মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ক্ষেতলালে সেতুর নিচ থেকে মাদ্রাসা ছাত্রের মরদেহ উদ্ধার

নিহত মাদ্রাসা ছাত্র আরাফাত হোসেন জনি ইনসেটে

জয়পুরহাটের ক্ষেতলালে তুলসীগঙ্গা নদীর বটতলী সেতুর নিচ থেকে অষ্টম শ্রেণি পড়ুয়া এক মাদ্রাসা ছাত্রের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। সোমবার (১৫ এপ্রিল) সকাল সাড়ে ১১ টায় মরদেহটি উদ্ধার করা হয়। সেতু থেকে পড়ে গিয়ে ওই ছাত্র মারা গেছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করছে পুলিশ।
নিহত ওই ছাত্রের নাম মোঃ আরাফাত হোসেন জনি  (১৫)। সে ক্ষেতলাল উপজেলার দাশড়া উত্তর পাড়া গ্রামের আলী আকবরের ছেলে। ক্ষেতলাল ক্ষেতলাল খোশবদন জি, ইউ আলিম মাদ্রাসার অষ্টম শ্রেণির ছাত্র ছিল।
পুলিশ ও পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, আজ সোমবার সকালে জনি তার খালার বাড়ি বগুড়া শিবগঞ্জ উপজেলা যাওয়ার কথা বলে বাড়ি থেকে বের হয়। সকাল দশটার পর জয়পুরহাট-মোকামতলা আঞ্চলিক মহাসড়কের ক্ষেতলাল উপজেলার তুলসীগঙ্গা নদীর বটতলী সেতুর নিচে একটি  মরদেহ পড়ে থাকতে দেখেন লোকজন। মরদেহটি দাশড়া গ্রামের আলী আকবরের ছেলে জনির বলে শনাক্ত করা হয়। স্বজনেরা এসে জনির মরদেহ বাড়িতে নিয়ে যায়। পুলিশ ঘটনাস্থল এসে  মরদেহ পায়নি। এরপর পুলিশ জনিদের বাড়িতে গিয়ে মরদেহটি উদ্ধার করে।
ক্ষেতলাল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনোয়ার হোসেন বলেন, তুলসীগঙ্গা নদীর বটতলী সেতুর নিচে এক কিশোরের মরদেহ পাওয়া গেছে। মরদেহটি স্বজনেরা বাড়িতে নিয়ে যায়। আমরা ঘটনাস্থলে গিয়ে মরদেহটি পাইনি। বাড়ি থেকে মরদেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ২৫০ শয্যার জয়পুরহাট জেনারেল হাসপাতালের পাঠানো হয়েছে। সেতু থেকে পড়ে কিশোরের মৃত্যু হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে।

ক্ষেতলালে সেতুর নিচ থেকে মাদ্রাসা ছাত্রের মরদেহ উদ্ধার

প্রকাশের সময় : ০৩:১৮:৫০ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪
জয়পুরহাটের ক্ষেতলালে তুলসীগঙ্গা নদীর বটতলী সেতুর নিচ থেকে অষ্টম শ্রেণি পড়ুয়া এক মাদ্রাসা ছাত্রের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। সোমবার (১৫ এপ্রিল) সকাল সাড়ে ১১ টায় মরদেহটি উদ্ধার করা হয়। সেতু থেকে পড়ে গিয়ে ওই ছাত্র মারা গেছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করছে পুলিশ।
নিহত ওই ছাত্রের নাম মোঃ আরাফাত হোসেন জনি  (১৫)। সে ক্ষেতলাল উপজেলার দাশড়া উত্তর পাড়া গ্রামের আলী আকবরের ছেলে। ক্ষেতলাল ক্ষেতলাল খোশবদন জি, ইউ আলিম মাদ্রাসার অষ্টম শ্রেণির ছাত্র ছিল।
পুলিশ ও পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, আজ সোমবার সকালে জনি তার খালার বাড়ি বগুড়া শিবগঞ্জ উপজেলা যাওয়ার কথা বলে বাড়ি থেকে বের হয়। সকাল দশটার পর জয়পুরহাট-মোকামতলা আঞ্চলিক মহাসড়কের ক্ষেতলাল উপজেলার তুলসীগঙ্গা নদীর বটতলী সেতুর নিচে একটি  মরদেহ পড়ে থাকতে দেখেন লোকজন। মরদেহটি দাশড়া গ্রামের আলী আকবরের ছেলে জনির বলে শনাক্ত করা হয়। স্বজনেরা এসে জনির মরদেহ বাড়িতে নিয়ে যায়। পুলিশ ঘটনাস্থল এসে  মরদেহ পায়নি। এরপর পুলিশ জনিদের বাড়িতে গিয়ে মরদেহটি উদ্ধার করে।
ক্ষেতলাল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনোয়ার হোসেন বলেন, তুলসীগঙ্গা নদীর বটতলী সেতুর নিচে এক কিশোরের মরদেহ পাওয়া গেছে। মরদেহটি স্বজনেরা বাড়িতে নিয়ে যায়। আমরা ঘটনাস্থলে গিয়ে মরদেহটি পাইনি। বাড়ি থেকে মরদেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ২৫০ শয্যার জয়পুরহাট জেনারেল হাসপাতালের পাঠানো হয়েছে। সেতু থেকে পড়ে কিশোরের মৃত্যু হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে।