Barta Kontho
নিবন্ধন নম্বর: ৪৬১সোমবার , ২২ জুলাই ২০১৯
  1. 1st Lead
  2. 2nd Lead
  3. অপরাধ
  4. আইটি বিশ্ব
  5. আইন ও আদালত
  6. আন্তর্জাতিক
  7. আবহাওয়া
  8. ইসলাম
  9. খেলাধুলা
  10. চাকুরি
  11. ছবি ঘর
  12. জাতীয়
  13. জেলার খবর
  14. ট্রাভেল
  15. নির্বাচন
আজকের সর্বশেষ সবখবর

মৌলভীবাজারে বন্ধুর প্রেমিকাকে মোবাইল ও প্রেমপত্র দিতে গিয়ে ছেলেধরা সন্দেহে গণপিটুনি খেলেন এক যুবক। 

বার্তাকন্ঠ
জুলাই ২২, ২০১৯ ৫:৫১ অপরাহ্ণ
Link Copied!

মৌলভীবাজার প্রতিনিধিঃঃ-

মৌলভীবাজারে  বন্ধুর প্রেমিকাকে মোবাইল ও প্রেমপত্র দিতে গিয়ে ছেলেধরা সন্দেহে গণপিটুনি খেলেন এক যুবক। ঘটনাটি ঘটেছে রোববার রাতে  জেলার কুলাউড়া উপজেলার হাজীপুর ইউনিয়নের পীরেরবাজার এলাকার খাতাইরপার গ্রামে।
গণপিটুনি খাওয়া যুবকের নাম হলো বসন্ত শব্দকর (২৪)। সে কমলগঞ্জ উপজেলার পৌরশহরের নরেন্দ্রপুর এলাকার নরেন্দ্র শব্দকরের ছেলে।
পুলিশ সূত্রে জানায়, কমলগন্জ উপজেলার পৌরশহরের নরেন্দ্রপুর এলাকার হবিব মিয়ার সাথে কুলাউড়া উপজেলার হাজীপুর ইউনিয়নের খাতাইরপার গ্রামের এক তরুণীর প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে।ওই তরুণীর  সাথে যোগাযোগ রাখার জন্য একটি মোবাইল পৌঁছানোর জন্য হবিব তাঁর বন্ধু একই এলাকার নরেন্দ্র শব্দকরের ছেলে বসন্ত শব্দকরের সহযোগিতা চায়। বসন্ত বন্ধুর প্রেমে সহায়তা করার জন্য রোববার সন্ধ্যার দিকে হবিবের দেয়া মোবাইল ও একটি চিঠি নিয়ে ওই তরুণীর বাড়ি হাজীপুরের খাতাইরপারে আসে। এসময় স্থানীয় লোকজন বসন্ত শব্দকরকে  এলাকায় দেখে ছেলেধরা সন্দেহ হয় এবং ছেলেধরা সন্দেহে বসন্তকে গণধোলাই দিতে থাকে।
পরে স্থানীয় পীরেরবাজার এলাকার কয়েকজন ব্যবসায়ী ও এলাকাবাসী উত্তেজিত জনতার হাত থেকে বসন্তকে রক্ষা করে একটি দোকানে নিয়ে রাখে এবং কুলাউড়া থানা পুলিশকে খবর দেয়। খবর পেয়ে পুলিশ বসন্তকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে এসে জিজ্ঞাসাবাদ করে।
কুলাউড়া থানার এস আই কানাই লাল চক্রবর্তী জানান, বসন্ত জিজ্ঞাসাবদে জানায় তাঁর ওই এলাকায় বন্ধু হবিবের প্রেমিকাকে মোবাইল ও চিঠি দিতে এসেছিলো। এসময় তাকে ছেলেধরা সন্দেহে স্থানীয়রা তাকে আটকে রাখে। আমরা খবর পেয়ে তাঁকে উদ্ধার করে নিয়ে আসি।

বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।