভের সঙ্গে গা কার্লটন হোটেলে পৌঁছয় মোদীর কনভয়। সেখানে তাঁকে স্বাগত জানাতে হাজির ছিলেন প্রবাসী ভারতীয়েরা। ছিল রুশ নৃত্যশিল্পীদের হিন্দি গানের তালে নাচের আসর। প্রবাসী ভারতীয় সংগঠনের প্রতিনিধিদের সঙ্গে দেখা করার পরে প্রেসিডেন্ট পুতিনের প্রাসাদে মধ্যাহ্নভোজের আমন্ত্রণ রক্ষা করতে যান প্রধানমন্ত্রী। দু’জনের মধ্যে একান্তে কিছুক্ষণ আলোচনাও হয়। সেখান থেকে মোদী ভিডিএনকেএইচ কমপ্লেক্স এবং রোসাটম প্যাভিলিয়নের একটি প্রদর্শনী কেন্দ্রও পরিদর্শন করেন।রাশিয়ার মাটিতে পা রাখার পরে এক্স হ্যান্ডলে মোদী লেখেন, ‘‘আমরা দু’দেশের মধ্যে বিশেষ সুবিধাপ্রাপ্ত কৌশলগত অংশীদারি আরও গভীর করার জন্য উন্মুখ। বিশেষত, ভবিষ্যতের সহযোগিতার ক্ষেত্রে।’’ প্রসঙ্গত, গত এক দশকে এটি ছিল মোদী এবং পুতিনের ১৭তম বৈঠক। যদিও ২০১৫ সালের পর এই প্রথম আবার মস্কোয় গেলেন প্রধানমন্ত্রী। বিদেশ মন্ত্রক সূত্রের খবর, ইউক্রেন যুদ্ধের আবহে মোদীর দু’দিনের এই রাশিয়া সফরে দ্বিপাক্ষিক প্রতিরক্ষা সহযোগিতা-সহ বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ চুক্তি সই হওয়ার সম্ভাবনা। মঙ্গলে ভারত-রাশিয়া শীর্ষ সম্মেলনে অংশ নেবেন দুই রাষ্ট্রনেতা।

রাশিয়ায় পুতিনের মধ্যাহ্নভোজে অংশ নিলেন নরেন্দ্র মোদী

প্রকাশের সময় : ০৭:৩০:১৪ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ৯ জুলাই ২০২৪

রাশিয়ার মাটিতে পা রেখেই চিনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংকে হারিয়ে দিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সরকারের তরফে অভ্যর্থনা জানানোর মাপকাঠিতে। ২০২৩-এর মার্চ মস্কোর বিমানবন্দরে জিনপিংকে অভ্যর্থনা জানাতে হাজির ছিলেন পুতিন সরকারের দ্বিতীয় উপ-প্রধানমন্ত্রী দিমিত্রি চেরনিশেঙ্কো। সোমবার একই বিমানবন্দরে মোদীকে তাঁকে স্বাগত জানালেন দিমিত্রির ‘সিনিয়র’, রাশিয়ার প্রথম উপ-প্রধানমন্ত্রী ডেনিস মান্তুরভ।

বিমানবন্দর থেকে মান্তুরভের সঙ্গে গা কার্লটন হোটেলে পৌঁছয় মোদীর কনভয়। সেখানে তাঁকে স্বাগত জানাতে হাজির ছিলেন প্রবাসী ভারতীয়েরা। ছিল রুশ নৃত্যশিল্পীদের হিন্দি গানের তালে নাচের আসর। প্রবাসী ভারতীয় সংগঠনের প্রতিনিধিদের সঙ্গে দেখা করার পরে প্রেসিডেন্ট পুতিনের প্রাসাদে মধ্যাহ্নভোজের আমন্ত্রণ রক্ষা করতে যান প্রধানমন্ত্রী। দু’জনের মধ্যে একান্তে কিছুক্ষণ আলোচনাও হয়। সেখান থেকে মোদী ভিডিএনকেএইচ কমপ্লেক্স এবং রোসাটম প্যাভিলিয়নের একটি প্রদর্শনী কেন্দ্রও পরিদর্শন করেন।রাশিয়ার মাটিতে পা রাখার পরে এক্স হ্যান্ডলে মোদী লেখেন, ‘‘আমরা দু’দেশের মধ্যে বিশেষ সুবিধাপ্রাপ্ত কৌশলগত অংশীদারি আরও গভীর করার জন্য উন্মুখ। বিশেষত, ভবিষ্যতের সহযোগিতার ক্ষেত্রে।’’ প্রসঙ্গত, গত এক দশকে এটি ছিল মোদী এবং পুতিনের ১৭তম বৈঠক। যদিও ২০১৫ সালের পর এই প্রথম আবার মস্কোয় গেলেন প্রধানমন্ত্রী। বিদেশ মন্ত্রক সূত্রের খবর, ইউক্রেন যুদ্ধের আবহে মোদীর দু’দিনের এই রাশিয়া সফরে দ্বিপাক্ষিক প্রতিরক্ষা সহযোগিতা-সহ বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ চুক্তি সই হওয়ার সম্ভাবনা। মঙ্গলে ভারত-রাশিয়া শীর্ষ সম্মেলনে অংশ নেবেন দুই রাষ্ট্রনেতা।