মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

শাহজাদপুর থানার ওসি বদলি 

ওসি খায়রুল বাসার

সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর থানার ওসি খায়রুল বাসারকে বুধবার দুপুরে আকষ্মাৎ বদলি করে সিরাজগঞ্জ পুলিশ সুপর কার্যালয়ে সংযুক্ত করা হয়েছে। সিরাজগঞ্জ পুলিশ সুপার কার্যালয় থেকে তাকে এ বদলি করা হয় বলে জানা গেছে। সিরাজগঞ্জ পুলিশ সুপার আরিফুর রহমান মন্ডল বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, এটা পুলিশের রুটিন ওয়ার্ক হিসাবে ওসি খায়রুল বাসারকে বদলি করে পুলিশ লাইন্সে সংযুক্ত করা হয়েছে। এছাড়া তার সাথলে ওসি তদন্ত মো: আসলাম আলীকে  ভারপ্রাপ্ত ওসি হিসাবে দায়ীত্ব দেওয়া হয়েছে।
মাত্র ৭ মাসের মাথায় তাকে বদলির বিষয়ে একটি সুত্র জানায়, শাহজাদপুর পৌর সদরের আমানত শাহ লুিঙ্গর এজেন্ট লিমনের কাছে থেকে ২০০ পিস লুঙ্গি চাঁদাবাজি করে নেওয়ার অভিযোগে তাকে বদলি করা হয়েছে।’
এ বিষয়ে আমানত শাহ লুঙ্গির এজেন্ট লিমন জানান, শাহজাদপুর থানার ওসি খায়রুল বাসার কিছুদিন আগে তার শো-রুমে ফোর্স পাঠিয়ে ২০০ পিস লুঙ্গি চাঁদা হিসাবে দাবি করে। এতো লুঙ্গি তাঁকে দিতে অস্বীকার করলে তিনি আমাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেন এবং আমাকে দেখে নেওয়ার হুমকি দেন। এ বিষয়ে আমি একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছি। হয়তো এ কারণে তার এ বদলি হতে পারে।
এ বিষয়ে শাহজাদপুর থানার ওসি খায়রুল বাসার এ অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, খুব ছোট্ট একটি বিষয় যা বলার মত না। তিনি আরও বলেন, বৃহস্পতিবার সকালে তিনি তার নতুন কর্মস্থলে যোগদান করবেন।
এ বিষয়ে শাহজাদপুর থানার ওসি (তদন্ত) মোঃ আসলাম আলী বলেন, বদলির বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, এটা উর্ধ্বতন কতৃপক্ষের বিষয়। এ সম্পর্কে আমার কিছু জানা নেই।
এ বিষয়ে শাহজাদপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো: কামরুজ্জামান বলেন, বিষয়টি কিছুক্ষণ আগে শুনেছি। এটা ওই ডিপার্টমেন্টের অভ্যান্তরিণ বিষয়।
এদিকে শাহজাদপুর থানার ওসির অকস্মাৎ বদলির আদেশের বিষয়টি সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষ কিছু নিশ্চিত করে না বলায় জনমনে চাঁদাবাজির বিষয়ে গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়েছে।

শাহজাদপুর থানার ওসি বদলি 

প্রকাশের সময় : ০৯:১৫:০০ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৫ মে ২০২৪
সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুর থানার ওসি খায়রুল বাসারকে বুধবার দুপুরে আকষ্মাৎ বদলি করে সিরাজগঞ্জ পুলিশ সুপর কার্যালয়ে সংযুক্ত করা হয়েছে। সিরাজগঞ্জ পুলিশ সুপার কার্যালয় থেকে তাকে এ বদলি করা হয় বলে জানা গেছে। সিরাজগঞ্জ পুলিশ সুপার আরিফুর রহমান মন্ডল বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, এটা পুলিশের রুটিন ওয়ার্ক হিসাবে ওসি খায়রুল বাসারকে বদলি করে পুলিশ লাইন্সে সংযুক্ত করা হয়েছে। এছাড়া তার সাথলে ওসি তদন্ত মো: আসলাম আলীকে  ভারপ্রাপ্ত ওসি হিসাবে দায়ীত্ব দেওয়া হয়েছে।
মাত্র ৭ মাসের মাথায় তাকে বদলির বিষয়ে একটি সুত্র জানায়, শাহজাদপুর পৌর সদরের আমানত শাহ লুিঙ্গর এজেন্ট লিমনের কাছে থেকে ২০০ পিস লুঙ্গি চাঁদাবাজি করে নেওয়ার অভিযোগে তাকে বদলি করা হয়েছে।’
এ বিষয়ে আমানত শাহ লুঙ্গির এজেন্ট লিমন জানান, শাহজাদপুর থানার ওসি খায়রুল বাসার কিছুদিন আগে তার শো-রুমে ফোর্স পাঠিয়ে ২০০ পিস লুঙ্গি চাঁদা হিসাবে দাবি করে। এতো লুঙ্গি তাঁকে দিতে অস্বীকার করলে তিনি আমাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেন এবং আমাকে দেখে নেওয়ার হুমকি দেন। এ বিষয়ে আমি একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছি। হয়তো এ কারণে তার এ বদলি হতে পারে।
এ বিষয়ে শাহজাদপুর থানার ওসি খায়রুল বাসার এ অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, খুব ছোট্ট একটি বিষয় যা বলার মত না। তিনি আরও বলেন, বৃহস্পতিবার সকালে তিনি তার নতুন কর্মস্থলে যোগদান করবেন।
এ বিষয়ে শাহজাদপুর থানার ওসি (তদন্ত) মোঃ আসলাম আলী বলেন, বদলির বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, এটা উর্ধ্বতন কতৃপক্ষের বিষয়। এ সম্পর্কে আমার কিছু জানা নেই।
এ বিষয়ে শাহজাদপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো: কামরুজ্জামান বলেন, বিষয়টি কিছুক্ষণ আগে শুনেছি। এটা ওই ডিপার্টমেন্টের অভ্যান্তরিণ বিষয়।
এদিকে শাহজাদপুর থানার ওসির অকস্মাৎ বদলির আদেশের বিষয়টি সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষ কিছু নিশ্চিত করে না বলায় জনমনে চাঁদাবাজির বিষয়ে গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়েছে।