বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ৪ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

পশ্চিমবংগে কোন দল এগিয়ে, তৃণমুল কংগ্রেস না বিজেপি

ভারতে আজ মঙ্গলবার স্থানীয় সময় সকাল ৮টায় শুরু হয়েছে ১৮তম লোকসভা নির্বাচনের ভোট গণনা। দেশটির নতুন সরকার গঠন করবে কে তা ভোট গণনা শেষে আজই জানা যাবে।

এবারের লোকসভা নির্বাচনে বিজেপির সঙ্গে ভালোই লড়াই করছে বিজেপিবিরোধী ‘ইন্ডিয়া’ জোট। তবে পশ্চিমবঙ্গে বিজেপিকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে হচ্ছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের তৃণমূল কংগ্রেসের সঙ্গে।

মঙ্গলবার (৪ জুন) বেলা ১১টা পর্যন্ত নির্বাচন কমিশনের তথ্যানুযায়ী, তৃণমূল কংগ্রেস ২৮টি আসনে, বিজেপি এগিয়ে আছে ১০টি আসনে, দুটিতে এগিয়ে কংগ্রেস, একটিতে এগিয়ে আছে সিপিআইএম।

তৃণমূল কংগ্রেসের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক ব্যানার্জী তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দী বিজেপি প্রার্থীর চেয়ে ১ লাখ ১৫ হাজারেরও বেশি ভোটে এগিয়ে আছেন।

কোচবিহারে বিদায়ি কেন্দ্রীয় মন্ত্রী ও বিজেপি প্রার্থী নিশিথ প্রামাণিক পিছিয়ে আছেন তৃণমূল কংগ্রেসের জগদীশ চন্দ্র বর্মা বসুনিয়ার থেকে।

বহুল চর্চিত সন্দেশখালি যে লোকসভা আসনের অন্তর্গত সেই বসিরহাট কেন্দ্রে বিজেপি প্রার্থী রেখা পাত্র’র চেয়ে প্রায় ২৭ হাজার ভোটে এগিয়ে আছেন ওই কেন্দ্রের তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী শেখ নুরুল ইসলাম।

হুগলি আসনে তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী রচনা ব্যানার্জী তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দী বিদায়ি সংসদ সদস্য লকেট চ্যাটার্জীর চেয়ে প্রায় ১০ হাজার ভোটে এগিয়ে। মিজ চ্যাটার্জী আর মিজ ব্যানার্জী দুজনেই অভিনেত্রী।

তমলুক কেন্দ্রে বিচারপতির পদে ইস্তফা দিয়ে যিনি বিজেপির প্রার্থী হয়েছিলেন, সেই অভিজিৎ গাঙ্গুলি তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী তৃণমূল কংগ্রেসের যুবনেতা দেবাংশু ভট্টাচার্যের থেকে ১ হাজারেরও বেশি ভোটে পিছিয়ে আছেন।

কংগ্রেস যে দুটি আসনে এগিয়ে আছেন। তার মধ্যে বিগত লোকসভায় কংগ্রেসের দলনেতা অধীর চৌধুরী বহরমপুর আসনে, মালদা দক্ষিণ কেন্দ্রে ইশা খান চৌধুরী এগিয়ে আছেন।

কংগ্রেসের জোটসঙ্গী সিপিআইএমের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সম্পাদক মুহম্মদ সেলিম মুর্শিদাবাদ কেন্দ্রে এগিয়ে আছেন প্রায় ২৬০০ ভোটে।

গত শনিবার লোকসভা নির্বাচনের শেষ বা সপ্তম দফার ভোটগ্রহণ সম্পন্ন হয় পশ্চিমবঙ্গে। এ রাজ্যের ৪২টি আসনে ভোটগ্রহণ হয়েছে ৭ দফায়।

এই রাজ্যের ৪২টি লোকসভা কেন্দ্রের জন্য মোট ৫৫টি কেন্দ্রে গণনা চলছে। এর মধ্যে কলকাতা উত্তর এবং কলকাতা দক্ষিণ লোকসভা কেন্দ্রের গণনা হচ্ছে শহরের মোট আটটি গণনাকেন্দ্রে। পশ্চিমবঙ্গের এ ৪২ আসনের ৫০৭ জন প্রার্থীর ভাগ্য নির্ধারণ হবে আজ।

২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনে বাংলার ৪২টি আসনের মধ্যে শাসকদল তৃণমূল জিতেছিল ২২টি আসন। বিজেপি পেয়েছিল ১৮টি। সিপিএম একটি আসনও পায়নি। কংগ্রেস পেয়েছিল ২টি আসন।

পশ্চিমবংগে কোন দল এগিয়ে, তৃণমুল কংগ্রেস না বিজেপি

প্রকাশের সময় : ১১:৪৭:৪৩ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৪ জুন ২০২৪

ভারতে আজ মঙ্গলবার স্থানীয় সময় সকাল ৮টায় শুরু হয়েছে ১৮তম লোকসভা নির্বাচনের ভোট গণনা। দেশটির নতুন সরকার গঠন করবে কে তা ভোট গণনা শেষে আজই জানা যাবে।

এবারের লোকসভা নির্বাচনে বিজেপির সঙ্গে ভালোই লড়াই করছে বিজেপিবিরোধী ‘ইন্ডিয়া’ জোট। তবে পশ্চিমবঙ্গে বিজেপিকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে হচ্ছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের তৃণমূল কংগ্রেসের সঙ্গে।

মঙ্গলবার (৪ জুন) বেলা ১১টা পর্যন্ত নির্বাচন কমিশনের তথ্যানুযায়ী, তৃণমূল কংগ্রেস ২৮টি আসনে, বিজেপি এগিয়ে আছে ১০টি আসনে, দুটিতে এগিয়ে কংগ্রেস, একটিতে এগিয়ে আছে সিপিআইএম।

তৃণমূল কংগ্রেসের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক ব্যানার্জী তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দী বিজেপি প্রার্থীর চেয়ে ১ লাখ ১৫ হাজারেরও বেশি ভোটে এগিয়ে আছেন।

কোচবিহারে বিদায়ি কেন্দ্রীয় মন্ত্রী ও বিজেপি প্রার্থী নিশিথ প্রামাণিক পিছিয়ে আছেন তৃণমূল কংগ্রেসের জগদীশ চন্দ্র বর্মা বসুনিয়ার থেকে।

বহুল চর্চিত সন্দেশখালি যে লোকসভা আসনের অন্তর্গত সেই বসিরহাট কেন্দ্রে বিজেপি প্রার্থী রেখা পাত্র’র চেয়ে প্রায় ২৭ হাজার ভোটে এগিয়ে আছেন ওই কেন্দ্রের তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী শেখ নুরুল ইসলাম।

হুগলি আসনে তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী রচনা ব্যানার্জী তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দী বিদায়ি সংসদ সদস্য লকেট চ্যাটার্জীর চেয়ে প্রায় ১০ হাজার ভোটে এগিয়ে। মিজ চ্যাটার্জী আর মিজ ব্যানার্জী দুজনেই অভিনেত্রী।

তমলুক কেন্দ্রে বিচারপতির পদে ইস্তফা দিয়ে যিনি বিজেপির প্রার্থী হয়েছিলেন, সেই অভিজিৎ গাঙ্গুলি তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী তৃণমূল কংগ্রেসের যুবনেতা দেবাংশু ভট্টাচার্যের থেকে ১ হাজারেরও বেশি ভোটে পিছিয়ে আছেন।

কংগ্রেস যে দুটি আসনে এগিয়ে আছেন। তার মধ্যে বিগত লোকসভায় কংগ্রেসের দলনেতা অধীর চৌধুরী বহরমপুর আসনে, মালদা দক্ষিণ কেন্দ্রে ইশা খান চৌধুরী এগিয়ে আছেন।

কংগ্রেসের জোটসঙ্গী সিপিআইএমের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সম্পাদক মুহম্মদ সেলিম মুর্শিদাবাদ কেন্দ্রে এগিয়ে আছেন প্রায় ২৬০০ ভোটে।

গত শনিবার লোকসভা নির্বাচনের শেষ বা সপ্তম দফার ভোটগ্রহণ সম্পন্ন হয় পশ্চিমবঙ্গে। এ রাজ্যের ৪২টি আসনে ভোটগ্রহণ হয়েছে ৭ দফায়।

এই রাজ্যের ৪২টি লোকসভা কেন্দ্রের জন্য মোট ৫৫টি কেন্দ্রে গণনা চলছে। এর মধ্যে কলকাতা উত্তর এবং কলকাতা দক্ষিণ লোকসভা কেন্দ্রের গণনা হচ্ছে শহরের মোট আটটি গণনাকেন্দ্রে। পশ্চিমবঙ্গের এ ৪২ আসনের ৫০৭ জন প্রার্থীর ভাগ্য নির্ধারণ হবে আজ।

২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনে বাংলার ৪২টি আসনের মধ্যে শাসকদল তৃণমূল জিতেছিল ২২টি আসন। বিজেপি পেয়েছিল ১৮টি। সিপিএম একটি আসনও পায়নি। কংগ্রেস পেয়েছিল ২টি আসন।